ঢাকা, শনিবার 14 January 2017, ১ মাঘ ১৪২৩, ১৫ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

রাজধানীতে স্ত্রীকে এসিড নিক্ষেপ করে পালিয়েছে স্বামী

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর তেজগাঁও থানাধীন ‘হোটেল ফার্মগেট’ থেকে শফিক আহম্মেদ চৌধুরী (৫০) নামে এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে হোটেলের ৭১০ নম্বর কক্ষের দরজা ভেঙে অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করা হয়। পরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। হোটেল সূত্র জানায়, নিহত ব্যক্তি তিন দিন আগে হোটেলে ওঠেন। তার ঠিকানা চট্টগ্রাম লালখান বাজার। গতকাল তার হোটেল ছেড়ে দেওয়ার কথা। সকালে তাকে ডাকা-ডাকি করে দরজা না খোলায় পুলিশে খবর দেই। পুলিশ এসে ওই কক্ষের দরজা ভেঙ্গে তাকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে। তেজগাঁও থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়া গেলে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।
শফিক আহম্মেদের লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।
এদিকে রাজধানীর পূর্ব নাখাল পাড়ায় এক গৃহবধূকে এসিড ছুঁড়ে পালিয়েছে তার স্বামী। এসিডে আকলিমা খাতুন (২৮) নামের ওই গৃহবধূর মুখ ও গলাসহ শরীরের ১৫ শতাংশ ঝলসে গেছে। গতকাল শুক্রবার বেলা ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে বলে পুলিশ জানিয়েছে। এসিডে ঝলসানো আকলিমাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। আকলিমা নরসিংদি জেলার রায়পুরা উপজেলার হোসেন মিয়ার মেয়ে। পুর্ব নাখাল পাড়ার একটি বাসায় আকলিমা, তার স্বামী আব্দুল কুদ্দুস, তিন ছেলে ও এক মেয়েকে নিয়ে ভাড়া থাকেন। আকলিমার বড় ভাই রমজান আলী জানান, দুই বছর আগে আব্দুল কুদ্দুস মালয়েশিয়া যায়। ছয় মাস আগে দেশে ফেরত আসে সে। দেশে আসার পর থেকে কুদ্দুস আকলিমাকে সন্দেহ করত। এটা নিয়ে মাঝে মধ্যেই তাদের মধ্যে ঝগড়া হতো। গতকাল দুপুরেও এটা নিয়ে তাদের ঝগড়া হয়। ঝগড়ার এক পর্যায়ে আকলিমার শরীরে এসিড ছুঁড়ে পালিয়ে যায় কুদ্দুস। পরে আকলিমাকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়।
বার্ন ইউনিটের আবাসিক চিকিৎসক ডা. পার্থ শংকর পাল জানান, এসিডে আকলিমার মুখ ও গলাসহ শরীরের ১৫ শতাংশ ঝলসে গেছে। তার আবস্থা গুরুতর। তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আ. রশিদ জানান, স্ত্রীকে এসিড মেরে পালানোর ঘটনায় স্বামী কুদ্দুসকে আটকের চেষ্টা চলছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ