ঢাকা, বৃহস্পতিবার 12 January 2017, ২৯ পৌষ ১৪২৩, ১৩ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

সাভারে র‌্যাবের সাথে কথিত বন্দুকযুদ্ধে গাংচিল বাহিনী প্রধান নিহত

সাভার সংবাদদাতা : সাভারে র‌্যাবের সাথে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ গাংচিল বাহিনীর প্রধান আনোয়ার হোসেন আনার (৪০) নিহত হয়েছে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে তিনটি বিদেশী পিস্তল ও ১৪ রাউন্ড গুলী উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়া সন্ত্রাসীদের গুলীতে দুই র‌্যাব সদস্য আহত হয়েছেন। তাদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। গতকাল বুধবার ভোর রাতে কাউন্দিয়া ইউনিয়নের মেলার টেক এলাকার মৃত লিয়াকত আলীর দোতালা বাড়ির ছাদে অবস্থিত চিলেকোঠায় বন্দুকযুদ্ধের এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাড়ির মালিকের ছেলে টুটুলকে আটক করা হয়েছে। নিহত আনোয়ার হোসেন আনার আমিনবাজার এলাকার সন্ত্রাসী বাহিনীর প্রধান এবং স্থানীয় মেলার টেক এলাকার লাট মিয়ার ছেলে। সে দীর্ঘদিন ধরে সন্ত্রাসী বাহিনী গাংচিলের নেতৃত্ব দিয়ে আসছে। তার একটি পা অন্য পা থেকে ছোট ছিল। এর আগেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর গুলীতে তার একটি পা নষ্ট হয়ে যায়। পরে সেটিতে রড ভরে প্লাষ্টার করে চলাচল করতো নিহত আনোয়ার।
এ ব্যাপারে র‌্যাব-৩ এর পরিচালক লে. কর্নেল খন্দকার গোলাম সারোয়ার জানান, বেশ কিছুদিন ধরে গাংচিল বাহিনীর প্রধান আনোয়ার হোসেন আনার কাউন্দিয়া ইউনিয়নের মেলার টেক এলাকায় অবস্থান নিয়ে বড় ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকান্ড ঘটানোর জন্য সংঘবদ্ধ হচ্ছিল এমন গোপন সংবাদের সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার ভোর রাতে ওই এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানের একপর্যায়ে সন্ত্রাসীদের আস্তানাটি ঘিরে ফেলা হলে তারা র‌্যাব সদস্যদের লক্ষ করে গুলী ছুড়তে ছুড়তে পালানোর চেষ্টা করে। এসময় র‌্যাব ও পাল্টা গুলী চালালে গাংচিল বাহিনীর প্রধান আনোয়ার হোসেন আনার গুরুতর আহত হয়। এ ঘটনায় সৈনিক আবু হাসান ও এএসআই আলী হোসেন আহত হয়। পরে সন্ত্রাসীদের আস্তানা থেকে তিনটি বিদেশী পিস্তল ও ১৪ রাউন্ড গুলীসহ গাংচিল বাহিনীর প্রধান আনারকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত আনোয়ার বাড়ির মালিকের নিকট আত্মীয় বলে জানান ওই কর্মকর্তা।
ওই বাড়ির মৃত লিয়াকত আলীর স্ত্রী মিনু বেগম (৪৫) জানান, বন্দুকযুদ্ধের সময় তাকে তার ছেলে টুটুল (২৯) মেয়ে রুনা (২৫) ও ছেলের স্ত্রী রোহানাকে কক্ষে আটকিয়ে রাখে র‌্যাব। এসময় র‌্যাব সদস্যরা তাদেরকে মারধর করে বলে জানান তিনি। র‌্যাব সদস্যরা এসময় ওই বাড়ি থেকে তিনটি মোবাইল ফোন জব্দ করেছে। এদিকে স্থানীয়দের মাঝে ওই বাড়িটি ঘিরে এক ধরণের রহস্য দেখা দিয়েছে। বাড়িটি এক নজর দেখার জন্য অনেকে ভীড় করছেন সেখানে। স্থানীয়রা জানায় ওই বাড়ির তিন তলার একটি কক্ষে তিন মাস আগে রাজু নামের এক ব্যক্তিকে একটি কক্ষ ভাড়া দিয়ে ছিলো টুটুল।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ