ঢাকা, মঙ্গলবার 24 January 2017, ১১ মাঘ ১৪২৩, ২৫ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মুরাদনগরে তথ্য গোপন করে ক্যাবল টিভির নেটওয়ার্কের লাইসেন্স নেয়ার পাঁয়তারা

মুরাদনগর (কুমিল্লা) সংবাদদাতা : কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানাধীন শ্রীকাইল ইউনিয়নে বৈধ ক্যাবল টেলিভিশন নেটওয়ার্ক থাকা সত্বেও প্রকৃত তথ্য গোপন করে ‘ফ্রেন্ডস ক্যাবল নেটওয়ার্ক’ নামে এক প্রতিষ্ঠান নতুন করে বিটিভি থেকে ক্যাবল টেলিভিশন নেটওয়ার্কের লাইসেন্স করার পাঁয়তারা চালিয়ে যাচ্ছে। একই সাথে অবৈধ ভাবে হুন্ডির মাধ্যমে ভারতে টাকা পাঠিয়ে বিদেশী পে-চ্যানেল গ্রহণ করে সরকারকে লাখ লাখ টাকা রাজস্ব ফাঁকি দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিষয়টি নিয়ে বৈধ ক্যাবল টেলিভিশন নেটওয়ার্ক গ্রাহকদের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।
জানা যায়, শ্রীকাইল ইউনিয়নের শাহগদা গ্রামের শিশু মিয়ার ছেলে সাইদুল হাসান সৌরভ গং দীর্ঘ ১০/১১ বছর যাবত অবৈধ ভাবে সরকারকে লাখ লাখ টাকা রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে হুন্ডির মাধ্যমে ভারতে টাকা পাঠিয়ে বিদেশী পে-চ্যানেল গ্রহণ করে ক্যাবল টি.ভি নেটওয়ার্কের ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে। বিষয়টি জানাজানি হলে বিগত ১০/১১ বছর যাবত অবৈধ ভাবে ব্যবসা করার বিষয়টি গোপন রেখে বিগত ১৩/১১/২০১৬ইং সালে ক্যাবল টেলিভিশন নেটওয়ার্কের লাইসেন্স পাওয়ার জন্য ০১/০১/২০১৭ইং থেকে ব্যবসা শুরুর তারিখ দেখিয়ে বিটিভির নিকট আবেদন করে। উক্ত  শ্রীকাইল ইউনিয়নের ২৪টি গ্রামের মধ্যে ২৩টি গ্রামেই ফিড অপারেটর হিসাবে হক ইঞ্জিনিয়ার্স বিল্ডিং কনস্টাকশন এন্ড কনসালটেন্ট নামীয় প্রতিষ্ঠানের ক্যাবল টি.ভি নেটওয়ার্ক সংযোগ দিয়ে সম্পূর্ণ বৈধ ভাবে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে বলে জানা গেছে।
নতুন করে কাউকে  লাইসেন্স প্রদান করলে উক্ত এলাকায়  আইন-শৃঙ্খলার অবনতি হতে পারে বলে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম বাঙ্গরা বাজার থানার ওসি’র নিকট আবেদনসহ একটি প্রত্যায়নপত্র প্রদান করেন। তারপরও ‘ফ্রেন্ডস ক্যাবল নেটওয়ার্ক’ অবৈধ পন্থা অবলম্বণের মাধ্যমে বিটিভি থেকে ক্যাবল টি.ভি নেটওয়ার্কের লাইসেন্স নেওয়ার পাঁয়তারা চালিয়ে যাচ্ছে।
এ দিকে ‘ফ্রেন্ডস ক্যাবল নেটওয়ার্ক’কে নতুন ক্যাবল টেলিভিশন নেটওয়ার্কের লাইসেন্স ইস্যু না করার জন্য বৈধ ক্যাবল টেলিভিশন নেটওয়ার্ক হক ইঞ্জিনিয়ার্স বিল্ডিং কনস্টাকশন এন্ড কনসালটেন্টের প্রোপাইটর মো: ওবায়দুল হক বিটিভি কর্তৃপক্ষ ও ইউএনও মুরাদনগরের নিকট লিখিত আবেদনসহ বাঙ্গরা বাজার থানায় একটি জিডি করেন (যার নং ৫১২/১৭)। অপরদিকে, শ্রীকাইল ইউনিয়নে ‘ফ্রেন্ডস ক্যাবল নেটওয়ার্ক’ ও বাঙ্গরা পূর্ব ও পশ্চিম ইউনিয়নে ‘বাঙ্গরা ক্যাবল নেটওয়ার্ক’ নামে দু’টি প্রতিষ্ঠান সরকারের রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে অবৈধ ভাবে বিদেশী পে-চ্যানেল প্রদর্শণ করার অভিযোগে ডিজি জাদু ব্রডব্যান্ট লি:’র জি.এম নাজমুল হক গত ১২ জানুয়ারি বাঙ্গরা বাজার থানায় একটি জিডি করেন (যার নং ৪২১/১৭)। থানার ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন বিষয়টির ব্যাপারে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে গত ১৭ জানুয়ারি থানায় হাজির হওয়ার নোটিশ প্রদান করলেও অবৈধ ভাবে ক্যাবল টেলিভিশন নেটওয়ার্ক পরিচালনাকারী কর্তৃপক্ষ ‘ফ্রেন্ডস ক্যাবল নেটওয়ার্ক ও বাঙ্গরা ক্যাবল নেটওয়ার্ক’ কোন প্রকার কর্ণপাত করেনি।
এ ব্যাপারে ‘ফ্রেন্ডস ক্যাবল নেটওয়ার্ক’ এর পরিচালক সাইদুল হাসান সৌরভ ও ‘বাঙ্গরা ক্যাবল নেটওয়ার্ক’ এর পরিচালক আব্দুর রহিম মিয়ার সাথে যোগাযোগ করা হলে তারা সম্পূর্ণ বৈধ ভাবে ক্যাবল টেলিভিশন নেটওয়ার্কের লাইসেন্স করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ