ঢাকা, মঙ্গলবার 24 January 2017, ১১ মাঘ ১৪২৩, ২৫ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

ইবিতে আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় বিতর্ক প্রতিযোগিতা শুরু

ইবি সংবাদদাতা : বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদের উদ্যোগে ও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আয়োজনে দুই দিনব্যাপী আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় বিতর্ক প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয় বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনে এ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করা হয়। আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় বিতর্ক প্রতিযোগিতা আয়োজন কমিটির আহবায়ক ও মডারেটর প্রফেসর ড. মোঃ মামুনুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভিসি প্রফেসর ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. মোঃ শাহিনুর রহমান ও ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ সেলিম তোহা। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন ডিবেটিং সোসাইটির সহ-সভাপতি আরিফুল ইসলাম।
ইংরেজি ও বাংলা মাধ্যমের এ বিতর্ক প্রতিযোগিতায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু মেরি টাইম বিশ্ববিদ্যালয়, শাহ্জালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, পাবনা বিশ্ববিদ্যালয়, কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিযোগীরা অংশ গ্রহণ করছে। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের ৮টি ভ্যেনুতে এ প্রতিযোগিতা চলে। আজ মঙ্গলবার চুড়ান্ত প্রতিযোগিতা ও সমাপনী অনুষ্ঠিত হবে।
ভিসি প্রফেসর ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী বলেছেন, ‘বিতর্ক বাঙালির ব্যক্তিগত, পারিবারিক, সামাজিক এবং রাষ্ট্রীয় জীবনের সাথে ওতোপ্রোতভাবে জড়িত। বাংলাদেশকে বিশ্বের দরবারে একটি অর্থনৈতিক সমৃদ্ধশালী জাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠার এই অভিযাত্রার পুরোটাতেই কাজ করেছে আমাদের শাণিত যুক্তি এবং বুদ্ধি।
প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. মোঃ শাহিনুর রহমান বলেন, ‘বির্তকের মূল অর্থ হলো যে, কোনটি সত্য, কোনটি যৌক্তিক, কোনটি গ্রহণ করা যাবে- সেটিকে বের করে নিয়ে আসা। বিতর্ক মানুষকে যৌক্তিক করে, বিতর্ক মানুষকে শাণিত করে, বিজ্ঞানমনষ্ক করে, অসাম্প্রদায়িক করে। তিনি বলেন, বিতর্ক একজন মানুষকে যোগ্য করে তোলে কারণ একজন বিতার্কিক কখনো নেতিবাচক জিনিসকে গ্রহণ করে না। বিতর্ক আমাদের সামাজিক, রাজনৈতিক এবং প্রাতিষ্ঠানিক জীবনে অত্যন্ত জরুরী।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ