ঢাকা, রোববার 29 January 2017, ১৬ মাঘ ১৪২৩, ৩০ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

ডুমুরিয়ায় আধুনিক পদ্ধতিতে সৌদি খেজুর পাহাড়ী বাদাম ও তাল চাষের উদ্যোগ

খুলনা অফিস : খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলায় সৌদি খেজুর, পাহাড়ী বনজ বাদাম ও কাটিং পদ্ধতিতে তালের চারা উৎপাদন করে বনায়নের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে উপজেলা সামাজিক বন বিভাগ।
ইতোমধ্যে রোপিত চারাগাছগুলো বেশ বড় হয়ে উঠছে এবং গাছগুলো যথাযথ সময়ে ফল দেবে বলে ধারণা করছে সামাজিক বন বিভাগ। তবে সৌদি খেজুর চাষে ডুমুরিয়ার মাটি ও আবহাওয়া উপযোগী নয় বলে মন্তব্য করেছেন উপজেলা কৃষি অধিদপ্তর। তার পরও শতভাগ আশা নিয়ে চারা গাছগুলো পরিচর্যা করে যাচ্ছে বনবিভাগ।
সরেজমিনে দেখা যায়, উপজেলা সামাজিক বনায়নে শতাধিক সৌদি খেজুরের বীজ থেকে চারা উৎপাদন করা হয়েছে। যা দিনে দিনে বেশ বেড়ে উঠছে। পাহাড়ী বনজ বাদামের বীজ সংগ্রহ করে সেগুলোও চারা উৎপাদনের প্রক্রিয়া চলছে। এ ছাড়া ৯ মাসের ব্যবধান কমিয়ে মাত্র ৪ মাসে কাটিং পদ্বতিতে ২২১টি তালের চারা উৎপাদন করে তা রোপণ করা হয়েছে।
উপজেলা ফরেস্টার মো. ফোরকানুল আলম জানান, গত রমজার মাসে সৌদি খেজুর খেয়ে তার বীজ সংগ্রহ করা হয়। এরপর যথা সময়ে বীজ বপন করা হয়। যা আশানুপাতে দিনে দিনে বৃদ্ধি লাভ করছে। গাছগুলো যথা সময়ে ফল দিবে বলে তার বিশ্বাস। পাহাড়ী বনজ বাদাম বিষয়ে তিনি জানান প্রায় ১২০টি চারাগাছ উৎপাদনের প্রক্রিয়া চলছে। এ গাছগুলো বেশ বড় আকৃতির গাছ হয়ে থাকে। যার প্রতিটি ডালে ডালে বড় বড় ফল ধরে। ফলগুলো প্রটিন সমৃদ্ধ, সুস্বাদু ও তৈল উৎপাদনে বিশেষ ভূমিকা রাখতে পারে। কাটিং পদ্ধতিতে তালের চারা উৎপাদন বিষয়ে তিনি বলেন সাধারণত একটি তালের বীজ থেকে চারা অঙ্কুুরিত হতে প্রায় ৯ মাস সময় লাগে। এ পদ্বতিতে মাত্র চার মাসে চারা উৎপাদন করে তা বিভিন্ন বনায়নে রোপণ করা হয়েছে। গাছগুলো দ্রুত বৃদ্ধি ও বিস্তার লাভ করছে। তাল গাছ বজ্র নিরোধ, মাটির ক্ষয় রোধ, কাঠ, ফল ও পাতা দিয়ে আমাদের অনেক উপকারে আসে। বর্তমানে দেশে প্রতি বছর বজ্রপাতে অনেক মানুষের মৃত্যু হচ্ছে। প্রচুর পরিমাণ তাল গাছ চাষাবাদে এর প্রতিরোধ অনেকটা কমানো সম্ভব বলে তিনি জানান। কাটিং পদ্বতিতে পলিপ্যাকে চারা উৎপাদন করে অল্প সময়ে এর চাষাবাদ সম্ভব উল্লেখ করে তিনি তাল চাষে সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।  এ ব্যাপারে ডুমুরিয়া উপজেলা কৃষি অফিসার মো. নজরুল ইসলাম জানান, সৌদি খেজুর চাষে ডুমুরিয়ার মাটি ও আবহাওয়া উপযোগী নয়। তবে এগুলো বালু এলাকায় চাষাবাদ করতে পারলে হয়তো সফলতা অর্জন হতে পারে। পাহাড়ী বনজ বাদাম ও কাটিং পদ্ধতিতে তাল চাষ বিষয়ে তিনিও এর উপকারিতার বিভিন্ন দিক তুলে ধরে এর চাষাবাদে সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ