ঢাকা, বুধবার 18 January 2017, ৫ মাঘ ১৪২৩, ১৯ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মংলায় সেনা এলপিজি ব্যান্ড প্লান্টের গ্যাস ও সেনা সিমেন্ট মিলস্ উদ্বোধন

খুলনা অফিস: মংলা বন্দরের শিল্প এলাকায় সেনা এলপিজি ব্যান্ড প্লান্টের গ্যাসও সেনা সিমেন্ট মিলসের  উদ্বোধন করেছেন সেনাবাহিনী প্রধান এবং বোর্ড অব ট্রাস্টি সেনা কল্যাণ সংস্থার চেয়ারম্যান জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক। গত রোববার সকাল ১১ টায় বন্দর এলাকার সেনা কল্যাণ সংস্থার এলিফ্যান্ট ব্রান্ড সিমেন্ট, এসকেএস এলপিজি প্লান্টে এ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। মংলা সিমেন্ট ফ্যাক্টরীর অত্যাধুনিক ইউরোপিয়ান প্রযুক্তি নির্ভর নতুন তৃতীয় ইউনিটের অন্যতম প্রকল্প এটি।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে সেনা বাহিনীর প্রধান এ সংস্থার বহুবিধ কল্যাণ কার্যক্রম বৃদ্ধির লক্ষ্যে নতুন দু’টি ব্রান্ডের ব্যবসায়িক সফলতার জন্য সকলের সহযোগিতাসহ আগামী দিনের অগ্রযাত্রায় একযোগে আন্তরিক ভাবে কাজ করার উদাত্ত আহবান জানান। তিনি বলেন, উন্নতমানের সিমেন্ট উৎপাদনের পাশাপাশি দেশের জ্বালানী এলপিজি গ্যাস প্লান্ট স্থাপন এবং বাজারজাতের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। প্রথমবারের মতো এ প্লান্ট স্থাপনে জন্য ব্যয় করা হয়েছে একশ’ ৩০ কোটি টাকা বলে জানায় সেনা বাহিনীর কর্মকর্তারা।
সেনা কল্যাণ সংস্থার জেনারেল ম্যানেজার এডমিন মেজর অব. মিজানুর রহমান বলেন, নতুন এ দুইটি প্রতিষ্ঠানে প্রতি ঘন্টায় একশ’ ১০ মেট্রিক টন সিমেন্ট উৎপাদন করা হয়। পাশাপাশি, বছরে ৬ লাখ ৬০ হাজার ব্যাগ সিমেন্ট উৎপাদন করে থাকে সেনা কল্যান সংস্তার এ প্রতিষ্ঠান। আর গ্যাস প্লান্টে যে বোতল ব্যাবহার করা হবে সে গুলো থাইলান্ড থেকে আমদানীকৃত এবং আমেরিকান কারিগরীর উপর বৃত্তি করে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি দিয়ে নির্মাণ করা হয়েছে। চলতি বছরে পাঁচ লাখ বোতল বাজারে বাজারজাত করার পরিকল্পনা রয়েছে এবং ১২ কেজি ও ৩৫ কেজি’র বোতলে করে উৎপাদন করবে এ প্রতিষ্ঠানের। এছাড়াও প্রতি বছর ৩০ হাজার মেট্রিক টন তরল গ্যাস আমদানী করে বাজারজাত করতে পারবে সেনা কল্যাণ সংস্থা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সংস্থার চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল ফিরোজ হাসান বক্তব্য রাখেন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন- সেনা এলপিজি ও সেনা সিমেন্ট প্রকল্প পরিচালক কর্নেল মোহা. নুরুল ইসলাম।
অনুষ্ঠানে বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের পদস্থ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তা বৃন্দ এসময় উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া এলিফ্যান্ট ব্রান্ড, সেনা সিমেন্ট ও সেনা এলপিজির ডিলার এবং ব্যবসায়ীক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। পরে প্রধান অতিথি অনুষ্ঠানে এলপিজি প্লান্ট ও সেনা সিমেন্ট প্লান্টের ফলক উন্মোচন, প্লান্ট পরিদর্শন এবং পরিদর্শন বই স্বাক্ষর শেষে ফিতা কেটে দু’টি মিলের উদ্বোধন করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ