ঢাকা, বৃহস্পতিবার 9 February 2017, ২৭ মাঘ ১৪২৩, ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

ইমার্জিং এশিয়া কাপে গুরুত্ব পাবে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটাররা

স্পোর্টস রিপোর্টার: এশিয়ার আট জাতির অংশগ্রহণে ১৫ মার্চ শুরু ইমার্জিং এশিয়া কাপ। বাংলাদেশ দলে জাতীয় ক্রিকেট লিগ (এনসিএল), বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগ (বিসিএল) ও প্রিমিয়ার ডিভিশনের খেলোয়াড়দের প্রতি বেশি গুরুত্ব দেয়া হবে বলে জানালেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। গতকাল বুধবার  বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের মিডিয়া লাউঞ্জে গণমাধ্যমকে তিনি একথা জানান। তিনি  বলেন, ‘প্রথমত আমরা নজর রেখেছি এনসিএল, প্রিমিয়ার ডিভিশনের মতো প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট যারা খেলছে তাদের প্রতি। সব মিলিয়ে ৩২ জনের একটি তালিকা আমরা প্রস্তুত করেছি যার মধ্যে ৮ জন জাতীয় দলের প্লেয়ার আছে, যারা এতদিন জাতীয় দলের হয়ে খেলেছে এবং ভবিষ্যতেও খেলবে। আমরা একটি ভালো কম্বিনেশন তৈরি করতে পারবো বলে আশা করছি। প্রথমে  ৩২ জনকে নিয়ে একটি এক সপ্তাহ বা দুই সপ্তাহের ক্যাম্প করবো। তারপরে আমরা ১৮ জনের একটি স্কোয়াড  তৈরি করবো।’
নান্নু আরও যোগ করেন, ‘আমাদের সেরা কম্বিনেশন খুঁজে পেতে কষ্ট হচ্ছে। কেননা ফাস্ট বোলার ও স্পিনার খুঁজে পাওয়া সহজ হলেও মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান পেতে কিছুটা বেগ পেতে হচ্ছে। কারণ ওই রকম নির্ভরশীল ক্রিকেটার খুঁজে পাওয়াটা চ্যালেঞ্জিং। আমাদের ভবিষ্যৎ জাতীয় দলের কথা বিবেচনায় রেখেই এই স্কোয়াডটি তৈরি করা হবে।’ নেপাল, আফগানিস্তান, হংকং ও আরব আমিরাতের অনূর্ধ্ব-২৩ দলের পাশাপাশি টুর্নামেন্টে অংশ নেয়া টেস্ট খেলুড়ে চারটি দেশ বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার জাতীয় দলের চারজন ক্রিকেটার এই টুর্নামেন্টে খেলতে পারবেন। বাংলাদেশ জাতীয় দলের শ্রীলঙ্কা সফর থাকায় দলের বাইরে যারা থাকবেন তারাসহ দীর্ঘদিন জাতীয় দলের বাইরে থাকা ক্রিকেটাররাও ডাক পাবেন বলে জানান নান্নু। ‘মার্চে শ্রীলঙ্কা সিরিজে যারা যাবে না তাদের নিয়েই আমরা ভাবছি। যারা ওয়ানডে খেলবে তাদেরও এখান থেকে কিছু ম্যাচ খেলিয়ে আমরা নিতে পারবো। যারা একদম জাতীয় দলের বাইরে আছে তাদের জন্যও এটা একটা প্ল্যাটফর্ম।’ উল্লেখ্য, বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, নেপাল, আফগানিস্তান, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও হংকংয়ের অংশগ্রহণে আগামী ১৫ থেকে ২৬ মার্চ প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হবে ইমার্জিং এশিয়া কাপের আসর।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ