ঢাকা, শুক্রবার 3 February 2017, ২১ মাঘ ১৪২৩, ৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

ফিটনেস ক্যাম্পে আজ যোগ দিচ্ছেন ২৯ ফুটবলার

স্পোর্টস রিপোর্টার : শক্তিশালী জাতীয় দল গঠনের লক্ষ্যে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) আয়োজিত কন্ডিশনিং ক্যাম্পের প্রথম গ্রুপের অনুশীলন শেষ হয়েছে। বিকেএসপিতে সিনিয়র ফুটবলারদের নিয়ে ১২ দিনব্যাপী ফিটনেস ক্যাম্পটি গতকাল বৃহস্পতিবার শেষ হয়। ফুটবলারদের ভালভাবে পরক্ষ করতে দুই ভাগে আয়োজিত ফিটনেস ক্যাম্পের দ্বিতীয় গ্রুপের অনুশীলন শুরু হচ্ছে আজ শুক্রবার। দুপুরে বিকেএসপিতে রিপোর্ট করবেন ২৯ জন ফুটবলার। আগামী ১২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত দ্বিতীয় ভাগের ক্যাম্প চলবে। চট্টগ্রামে অনুষ্টেয় শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপের জন্য মাঝে কিছুদিন ক্যাম্প বিরতি থাকবে। কারণ ফিটনেস ক্যাম্পে ফুটবলারদের অনেকেই ওই টুর্নামেন্ট খেলবেন মোহামেডান, আবাহনী ও চট্টগ্রাম আবাহনীর হয়ে। আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে আন্তর্জাতিক এই টুর্নামেন্ট শুরু হবে। প্রথম ভাগে ক্যাম্পে ৩৩ জন ফুটবলারকে ডাকা হলেও ক্যাম্পে যোগ দিয়েছিলেন ৩০ জন। অসুস্থতার কারণে নাবীব নেওয়াজ জীবন ও আতিকুর রহমান ফাহাদ যোগ দিতে পারেননি। জামাল ভুঁইয়া ডেনমার্কে থাকায় আসতে পারেননি। ফলে প্রথম ভাগে ৩০ ফুটবলারকেই প্রয়োজনীয় দিক্ষা দিলেন নতুন ফিটনেস কোচ জন হুইটেল। তার সাথে স্থানীয় কোচ হিসেবে কাজ করছেন সৈয়দ জিলানি। 

আজ দ্বিতীয় পর্বের অনুশীলনের জন্য ডাক পেয়েছেন ২৯ ফুটবলার। এই গ্রুপে অধিকাংশই জুনিয়র ফুটবলার। আগামী মার্চে ঢাকায় বসতে যাচ্ছে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ আন্তর্জাতিক ফুটবলের আসর। এই টুর্নামেন্টে দুটি দল রাখতে চাচ্ছে বাফুফে। জাতীয় দলের পাশাপাশি অনুর্ধ্ব - ২৩ দলকে খেলানোর পরিকল্পনা নিয়েই প্রশিক্ষন শুরু করেছে বাফুফে। বঙ্গবন্ধু কাপে এই দু‘দলের পারফরমেন্স দেখেই মূলত ডিসেম্বরের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের প্রস্তুতি শুরু করবে বাফুফে। ফিফা র‌্যাংকিংয়ে তলানীতে থাকা বাংলাদেশ দলকে আবারো ভাল অবস্থানে আনতে বাফুফে সভাপতি কাজি সালাউদ্দিন ব্যাপক পরিকল্পনা সামনে রেখে কাজ করছেন। তারই অংশ হিসেবে শক্তিশালী জাতীয় দল গঠণের লক্ষ্য নিয়েই ৬২ জন ফুটবলার নিয়ে দুই ভাগে কন্ডিশনিং ক্যাম্প আয়োজন করেছে বাফুফে। ১২ দিনের অনুশীলন শেষে ফুটবলাররা যে যার ক্লাবে ফিরে গেছেন। অল্প সময়ের জন্য হলেও ফিটনেস ক্যাম্প খেলোয়াড়দের জন্য ইতিবাচক ভূমিকা রেখেছে বলে জানিয়েছেন জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার ও জাতীয় দলের ম্যানেজার সত্যজিৎ দাস রুপু। ক্যাম্প শেষে তিনি বলেছেন,‘প্রাক মৌমুমের প্রস্তুতি হিসেবে সবাই খুব ভালোভাবে নিয়েছেন। পরিশ্রম বেশি হলেও যারা শেখ কামাল আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে খেলবেন তাদের জন্য এ সল্প সময়ের প্রস্তুতিও অনেক ভালো কাজে আসবে।’ 

দ্বিতীয় ভাগে যাদের নিয়ে ফিটনেস ক্যাম্প

গোলরক্ষ : মাকসুদুর রহমান, নাঈম, আনিসুর রহমান জিকু, সবুজ দাস রঘু, রক্ষণভাগ : আরিফুল ইসলাম(জুনিয়র), মনসুর আমিন, বিশ্বনাথ ঘোষ, শওকত রাসেল, কেস্ট কুমার বোস, টুটুল হোসেন বাদশা, মনজুরুর রহমান মানিক, জালাল মিয়া, শাকিল আহমেদ, সবুজ, মধ্যভাগ : মেহবুব হাসান নয়ন, ফজলে রাব্বি, রুমন হোসেন, শুশান্ত ত্রিপুরা, শাহেদুল আলম শাহেদ, দিদারুল আলম, ওমর ফারুক বাবু, শাহেদুল আলম শাহেদ(২), আক্রমনভাগ : শাহদাত হোসেন শাহেদ, সারোয়ার জামান নীপু, মান্নাফ রাব্বি, মতিন মিয়া, ওউশি মং, সা’ দ উদ্দিন ও সোহেল রানা। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ