ঢাকা, শনিবার 14 January 2017, ১ মাঘ ১৪২৩, ১৫ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

ভার্মি কম্পোস্ট তৈরী করে স্বাবলম্বী মনিরুল

ভোলাহাটে এভাবে ভার্মি কম্পোস্ট তৈরী করে স্বাবলম্বী মনিরুল ইসলাম

ভোলাহাট (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) সংবাদদাতা: চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার ভোলাহাট উপজেলার পোল্লাডাঙ্গা নাজিরপুর গ্রামের সাদেক আলীর ছেলে মনিরুল ইসলাম গত বছর ধরে মোট ১৪টি গাভী নিয়ে একদিকে দুধ অপর দিকে ভার্মি কম্পোস্ট সার তৈরী করে স্বাবলম্বী হয়েছেন। মনিরুল ইসলাম জানান, তিনি এ গাভী থেকে গত বছর ৬শ’ বস্তা ভার্মি কম্পোষ্ট উৎপাদন করেন। প্রতি বস্তায় ৫০কেজি। তিনি প্রতি কেজি ১৪ টাকা দরে কৃষকের কাছে বিক্রয় করেছেন। গত বছরে তিনি এ কম্পোস্ট তৈরীতে ব্যয় করেছেন ১ লাখ ৮০ হাজার এবং আয় করেছেন ৪ লাখ ২০ হাজার টাকা। তার এক বছরে মোট লাভ হয়েছে ২ লাখ ৪০ হাজার টাকা। এদিকে ১৪টি গাভী থেকে প্রতিদিন গোবর উৎপাদন হয়েছে ২শ’ ৫০ থেকে ৩শত কেজি। তিনি আরো জানান, উৎপাদিত ভার্মি কম্পোস্ট জমিতে ব্যবহার করে  কোন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া না থাকায় কৃষকদের ব্যাপক আগ্রহ বাড়ছে। কিন্তু কৃষকের চাহিদা পূরণ করা সম্ভব হচ্ছে না। তিনি জানান, তার দু’ভাই  রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় রসায়ন বিভাগের প্রফেসার ড. মোঃ নুররুল ইসলাম ও মুঞ্জুর হোসেন আর্থিকভাবে সহায়তায়তা করেছেন এবং কারিগরি সহায়তা করেছেন ভোলাহাট উপজেলা কৃষি অধিদপ্তর করায় আজ তিনি পরিবারের লোকজন নিয়ে সুখী জীবন যাপন করছেন। এ ব্যাপারে কৃষি কর্মকর্তা আব্দুল ওয়াদুদ জানান, অল্প সময়ের মধ্যে  মনিরুল ইসলাম ভার্মি কম্পোস্ট তৈরী করে যেমন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়ামুক্ত সার তৈরী করে অল্প মূল্যে কৃষকদের মাঝে বিক্রয় করে অধিক ফলনের সহায়তা করছেন অপরদিকে তিনি নিজে লাভবান হয়ে পরিবারের সদস্য নিয়ে সুখী জীবন যাপন করছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ