ঢাকা, বৃহস্পতিবার 12 January 2017, ২৯ পৌষ ১৪২৩, ১৩ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মিয়ানমারের মুসলমানদের ওপর নির্যাতন বন্ধ করে তাদের বেঁচে থাকার অধিকার নিশ্চিত করার আহ্বান

চকরিয়া সংবাদদাতা : আজ মুসলিম মিল্লাত কঠিন ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। কুরআন সুন্নাহর আলোকে বিশ্ব নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠায় সর্বস্তরের মুসলিম তৌহিদী জনতাকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। বর্তমান প্রেক্ষাপটে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের নীরব ও রহস্যজনক ভূমিকাকে পুঁজি করে ইসলাম বিদ্বেষী উগ্রগোষ্ঠী কর্তৃক মিয়ানমারের মুসলিম অধ্যুষিত জনপদকে জনশূণ্য করার সকল ষড়যন্ত্র বাস্তবায়িত হচ্ছে। একইভাবে ফিলিস্তিন, সিরিয়া, মিশরসহ বিশ্বব্যাপি মুসলমানরা আজ চরমভাবে নির্যাতিত হচ্ছে। এর কারণ ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ ও সোচ্চার না হওয়া। এসব ষড়যন্ত্র হতে সজাগ থাকতে আল কুরআন ও রাসুল (সঃ) এর সুন্নাহকে মজবুতভাবে আকড়ে ধরতে হবে। মাহফিলে বক্তারা অবিলম্বে মিয়ানমারের মুসলমানদের ওপর অমানবিক নির্যাতন বন্ধ করে মানুষ হিসেবে তাদের বেঁচে থাকার অধিকার নিশ্চিত করতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়সহ জাতিসংঘের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানান।

চকরিয়া উপজেলার অন্তর্গত বৃহত্তর কাকারা ইউনিয়ন সর্বদলীয় সচেতন নাগরিক সমাজের উদ্যোগে মঙ্গলবার উত্তর কাকারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ময়দানে ৪র্থতম ঐতিহাসিক তাফসীরুল কুরআন মাহফিল সম্পন্ন হয়। এতে বক্তারা উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

বিশিষ্ট আলেমেদ্বীন আলহাজ্ব মাওলানা মোস্তাক আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কাকারা ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা মো. শওকত উসমান। বিশাল মাহফিলে আলোচনা পেশ করেন আল্লামা মুফতি ড. জামাল উদ্দিন (ঢাকা), আল্লামা ড. দেলোয়ার হোছাইন আনসারী (নোয়াখালী), আলহাজ্ব মাওলানা আইয়ুব আলী আনসারীসহ স্থানীয় ওলামায়ে কেরামগণ। এসময় উপস্থিত ছিলেন মাহফিল পরিচালনা কমিটির অন্যতম মুখপাত্র আলহাজ্ব মাওলানা আশেক উদ্দিনসহ সকল সদস্যবৃন্দ ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ