ঢাকা, বৃহস্পতিবার 12 January 2017, ২৯ পৌষ ১৪২৩, ১৩ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

আমেরিকার উন্নয়নকে ঝুঁকিতে ফেলবেন ট্রাম্প

১১ জানুয়ারি, ইন্ডিপেন্ডেন্ট : আমেরকিার প্রায় ৬ শতাধিক কোম্পানি ও বিনিয়োগকারী ডোনাল্ড ট্রাম্প ও রিপাবলিকান সংখ্যাগরিষ্ট নেতৃত্বাধীন কংগ্রেসকে কম কার্বন নিঃসরণে প্যারিস জলবায়ু চুক্তির সঙ্গে থাকার কথা বলেছেন এই শিল্পপতিরা। প্যারিস জলবায়ূ চুক্তির সঙ্গে না থাকলে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি ঝুঁকিতে পরবে বলে হুশিয়ারি দিয়েছেন তারা। প্যারিসে যে জলবায়ূ চুক্তি হয়েছে তা বাতিলের ঘোষণা দিয়েছেন নতুন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। যার বিরোধিতা আগেই করেছেন পরিবেশ বিজ্ঞানীরা।
একটি যৌথ বিবৃতিতে হুশিয়ারি দিয়ে জলবায়ূ চুক্তির পুনবিবেচনা করার আহবান জানিয়েছেন বিভিন্ন কোম্পানির শীর্ষস্থানীয় কর্তা ব্যক্তিরা। বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেছেন আমেরিকার খ্যাতিমান প্রতিষ্ঠানগুলোর স্বত্বাধিকারীরা। জনসন এন্ড জনসন, জেনারেল মিলস, কিলোগস, হিউলিট প্যাকার্ড এন্টারপ্রাইজ, ইউনিলিভারের মতো কোম্পানি জলবায়ূ নিয়ে ট্রাম্পের দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তনের আহবান জানিয়েছেন।
যৌথ বিবৃতিতে বিভিন্ন কোম্পানির পক্ষ থেকে বলা হয়, আমরা যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতিকে জ্বালানি নির্ভর করে আরো শক্তিশালী করতে চাই এবং যাতে কার্বন  নিঃসরণ হয় সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে। ব্যয় সাশ্রয়ী ও অভিনব পন্থা এই উদ্দেশ্য সাধনে কার্যকরি ভূমিকা পালন করবে।
বিবৃতিতে আরো বলা হয়, কার্বণ নিঃসরণ হ্রাসে ব্যর্থ হলে আমেরিকার অর্থনীতিও ঝুঁকিতে পরবে। তবে এই অবস্থা থেকে উত্তোরণের জন্য কর্মসংস্থান বৃদ্ধি ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিযোগিতা বাড়াতে হবে। বছরে ১.১৫ ট্রিলিয়ন আয় করা ৫৩০ টির বেশি কোম্পানি যারা ১৮ লাখ মানুষের কর্মসংস্থান করেছে তারা সবাই এই বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেছে। এর মধ্যে নিউ ইয়র্ক অঙ্গরাজ্যের কমন রিটারমেন্ট ফান্ড, ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের টিচারর্স রিটারমেন্ট সিস্টেমসহ অন্য প্রতিষ্ঠানের ১০০ বিনিয়োগকারীও রয়েছে।বিবৃতিতে স্বাক্ষরকারী গ্লোবাল পলিসি এন্ড অ্যাডভোকেসির সিনিয়র পরিচালক আনা ওয়াকার বলেন, বিশ্ব নেতারা প্যারিস জলবায়ূর যে চুক্তি করেছে তার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃবৃন্দকে কাজ করতে হবে। তা না হলে আমাদের দীর্ঘ মেয়াদী অর্থনৈতিক উন্নয়ন ধাক্কা খাবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ