ঢাকা, শনিবার 14 January 2017, ১ মাঘ ১৪২৩, ১৫ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

অবিলম্বে শতভাগ পেনশন সমর্পণের অধিকার নিশ্চিত করুন

গতকাল শুক্রবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে বাংলাদেশ সতেরো-বিশতম গ্রেড সরকারি কর্মচারী পরিষদের জাতীয় কাউন্সিল ২০১৭ অনুষ্ঠিত হয় -সংগ্রাম

বাংলাদেশ সরকারি কর্মচারী সমন্বয় পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির এক জরুরি সভা গতকাল শুক্রবার সংগঠনের সভাপতি মো. মোয়াজ্জেম হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় সরকারের পেনশন নীতিমালা পরিবর্তনের সিদ্ধান্তে তীব্র ক্ষোভ ও প্রতিবাদ জানিয়ে বক্তাগণ বলেন, দীর্ঘ চাকরি জীবন শেষে নি¤œ আয়ের কর্মচারীরা শতভাগ পেনশন সমর্পণ করে আর্থিকভাবে সচ্ছল জীবনযাপনের প্রত্যাশায় থাকেন। এহেন পরিস্থিতিতে সরকার কতিপয় আমলার ষড়যন্ত্রে এক তরফাভাবে ৫০ শতাংশ পেনশন জমা রাখার সিদ্ধান্ত গণকর্মচারীদের স্বার্থের পরিপন্থী। আমরা অবিলম্বে পূর্বতন পেনশন নীতিমালা বহাল রাখার জোর দাবি জানাচ্ছি। অসহায়, অসুস্থ, দিনহীন জীবনযাপনের বিপরীতে গণকর্মচারীদের ৫০ শতাংশ পেনশন কর্তন মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা বলে আমরা মনে করছি। কর্মচারীরা বয়োবৃদ্ধ অবস্থায় আপতকালীন সময়ে এককালীন শতভাগ পেনশন সুবিধা উত্তোলনের যে প্রথা চলমান তা বাতিল করার সিদ্ধান্তে সারা দেশের কর্মচারী অঙ্গনে তীব্র ক্ষোভ ও চরম হতাশার জন্ম দিয়েছে। এই ক্ষোভ ও হতাশা নিরসনকল্পে আমরা অবিলম্বে শতভাগ পেনশন সমর্পণ করার অধিকার নিশ্চিত করার জন্য সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।
অন্যথায় জারিকৃত প্রজ্ঞাপন বাতিলের জন্য সারা দেশের ১২ লাখ গণকর্মচারী আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করতে বাধ্য হবে।
সভায় বক্তব্য পেশ করেন পরিষদের মহাসচিব, নোমানুজ্জামান আল আজাদ, কার্যকরী সভাপতি এম এ হান্নান, অতিরিক্ত মহাসচিব বদরুল আলম সবুজ, মো. সেলিম মিয়া, সহ-সভাপতি ছালজার রহমান, নিজাম উদ্দিন পাটোয়ারী, সৈয়দ  সরোয়ার হোসেন, আম্বিয়া বেগম পলি, এম এ ওয়াদুদ, যুগ্ম মহাসচিব মো. মোজাম্মেল হক, মানিক মিয়া, সাংগঠনিক সচিব মো. মনির আহমেদ, মো. আজিম, মো. রোকুনুজ্জামান, দফতর সচিব সাজিদুল ইসলাম, প্রচার সচিব লোকমান হোসেন, খন্দকার আক্কাস প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।
চতুর্থ শ্রেণী সরকারি কর্মচারী সমিতি
গতকাল শুক্রবার তোপখানা রোড, ঢাকায় বাংলাদেশ চতুর্থ শ্রেণী সরকারি কর্মচারী সমিতির ঢাকা মহানগরীর কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ/ইউনিট/আঞ্চলিক শাখার নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে পেনশন নীতিমালার প্রজ্ঞাপন জারির প্রতিবাদে এক যৌথ প্রতিবাদ সভা সমিতির সভাপতি এম এ হান্নানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. সেলিম ভূঁইয়া, আরও বক্তব্য রাখেন কার্যকরী সভাপতি মো. মনির আহমেদ, সহ-সভাপতি ইকবাল হায়াত খান, মো. রেনু মিয়া, মো. আলী আকবর, আম্বিয়া বেগম পলি, মো. শামসুল হক সুজন, মো. মানিক মিয়া, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. মোজাম্মেল হক, মো. আজিম, মো. মজিবুল হক, মো. মনিরুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মনির হোসেন, মো. লোকমান হোসেন, মো. ইউসুফ, কাজী জাহেদুল ইসলাম জাহিদ, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রব, শিকদার মাহবুব হোসেন, দফতর সম্পাদক মো. সাজেদুল ইসলাম, অর্থ সম্পাদক মো. রফিকুল আলম, প্রচার সম্পাদক খন্দকার আক্কাস, আন্তর্জাতিক সম্পাদক মো. মরন চাঁন, শিক্ষা ও পাঠাগার সম্পাদক আ. জাব্বার, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক মো. তোফাজ্জল হোসেন, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক ইব্রাহিম খলিল সোহাগ, সহ প্রচার সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, সহ-দফতর সম্পাদক মো.  ওয়াজিউল্লাহ, সহ মহিলা সম্পাদিকা রাজিয়া সুলতানা, আমেনা খাতুন, কার্যনির্বাহী সদস্য মো. শাহজাহান, মো. সৈয়দ মিয়া, মো. হুমায়ুন কবির, মো. কামরুল ইসলাম, মো. হাফিজুল্লাহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ