ঢাকা, বুধবার 25 January 2017, ১২ মাঘ ১৪২৩, ২৬ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

ভারত টেস্টে ভেন্যু বদলে আপত্তি নেই বিসিবির

স্পোর্টস রিপোর্টার : ভারতের মাটিতে বাংলাদেশের একমাত্র টেস্টটি হওয়ার কথা হায়দরাবাদে। তবে এটায় পরিবর্তন আসতে পারে। অন্য কোন ভেন্যুতেও হতে পারে এই আলোচিত টেস্টটি। ভেন্যুর পরিবর্তন আসলে তাতে কোনো আপত্তি নেই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের। তবে ৯ ফেব্রুয়ারিতেই যে এই ম্যাচ শুরু হবে তাতে কোনো সংশয় নেই দেশের ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটির। গতকাল বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন এমনটাই জানান। পাপন বলেন, ‘ভারত সফর হচ্ছে এতে কোনো সন্দেহ নেই। ছেলেরা একটি প্রস্ততি ম্যাচও খেলবে, সেটাও ঠিক আছে। ভেন্যুর পরিবর্তন নিয়ে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড এখনও আমাদের কিছু জানায়নি। যদি ওরা ভেন্যুতে কোনো পরিবর্তন আনে তাতে আমাদের কোনো আপত্তি নেই।’ টেস্টটি হওয়ার কথা হায়দরাবাদের রাজিব গান্ধি ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। সেখানেই অন্য একটি ভেন্যুতে ভারত ‘এ’ দলের বিপক্ষে তিন দিনের একটি প্রস্তুতি ম্যাচে খেলার কথা বাংলাদেশের। এর আগে ভারতের দৈনিক দ্য হিন্দুর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, আর্থিক কারণে বাংলাদেশ টেস্ট আয়োজনে অপরাগতা জানিয়েছে হায়দরাবাদ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন (এইচসিএ)। পরদিন খবরটি গুজব বলে উড়িয়ে দেন এইচসিএ সচিব কে জন মনোজ। এই টেস্ট ম্যাচটির আগে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে আগ্রহ জানিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। আর এই প্রস্তুতি ম্যাচের বিষয়ে সম্মতি জানিয়েছে হায়দরাবাদ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনও। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সদ্য সমাপ্ত সফরে ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটেই হোয়াইটওয়াশ হয়েছে বাংলাদেশ দল। তাই ভারতের বিপক্ষে টেস্ট ম্যাচটি খেলার আগে নিজেদের একটু ঝালিযে নিতেই প্রস্তুতি ম্যাচে আগ্রহ দেখিয়েছে বোর্ড। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর জানাচ্ছে, এই প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে সম্ভাব্য দল হতে পারে হায়দরাবাদ রঞ্জি দল। তবে তা এখনো চূড়ান্ত করা হয়নি। হায়দরাবাদ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কে জন মনোজ জানান, বাংলাদেশ এখানে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে চায়। আশা করছি বিসিসিআই সেটার ব্যবস্থা করবে। বুধবার বিসিসিআইয়ের রত্নাকর শেঠির সঙ্গে আলোচনায় আমরা দল চূড়ান্ত করব। বিসিসিআই যদি এতে সম্মতি দেয়, তবে দারুণ কিছুই হবে। মনোজ আরও বলেন, 'আনন্দের সঙ্গেই জানাচ্ছি, রত্নাকর শেঠির সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। বিসিসিআই ঐতিহাসিক টেস্টটি আয়োজনের জন্য সর্বাত্মক সহযোগিতা করছে। টেস্টের পূর্বে বাংলাদেশ একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে। তা কোন দলের বিপক্ষে হবে সিদ্ধান্তে আসার একটি ব্যাপার ছিল। দলটি যেনো হায়দ্রাবাদ রঞ্জি দল হয় সেই ব্যাপারে বোর্ডেন সঙ্গে আমাদের কথা চলছে।’ অবশ্য এ বিষয়ে এখনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসেনি। হায়দ্রাবাদ রঞ্জি দলকে প্রস্তুতির ম্যাচের জন্য নির্বাচন করতে প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। এখন শুধু বোর্ডে অনুমোদনের অপেক্ষা। আগামী ৩ ফেব্রুয়ারি এই প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার আগ্রহ জানিয়েছে বাংলাদেশ। আর আগামী ৯ জানুয়ারি বাংলাদেশ দল মুখোমুখি হবে বিরাট কোহলির দলের। ম্যাচটি হায়দরাবাদের রাজীব গান্ধি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ