ঢাকা, শনিবার 14 January 2017, ১ মাঘ ১৪২৩, ১৫ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

আদমদীঘিতে চাঁদা দাবি মারপিট লুটপাট অগ্নিসংযোগ অভিযোগ দায়ের

আদমদীঘি (বগুড়া) সংবাদদাতা : বগুড়ার আদমদীঘির কৈকুড়িতে গভীর নলকূপের ম্যানেজারের নিকট দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে না পেয়ে মারপিট, অগ্নিসংযোগ ও গভীর নলকূপের (ডিপ) মূল্যবান মালামাল লুটের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা সেচ কমিটি বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা ছাতিয়ানগ্রাম ইউপির কৈকুড়ি মাঠের গভীর নলকূপ (ডিপের) ম্যানেজার মাহবুবুল আলমের নিকট একই গ্রামের আব্দুস সবুর, সাহের আলী, ওহাব, জাহাঙ্গীর, সোলাইমান, আবু তালেব, তুষারসহ বেশ কয়েকজন মিলে দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। চাহিদা মত টাকা না দিলে তারা ডিপের সকল কার্যক্রম বন্ধ করারও হুমকি দেয়। ডিপ ম্যানেজার দাবিকৃত চাঁদা না দেওয়ায় তারা গত ২২ ডিসেম্বর রাতে গভীর নলকূপ (ডিপ) ঘরে গিয়ে ম্যানেজার মাহবুবুর আলমকে বেদম মারপিট করে হাত-পা বেঁধে রেখে ৭শ’ গজ তার, জাহাজের ৩৫হর্স মটর, মেইন সুইচ, স্টার্টার, বোর্ড সহ আরো অন্যান্য মালামাল লুট করে নিয়ে ডিপ ঘরে অগ্নিসংযোগ করে চলে যায়। এ ঘটনায় গভীর নলকূপ (ডিপ) ম্যানেজার উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা সেচ কমিটি বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। এদিকে গভীর নলকূপ (ডিপ) ম্যানেজার অভিযোগ করার প্রায় তিন সপ্তাহেও কোন সুরাহা না পাওয়ায় গত বৃহস্পতিবার থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।
কিশোর রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ
বগুড়ার আদমদীঘির ডহরপুর গ্রামের এমরান হোসেন (১৮) নামের এক কিশোর গত বুধবার সান্তাহার যাওয়ার পথে রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হয়েছে। এ ব্যাপারে তার বাবা থানায় জিডি করেন। সে স্বেচ্ছায় আত্মগোপন করেছে কিনা না এ নিয়ে চলছে জনমনে নানা গঞ্জন।
জানা যায়, আদমদীঘির সদর ইউনিয়নের ডহরপুর গ্রামের আব্দুল ফকিরের ছেলে এমরান হোসেন গত বুধবার উপজেলার সান্তাহার জংশন শহরে বেড়াতে যান। এরপর ওইদিন রাতে সান্তাহার জংশন স্টেশন থেকে এমরান তার বাবার মোবাইলে ফোন দিয়ে ভাল মন্দ খোঁজখবর  নেয়। তারপর থেকে তার মোবাইল ফোন বন্ধ। বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করার পরও তার কোন সন্ধান না পাওয়া অবশেষে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ