ঢাকা, বৃহস্পতিবার 26 January 2017, ১৩ মাঘ ১৪২৩, ২৭ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

রাণীনগরে ফসলী জমিতে পুকুর খনন ॥ কৃষি উৎপাদন ব্যাহত

রাণীনগর (নওগাঁ) সংবাদদাতা: নওগাঁর রাণীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশকে অমান্য করে বে-পরোয়া ভাবে চলছে ফসলী জমিতে পুকুর খনন। বিভিন্ন এলাকা থেকে এসে অসাধু মাছ চাষীরা  স্থানীয় কৃষকদের ধানী জমি লীজ নিয়ে ফসলী জমিতে পুকুর তৈরির লক্ষ্যে স্ক্যাভেটর মেশিন দিয়ে খননের  মহোৎসব চালাচ্ছে। এ ব্যাপারে স্থানীয়রা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট লিখিত অভিযোগ করেও কোন প্রতিকার মিলছে না।
জানা গেছে, উপজেলার ৮টি ইউনিয়নে নদী-নালা খাল-বিল বাদে প্রায় সাড়ে ২১ হাজার হেক্টর ফসলী জমি রয়েছে। শ্রেণী ভেদে প্রায় সকল জমিতেই সারা বছর কোন না কোন ধরনের ফসলের আবাদ হয়। এক শ্রেণীর কৃষকরা পুকুর ব্যবসায়ী ও ইট ভাটা মালিকদের লোভনীয় অফারের ফাঁদে পড়ে প্রতি বিঘা জমি বছরে ১২ হাজার টাকা দরে ১০ বছরের জন্য লীজ প্রক্রিয়া চুক্তিনামা করে চাষযোগ্য ফসলী জমিতে বড় বড় পুকুর খনন করছে। আর পুকুর খননের মাটি প্রতি গাড়ি (ট্রাক্টর) ছয়শত থেকে সাতশত টাকায় ইট ভাটায় বিক্রয় করছে পুকুর ব্যবসায়ীরা। জমিগুলো দেখে মনে হচ্ছে এযেন উন্মুক্ত জলাশয়। ভূমি আইনের নিয়ম-নীতি উপেক্ষা করে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কোনরূপ অনুমোদন ছাড়াই আবাদী কৃষি জমিতে অবাদে চলছে পুকুর খনন। এক দিকে ব্যক্তি মালিকানা জমি লিজ নিয়ে চলছে পুকুর খনন অন্য দিকে রেহায় পাচ্ছে না খাস জমিও। এতে করে দিনদিন কমে যাচ্ছে ফসলী জমি। কৃষি অফিসের তথ্য মতে শুধু চলতি মৌসুমেই প্রায় পাঁচশত হেক্টর জমিতে বোরো চাষ কম হওয়ার আশংকা রয়েছে।
উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) লিলুফা ইয়াসমিন জানান, লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পর মিরাট ইউপি’র ভূমি কর্মকর্তাকে তদন্ত স্বাপেক্ষে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যেই জমির কিছু মালিকরা জমির শ্রেণী পরিবর্তনের জন্য জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত আবেদন করেছেন। সেগুলোও তদন্তের জন্য জেলা প্রশাসন কার্যালয় থেকে আমার দপ্তরে দেওয়া হয়েছে। খুব শীঘ্রই তদন্ত শেষে জরিতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোনিয়া বিনতে তাবিব জানান, কোনরূপ অনুমতি ছাড়াই কিছু লোকজন সেখানে পুকুর খনন করছে এমন অভিযোগ পাওয়ার পরে সেখানে গিয়ে তাদেরকে পুকুর খননের কাজ বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছি । এর পরেও যদি তারা কাজ অব্যাহ রাখে তাহলে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ