ঢাকা, রোববার 18 November 2018, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

নাইজেরিয়ার শরণার্থী শিবিরে বিমান হামলা, নিহত পঞ্চাশ

চিকিৎসকদের দাতব্য সংস্থা এমএসএফ হামলার পর ছবিটি প্রকাশ করে।

অনলাইন ডেস্ক: নাইজেরিয়ার একটি উদ্বাস্তু শিবিরে দেশটির সেনাবাহিনীর ভুল হামলায় কমপক্ষে পঞ্চাশজন নিহত হয়েছে, আহত হয়েছে আরো অন্তত একশো জন বেসামরিক নাগরিক।এই উদ্বাস্তুরা দেশটির জঙ্গি গোষ্ঠী বোকো হারামের হামলার ভয়ে পালিয়ে ঐ শিবিরে আশ্রয় নিয়েছিল।

ঘটনাটি ঘটেছে নাইজেরিয়া ও ক্যামেরুনের সীমান্তবর্তী অঞ্চলে।

সেখানে নাইজেরিয়ার সেনাবাহিনীর সাথে লড়াই চলছে জঙ্গি গোষ্ঠী বোকো হারামের।

বোকো হারামের হামলার ভয়ে পালিয়ে দেশটির বোর্নো প্রদেশের উত্তরপূর্বের শহর র‍্যন-এ ঐ শিবিরে আশ্রয় নিয়েছিলেন বহু মানুষ।

অন্যদিকে সরকারের কাছে তথ্য ছিলো ঐ এলাকায় জঙ্গিরা জড়ো হচ্ছে।

এমন গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে বিমান বাহিনীকে আক্রমণের নির্দেশ দেয়া হয়েছিলো।

সেনাবাহিনীর মুখপাত্র লাকি ইরাবো বলেছেন বোর্নো'র কোনো এক জায়গায় বোকো হারাম জঙ্গিরা জড়ো হচ্ছে বলে সকালে তার কাছে তথ্য আসে।

তিনি বিমান বাহিনীকে সমস্যার সমাধানের নির্দেশ দেন। তারা বিমান আক্রমণ চালায় কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত ভুল যায়গায় বিমান হামলা চালায়।

হতাহতের এই ঘটনায় শোক প্রকাশ করে সবাইকে শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট মুহাম্মাদু বুহারি।

আন্তর্জাতিক দাতব্য সংস্থা এমএসএফ বিপুল সংখ্যক হতাহতের বিষয় নিশ্চিত করেছে।

তারা পার্শ্ববর্তী দেশ থেকে তাদের অন্যান্য দলকে প্রস্তুত রেখেছে সহায়তা বাড়ানোর জন্যে।

অন্তত ছয়জন রেডক্রস কর্মী নিহতের খবর জানিয়েছে সংস্থাটির মুখপাত্র আলেক্সান্দর মাতিযেভিক।

তিনি বলেছেন, নিহত ছয়জন রেডক্রস সদস্য এবং আহত আরো ১৩ জন স্থানীয় র‍্যন শহরে এই সকালেই এসেছিলেন অন্তত ২৫ হাজার উদ্বাস্তুর খাবারের সংস্থান করতে।

এই খাবার অন্তত পাঁচ সপ্তাহের জন্যে তাদের প্রয়োজন মেটাত।

এই মুহুর্তে অন্যান্য ত্রাণ সংস্থার সহায়তায় জরুরি চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করার চেষ্টা চলছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

ওদিকে দেশটির সেনাবাহিনী দুঃখ প্রকাশ করে বলেছে, ভুল বশত হামলায় বেসামরিক জনগণের এতটা ক্ষতি এর আগে কখনো হয়নি।

দেশটির সরকারের মুখপাত্র জানিয়েছে সেখানকার প্রশাসন বোর্নো প্রদেশে সবধরনের সহায়তা অব্যাহত রাখবে।-বিবিসি বাংলা

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ