ঢাকা, বুধবার 25 January 2017, ১২ মাঘ ১৪২৩, ২৬ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

ঝালকাঠি ফায়ার স্টেশন ও আখড়া বাড়ির পিছনে জলাবদ্ধতায় দুর্গন্ধ ॥ শতাধিক পরিবারের ভোগান্তি

মোঃ আতিকুর রহমান, ঝালকাঠি: ঝালকাঠি শহরের ফায়ারসার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স কার্যালয় এবং মদন মোহন আখড়া বাড়ির পিছনে, পুরাতন গোরস্থান সংলগ্ন কারাগার সড়কের পশ্চিম পাশে শীত মৌসুমেও রয়েছে জলাবদ্ধতা। এতে তীব্র দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে প্রতিনিয়ত। শ্বাসকষ্ট ও পানিবাহিত রোগসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হচ্ছে শতাধিক পরিবারের বাসিন্দারা। বিশেষ করে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে শিশু ও বৃদ্ধরা। এমনকি পানিবাহিত রোগে আক্রান্ত হয়ে গত বর্ষা মওসুমে এক বৃদ্ধ মারাও গেছেন। জলাবদ্ধতার কারণে শতাধিক পরিবার মানবেতর জীবনযাপন করছে।
বাসিন্দা বৃদ্ধা মীরা দাস জানান, এখন শীত মৌসুম তারপরেও পিছনের জলাবদ্ধতার পানি ঘরের মধ্যে উঠে। সে কি দুর্গন্ধ। বাধ্য হয়ে সিমেন্ট দিয়ে বাঁধ তৈরী করে পানি আটকিয়ে রেখেছি। গত বর্ষা মৌসুমে ঘরের মধ্যে পানি উঠে থাকায় আলমারি, খাট, সোফা সব নষ্ট হয়ে গেছে। ঘরের মধ্যেও ইট বিছিয়ে চলাচল করতে হয়েছে। বর্ষার ৩ মাসে আমাদের পায়ে ঘা হয়ে গিয়েছিলো। আমার স্বামী সত্যব্রত দাস ঠান্ডাজনিত কারণে দূরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত হয়ে গত বছরের ২৭ আগস্ট মারা যান। জলাবদ্ধতা দূরীকরণে পৌরসভায় একাধিকবার যোগাযোগ করা হয়েছে।
ভুক্তভোগী বাসিন্দা শাহী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুরুন্নাহার বলেন, শীতমৌসুমেও বাসার সামনে জলাবদ্ধতা রয়েছে। পৌর মেয়রকে জলাবদ্ধতার বিষয়টি অবহিত করা হয়েছে।
ভুক্তভোগী বাসিন্দা অ্যাডভোকেট এমএ জলিল জানান, আমাদের বাসার সামনে জলাবদ্ধতার কারণে প্রণ্ড দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। বাসায় থাকা দায় হয়ে পড়েছে। পৌর মেয়র লিয়াকত আলী তালুকদার বলেন, ওখানের জলাবদ্ধতার বিষয়টি আমার নলেজে আছে। ভুক্তভোগীরা আমাকে জানিয়েছে। দ্রুত পয়:নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করতে কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ