ঢাকা, বৃহস্পতিবার 9 February 2017, ২৭ মাঘ ১৪২৩, ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

ব্যাটসম্যানদের ভালো খেলতে হবে -মুশফিক

স্পোর্টস রিপোর্টার : হায়দরাবাদে আজ শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ-ভারত ঐতিহাসিক টেস্ট। ভারতের মাটিতে ঐতিহাসিক এই টেস্টে ভালো করার জন্য টপঅর্ডারের ব্যাসম্যানদের ভালো খেলার কথা জানালেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। সম্প্রতি নিউজিল্যান্ড সফরে অফফর্মে চলে যাওয়া টপঅর্ডার ব্যাটসম্যানদের ফর্মে ফেরার ব্যাপারে গুরুত্বারোপ করেছেন টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। এছাড়া ভালো করার জন্য সেশন বাই সেশনই খেলার কথা জানালেন বাংলাদেশ টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। গতকাল সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক মুশফিক বলেন, ‘আসলে আমাদের দলগত নৈপুণ্যকে সামনে রেখেই খেলতে হবে। আমাদের লক্ষ্য থাকবে প্রতিটি সেশন ধরে ভালো খেলা।’ হায়দরাবাদের উইকেট স্পিন সহায়ক উইকেট বলেও জানিয়েছেন তিনি। হায়দরাবাদের উইকেট নিয়ে এক প্রশ্নে জবাবে মুশফিক বলেন, ‘উইকেটে অনেক টার্ন রয়েছে। দ্বিতীয়, তৃতীয় দিন থেকে ভয়ঙ্কর টার্ন পাবে এই উইকেট। এই টেস্টে মাঠে নামার আগে বাংলাদেশ দলের পরিকল্পনার কথা জানতে চাইলে মুশফিক বলেন, ‘ভারত ভালো দল। তাদের বিপক্ষে পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলতে হবে। বিশেষ করে আমাদের দলের শীর্ষের ৭ ব্যাটসম্যানকেই ভালো খেলতে হবে। গত নিউজিল্যান্ড সিরিজে যারা ফর্মে ছিল না তাদেরও ফর্মে ফেরা জরুরি এই টেস্টে।’ নিউজিল্যান্ডের মাটিতে অভিষেক হয়েছিল পেসার তাসকিনের। তার দুই ম্যাচ আগে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অভিষেক হয় আরেক পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বির। টেস্ট অধিনায়ক অবশ্য তাদের পারফরম্যান্সে সন্তুষ্ট নন। কেননা এই দু’জনের কাছে মুশফিকের প্রত্যাশা একটুখানি বেশি। মুশফিকের আশা নিউজিল্যান্ডের চেয়ে ভালো কিছু করার সামর্থ্য তাসকিন ও রাব্বির রয়েছে। মুশফিক বলেন, ‘তারা নিউজিল্যান্ডে ভালো বোলিং করেছে। কিন্তু তাদের কাছে আমার চাহিদা এবং প্রত্যাশা আরও বেশি। কেননা যতই ভালো বোলিং করুক না কেন, উইকেট না পেলে তো আর টেস্ট ম্যাচ জেতা সম্ভব নয়। আমার তাদের প্রতি বিশ্বাস আছে, তারা এর চেয়ে আরও বেশি ভালো করার সামর্থ্য রাখে।’ ‘এখানে যে বলটাতে খেলা হবে, সেটার মাধ্যমে রিভার্স সুইং আদায় করা সম্ভব। আমার মনে হয়, তারা যদি কিছু মুভমেন্ট দেখাতে পারে। সেক্ষেত্রে ভারতের ওপরের সারির ব্যাটসম্যানদের সমস্যায় ফেলা সম্ভব হবে।’ তবে উইকেট বেশ মনে ধরেছে বাংলাদেশ অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের। কারণ উইকেট নিয়ে অপর এক প্রশ্নে মুশফিক বলেন, ‘টিপিক্যাল ভারতীয় উইকেট যেরকম হয়, সেরকম টার্নিং মনে হয় না। উইকেট বেশ শক্ত। ব্যাটিংয়ের জন্য বেশ ভালো মনে হয়েছে। পেসাররাও শুরুর দিকে সাহায্য পাবে। স্পিনাররাও বেশ বাউন্স পাবে। দুই বা তিন দিন পর থেকে হয়ত টার্ন মিলবে ভালো। সব মিলিয়ে এখনও পর্যন্ত ভালোই মনে হচ্ছে উইকেট। এখন আমরা কিভাবে খেলি, কতটা কী করতে পারি, সেটাই দেখার ব্যাপার।’ এই মাঠের সবশেষ টেস্টে প্রথম ইনিংসে ২৩৭ রানে গুটিয়ে গিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। ভারত ছাড়িয়েছিল পাঁচশ’। চেতেশ্বর পুজারা করেছিলেন ডাবল সেঞ্চুরি, মুরালি বিজয় দেড়শ’। দু’জন আছেন এবারও। রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও রবীন্দ্র জাদেজা ৮ উইকেট ভাগাভাগি করে দ্বিতীয় ইনিংসে অস্ট্রেলিয়াকে গুটিয়ে দিয়েছিলেন ১৩১ রানেই। টেস্ট র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষ এই দুই বোলার আছেন এবারও। সেই টেস্ট প্রায় চার বছর আগের। তবে মুশফিকের শেষ কথাটিই দিনশেষে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।
উইকেট যেমনই হোক, পারফর্ম তো করতে হবে। টেস্টের শুরু থেকেই ভারতের তারকা ব্যাটসম্যান ও অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও স্পিনার অশ্বিনকে নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। সেক্ষেত্রে তাদের নিয়ে আলাদা কোনও পরিকল্পনা থাকছে কিনা জানতে চাইলে মুশফিক বলেন, ‘ওদের নিয়ে আলাদা ভাবনা নেই। কারণ ভারত ভালো দল। তাই পুরো দল নিয়েই পরিকল্পনা করতে হবে।’ ভারতের বিপক্ষে এই টেস্টে মাঠে নামার আগে দু’টি মাইলফলকের সামনে দাঁড়িয়ে আছেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। প্রথমত ৩০০০ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করা। দ্বিতীয়ত ১০০তম ডিসমিসাল। ৫১ টেস্টের ৯৪ ইনিংসে ব্যাট করে ২ হাজার ৯২২ রান করেছেন মুশফিক। ভারতের বিপক্ষের টেস্টে দুই ইনিংসে আর ৭৮ রান পেলেই চতুর্থ কোনো বাংলাদেশি ক্রিকেটার হিসেবে টেস্টে ৩ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করবেন। তার আগে হাবিবুল বাশার সুমন, তামিম ইকবাল ও সাকিব আল হাসান ৩ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করেছিলেন। টেস্টে মুশফিকের সেঞ্চুরি রয়েছে ৪টি। হাফ সেঞ্চুরি রয়েছে ১৫টি। সর্বশেষ নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে ১৫৯ রানের ইনিংস খেলেছিলেন। ভারতের বিপক্ষের এই টেস্টে আর ৮টি ডিসমিসাল করতে পারলে একমাত্র বাংলাদেশী ক্রিকেটার হিসেবে টেস্টে ১০০ ডিসমিসালের মালিক হবেন মুশফিকুর রহিম। বর্তমানে তিনি ৫১ টেস্টে ৯২টি ডিসমিসালের মালিক।
যেখানে ৮১টি ক্যাচ ও ১১টি স্ট্যাম্পিং। ১৬৫ ওয়ানডেতে তার ডিসমিসালের সংখ্যা ১৭১টি। যার মধ্যে ক্যাচ ১৩২টি। আর স্ট্যাম্পিং ৩৯টি। সবচেয়ে বেশি ডিসমিসালদের রেকর্ডধারীদের তালিকায় এখানে মুশফিক রয়েছেন ১৫তম স্থানে। ৪৮২টি ডিসমিসাল নিয়ে শীর্ষে আছেন কুমার সাঙ্গাকারা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ