ঢাকা, বৃহস্পতিবার 12 January 2017, ২৯ পৌষ ১৪২৩, ১৩ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

১৫ জানুয়ারি থেকে হজ্ব¡যাত্রীদের প্রাক নিবন্ধন শুরু

স্টাফ রিপোর্টার : ২০১৭ সালের হজ্ব কার্যক্রমে সরকারি ও বেসরকারি হজ্বযাত্রীদের প্রাক নিবন্ধন ও নিবন্ধন ফির অর্থ সংগ্রহের জন্য ২৫টি ব্যাংককে অনুমোদন দিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। ধর্ম মন্ত্রণালয়ের (হজ্ব-২) শাখার সহকারী সচিব বেগম হাসিনা শিরীন স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ অনুমোদন দেয়া হয়। চলতি মাসের ১৫ তারিখ থেকে হজ্বের প্রাক নিবন্ধন শুরু হবে বলে জানা গেছে। তবে সেদিন শুধুমাত্র সরকারি ব্যবস্থাপনায় গমনেচ্ছু হজ্ব¡যাত্রীদের প্রাক নিবন্ধন শুরু হবে। আর বেসরকারি ব্যবস্থাপনার হজ্ব¡যাত্রীদের প্রাক নিবন্ধন আরো কিছুদিন পরে শুরু হবে। ইতোমধ্যে হজ্ব¡ প্যাকেজ চূড়ান্ত হয়েছে। শীঘ্রই তা কেবিনেটে পাস হবে বলে জানা গেছে।

হজ্বে¡র টাকা নেয়ার জন্য অনুমোদনপ্রাপ্ত ব্যাংকগুলো হলো- সোনালী ব্যাংক প্রধান কার্যালয়, পূবালী ব্যাংক প্রধান কার্যালয়, ট্রাস্ট ব্যাংক (কর্পোরেট হেড অফিস, স্বাধীনতা টাওয়ার), প্রাইম ব্যাংক লিমিটেড (আদমজী কোর্ট এনেক্স বিল্ডিং, দিলকুশা বাণিজ্যিক এলাকা), সাউথ ইস্ট ব্যাংক (৫২-৫৩ দিলকুশা, ঢাকা), ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড (২০ দিলকুশা বাণিজ্যিক এলাকা), ওয়ান ব্যাংক (এইচআরসি ভবন, ৪৬, কারওয়ানবাজার), জনতা ব্যাংক লিমিটেড (জনতা ভবন, ১১০ বাণিজ্যিক এলাকা)।

শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক (গুলশান-১), ব্যাংক এশিয়া (র‌্যাংগস টাওয়ার, পুরানা পল্টন), এক্সিম ব্যাংক (গুলশান, মধুমতি ব্যাংক, মতিঝিল), রুপালী ব্যাংক প্রধান কার্যালয়, যমুনা ব্যাংক (হাদি ম্যানসন, দিলকুশা), আল আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড (দিলকুশা), প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেড (গুলশান সার্কেল-২), মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেড (দিলকুশা বাণিজ্যিক এলাকা), সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড (সিটি সেন্টার, মতিঝিল), অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড (সানমুন স্টার টাওয়ার, দিলকুশা), স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক লিমিটেড (প্রধান কার্যালয়), সাউথ বাংলা অ্যাগ্রিকালচার অ্যান্ড কমার্স ব্যাংক লিমিটেড, মিচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড (কর্পোরেট হেড অফিস) এবং এনসিসি ব্যাংক লিমিটেড, মতিঝিল।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ আনোয়ার হোসাইন জানান, গত বছর যারা নিবন্ধন করেও সিরিয়াল পেছনে থাকায় হজ্বে যেতে পারেননি তারা এবার অগ্রাধিকার পাবেন। এ ধরনের অগ্রাধিকার পাবেন প্রায় ৪০ হাজারেরও বেশি হজ্বযাত্রী।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা জানান, ২০১৭ সালে বাংলাদেশ থেকে ১ লাখ ২৭ হাজার বাংলাদেশি পবিত্র হজ্ব পালনের সুযোগ পাবেন বলে তারা আশা করা যাচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ