ঢাকা, বৃহস্পতিবার 26 January 2017, ১৩ মাঘ ১৪২৩, ২৭ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মান্দায় আদালতে মামলা করায় বাদীর বাড়ি ঘরে হামলা

মান্দা (নওগাঁ) সংবাদদাতা : নওগাঁর মান্দায় আদালতে মামলা করায় বাদী বিপাকে পড়েছেন। মামলা তুলে না নেওয়ায় আসামীরা ক্ষিপ্ত হয়ে রান্নাঘর ভাংচুর করে ২টি চুলা মাটির সাথে গুড়িয়ে দিয়েছে। বাদী ও তার মা আয়েশা বেগম (৬৫) কে জিম্মি করে রেখেছে। ঘটনাটি গতকাল সকালে উপজেলার প্রসাদপুর ইউপি’র প্রসাদপুর গ্রামে ঘটেছে। ঘটনাটি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে। ঘটনায় হারুন আল রশীদ হীরা ১০জনের নাম উল্লেখ করে মান্দা থানায় একটি লিখিত এজাহার দাখিল করেছেন। উপ-পরিদর্শক আলমগীর হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। কিন্তু মামলা নথিভুক্ত না হওয়ায় পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। বর্তমানে বাদী বিচারের আশায় দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন।
মান্দা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক হারুন আল রশীদ হীরা জানান, ঘটনার দিন শনিবার সকালে সন্ত্রাসী আফছার, আবদুস সালাম, আবদুল মতিন.নাদিম অন্যান্য আসামীদের প্ররোচণায় ও সহযোগিতায় রান্না ঘরের টিনের ছাউনী খুলে ফেলে ২টি চুলা ভেঙ্গে মাটির সাথে গুড়িয়ে দেয়। পরে আসামীরা বাদীর অংশের মধ্যে বসবাসরত মা আয়েশা বেগমের ঘরে প্রবেশ করে তান্ডবলীলা চালিয়ে ২টি চাল ভর্তি ডাম, কাচা তরিতরকারি, হাড়ি.পাতিল, থালা বাসনসহ অন্যান্য জিনিসপত্র সন্ত্রাসী কায়দায় লুট করে নিয়ে যায় এবং তছনছ করে । বাড়ি ফিরলে মারপিট করে খুন-জখমের হুমকী দেয়। গত ১৯/০১/২০১৭ তারিখে আসামীরা আদালতে উপস্থিত না হয়ে উল্টো মামলা তুলে নিতে নানা রকম হুমকী-ধামকী দিচ্ছে। ব্যর্থ হয়ে মামলা তুলে নিতে বাদী হীরাকে ও তার মা আয়েশা বেগমকে জিম্মি করে ভয়-ভীতি দেখিয়ে মামলা তুলে নিতে বেআইনীভাবে প্রবল চাপ অব্যহত রেখেছে। মামলা তুলে নিতে মা আয়েশা বেগমকে বাড়ি থেকে বের হতে না দিয়ে জিম্মি করে আঁটকিয়ে রেখে দাবি আদায়ের জঘন্য পথ বেছে নিচ্ছে বলে  বাদী হীরা জানান।
মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনিছুর রহমান জানান, ঘটনায় সাংবাদিক হারুন আল রশীদ হীরার লিখিত এজাহার পেয়ে তদন্তের জন্য উপ-পরিদর্শক আলমগীর হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ