ঢাকা, মঙ্গলবার 24 January 2017, ১১ মাঘ ১৪২৩, ২৫ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুরের স্মৃতি সংরক্ষণে হাইকোর্টের রুল

স্টাফ রিপোর্টার : বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান স্মৃতি ভবন কেন যথাযথ প্রক্রিয়ায় সংরক্ষণ ও সংস্কার করা হবে না- তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে ওই ভবন বর্তমান কী অবস্থায় আছে এবং সংরক্ষণে কী ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে- আগামী ২৩ মার্চের মধ্যে প্রতিবেদন আকারে তা জানাতে বলা হয়েছে।
এক রিট আবেদনের শুনানি শেষে গতকাল সোমবার বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহ সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ এ আদেশ দেন।
আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী এবিএম আলতাফ হোসেন এবং তাকে সহযোগিতা করেন কামরুজ্জামান কাকন ও ইমতিয়াজ আহমেদ। অপরদিকে সরকার পক্ষে ছিলেন ডেপুটি এটর্নি জেনারেল তাপস কুমার বিশ্বাস।
আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সচিব, গৃহায়ন ও গণপূর্ত সচিব, প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের মহাপরিচালক, ঝিনাইদহ জেলা প্রশাসক, নির্বাহী প্রকৌশলী, মহেশপুর থানা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ (ইউএনও) ছয়জনকে এই রুলের জবাব দিতে বলেছেন।
গত ১৯ জানুয়ারি একটি ইংরেজী দৈনিকে ভবনটি নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। ওই প্রতিবেদন সংযুক্ত করে মানবাধিকার সংগঠন ‘সমাজের প্রতি যুবর উদ্যোগ’ এর পক্ষে সংগঠনটির সভাপতি ইমতিয়াজ আহমেদ রিট দায়ের করেন।
আইনজীবী এবিএম আলতাফ হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমানসহ যারা জাতির জন্য আত্ম বলিদান দিয়েছেন তাদের স্মৃতি যদি যথাযথভাবে সংরক্ষণ করা না হয় তাহলে ভবিষ্যৎ প্রজন্ম মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ভুলে যাবে। স্বাধীনতার প্রকৃত ইতিহাস পরবর্তী প্রজন্মকে জানাতে বীরশ্রেষ্ঠদের স্মৃতি সংরক্ষণ করা উচিত। বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমানের স্মৃতি রক্ষার্থে ১৯৮১ সালে এই মেমোরিয়াল ভবন নির্মাণ করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ