ঢাকা, বুধবার 25 January 2017, ১২ মাঘ ১৪২৩, ২৬ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

লালমনিরহাটে নিয়োগ বাণিজ্যকে কেন্দ্র করে সংর্ঘষ প্রধান শিক্ষকসহ আহত ৭

লালমনিরহাট সংবাদদাতা : মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে হরিদেব দয়েজ উদ্দিন বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে প্রধান শিক্ষক শ্রী মনোরঞ্জন রায় সহ ৭ জন আহত হয়েছে। স্থানীয়রা আহতদেরকে উদ্ধার করে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছেন। জানা গেছে লালমনিরহাট সদর উপজেলার হরিদেব দয়েজ উদ্দিন বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মনোরঞ্জন রায় কম্পিউটার ডেমোনেষ্টেটর পদে শিরিনা বেগমকে নিয়োগ দেয়ার নামে ৫ লক্ষ টাকা বিদ্যালয়ের উন্নয়নের জন্য অনুদান হিসেবে গ্রহন করে, একই পদে স্থানীয় মাহবুবুর রহমান সরকার নামের আর ১ প্রার্থীকে নিয়োগ দেয়ার পাঁয়তারা করায় ওই দিন শিরিনা বেগমের দেবর আরিফুল (১৮), ইকবাল (২৪) ও ইমান (৩০) সহ ৫/৬ জন যুবক বিদ্যালয় চলাকালীন ওই শিক্ষক কে ব্যাপক মারধর করেন। এসময় ছাত্র/ছাত্রীরা এগিয়ে আসলে তাদের হামলায় ৬ জন ছাত্র আহত হয়েছে। আহতরা হলো প্রধান শিক্ষক মনোরঞ্জন রায়, ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্র আকরাম হোসেন, ১০ শ্রেণীর আতিকুল ইসলাম, মাহবুবুর রহমান, শরিফুল ইসলাম, ৮ম শ্রেণীর নিশাত আমিন ও ৭ শ্রেণীর নাহিদ হোসেন। ঘটনার পর পরেই বিদ্যালয়ের ছাত্র/ছাত্রীরা হামলাকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল বেড় করেন। অপরদিকে শিরিনা বেগমের বাড়ীতেও ভাংচুর চালায় ওই বিক্ষুব্ধ ছাত্ররা। খবর পেয়ে লালমনিরহাট সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। প্রধান শিক্ষক মনোরঞ্জন রায় সাংবাদিকদের নিকট নিয়োগ বাণিজ্যের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন ওই পদে ১২টি আবেদন পত্র জমা হয়েছে। যার নিয়োগ পরীক্ষা ২/৩ দিনের মধ্যে হওয়ার কথা ছিল। অপরদিকে চাকুরী প্রার্থী শিরিনা বেগম জানান, আমাকে নিয়োগ দেয়ার নামে প্রায় ১ বছর থেকে কালক্ষেপণ করে আসছেন। তিনি ওই শিক্ষকের দুর্নীতির সুষ্ঠু বিচার দাবি করেছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ