ঢাকা, বুধবার 22 February 2017, ১০ ফাল্গুন ১৪২৩, ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

আবারও পাকিস্তানের আদালতে বোমা হামলায় ৩ হামলাকারীসহ ৮ জন নিহত

২১ ফেব্রুয়ারি, ডন: আবারও পাকিস্তানের একটি আদালতে আত্মঘাতী হামলা চালানো হয়েছে। নিরাপত্তাবাহিনীর গুলীতে তিন হামলাকারী নিহত হয়েছে। হামলাকারীদের ছোড়া গ্রেনেড ও গুলীতে এক আইনজীবীসহ অন্তত পাঁচজন নিহত এবং আরও অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।
চাসাড্ডার ডেপুটি পুলিশ সুপার ফায়াজ খান পাঁচ বেসামরিক ব্যক্তি নিহতের কথা নিশ্চিত করেছেন। তিনি আরও জানান, জঙ্গি সংগঠন জামাত-উল-আহরার ওই হামলার দায় স্বীকার করেছে।
গতকাল মঙ্গলবার পাকিস্তানের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর খাইবার পাখতুনখোয়ার চারসাড্ডা জেলার একটি স্থানীয় আদালতে তিন হামলাকারী প্রধান ফটক দিয়ে প্রবেশের চেষ্টা করলে নিরাপত্তা বাহিনী বাধা দেয়। তখন হামলাকারীরা গ্রেনেড নিক্ষেপ করে এবং গুলী ছুড়তে শুরু করে।
প্রাদেশিক সরকার জানিয়েছে, হামলাকারীদের গুলীতে এক আইনজীবী নিহত হয়েছেন এবং আরও অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।
নিরাপত্তা বাহিনীর গুলীতে ওই তিন হামলাকারী নিহত হয়। প্রধান ফটকের সামনেই এক হামলাকারী নিহত হয়েছেন। দ্বিতীয় হামলাকারী নিহত হয় ফটকে ঢোকার পরপরই। আর তৃতীয় হামলাকারী নিজের সঙ্গে থাকা বোমার বিস্ফোরণে নিহত হয়।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, হামলাকারীদের লাশের পাশেই পড়ে আছে তাদের সঙ্গে থাকা বিস্ফোরক ও আগ্নেয়াস্ত্র। পেশোয়ার থেকে চাসাড্ডার দূরত্ব ৩০ কিলোমিটার। প্রাদেশিক রাজধানী থেকে অন্তত ১০টি অ্যাম্বুলেন্স পাঠানো হয়েছে ঘটনাস্থলে। সেইসঙ্গে লেডি রিডিং হাসপাতালকে জরুরি অবস্থায় রাখা হয়েছে।
সম্প্রতি বেশ কয়েকটি জঙ্গি হামলার পর খাইবার পাখতুনখোয়া এবং পাকিস্তানের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। এর মাঝেই আদালতে বোমা হামলার ঘটনা সামনে আসলো।
গত বছর মার্চে চাসাড্ডার শবকদর এলাকার একটি আদালতে আত্মঘাতী বোমা হামলায় অন্তত ১৭ জন নিহত হয়েছিলেন।
গত ১০ দিনে সিন্ধু, বেলুচিস্তান, খাইবার পাখতুনখোয়া, ফাটা এবং পাঞ্জাবে জঙ্গি হামলায় অন্তত ১০০ জন নিহত হয়েছেন।
এর মধ্যে সম্প্রতি সিন্ধু প্রদেশের শেহওয়ান এলাকার লাল শাহবাজ কালান্দার মাজারে বোমা হামলায় ৯০ জন নিহত হয়েছেন।
গত ১৫ ফেব্রুয়ারি এক আত্মঘাতী বোমা হামলাকারী মোটরসাইকেলে করে বিচারকদের বহনকারী গাড়িতে হামলা চালায়। গাড়ির চালক নিহত এবং অন্য চার আরোহী আহত হয়েছেন। তেহরিক-ই-তালেবান ওই হামলার দায় স্বীকার করেছে।
এর আগে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি এক আত্মঘাতী বোমা হামলাকারী লাহোরে এক সমাবেশে হামলা চালায়। এতে ১৩ জন নিহত এবং ৮৫ জন আহত হন। হামলার দায় স্বীকার করেছে জামাত-উল-আহরার।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ