ঢাকা, বৃহস্পতিবার 12 January 2017, ২৯ পৌষ ১৪২৩, ১৩ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

আনিকার স্বামীর বিরুদ্ধে আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলা

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর দারুস সালাম এলাকায় দুই শিশুকে হত্যার পর গৃহবধূ আনিকার আত্মহত্যার ঘটনায় তার স্বামী শামীম হোসেনের বিরুদ্ধে প্ররোচনার মামলা হয়েছে। আনিকার মা নাদিরা বেগম গতকাল বুধবার দারুস সালাম থানায় এই মামলা দায়ের করেন। থানার পরিদর্শক ফারুকুল ইসলাম বলেন, “মামলায় শামীম হোসেনের বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে।”

এর আগে গতকাল বুধবার সকালে পরিদর্শক ফারুকুল বলেছিলেন, ‘দাম্পত্য কলহের জের ধরেই’ আনিকা ওই ঘটনা ঘটিয়েছেন বলে শামীমকে জিজ্ঞাসাবাদ করে তারা ধারণা পেয়েছেন। “গতকাল ( মঙ্গলবার ) সকালে নাশতার সময় বাসি ভাত দেওয়ায় শামীম রেগে গিয়ে আনিকাকে গালাগাল করেন। এরপর না খেয়েই বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান শামিম। পরে দুপুরে ওই ঘটনা ঘটে।”

মঙ্গলবার বিকালে ছোট দিয়াবাড়ি পানির পাম্পসংলগ্ন ওই বাসা থেকে আনিকার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ওই দম্পতির পাঁচ বছরের মেয়ে শামীমা ও তিন বছরের ছেলে আবদুল্লাহর লাশ পড়ে ছিল গলাকাটা অবস্থায়।

আনিকার স্বামী সেলুন কর্মী শামীম ওই সময় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের জনসভায় ছিলেন। শামীম ফিরে আসার পর মঙ্গলবার রাতেই তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

শামীমের বাড়ি গোপালগঞ্জে। আর আনিকার বাড়ি নওগাঁ জেলার মহাদেবপুরে। সেখান থেকে ঢাকায় এসেই গতকাল বুধবার দুপুরে দারুস সালাম থানায় মামলা করেন আনিকার মা। প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন, ওই দম্পতির মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া হত। সোমবার রাতেও তাদের বাক বিতন্ডা তারা শুনেছেন। লাশ উদ্ধারের পর ওই ঘর থেকে একটি রক্তমাখা বটি ও চিরকূট উদ্ধার করার কথা জানান পুলিশ কর্মকর্তারা। তারা জানান, ওই চিরকূটে আত্মহত্যার স্বীকারোক্তি ছিল।

দারুস সালাম থানার পরিদর্শক ফারুকুল ইসলাম জানান , গৃহবধু আনিকা ‘দাম্পত্য কলহের জের ধরেই’ তার দুই শিশুকে হত্যার পর নিজে আত্মহত্যা করেছেন বলে ধারণা করছে পুলিশ। আনিকার স্বামী শামীম হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে এই ধারণা হয়েছে বলে তিনি জানান । লাশ উদ্ধারের পর ওই ঘর থেকে একটি রক্তমাখা বটি ও চিরকূট উদ্ধার করার কথা জানান পুলিশ কর্মকর্তারা। তারা জানান, ওই চিরকূটে আত্মহত্যার স্বীকারোক্তি ছিল।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ