ঢাকা, বুধবার 22 February 2017, ১০ ফাল্গুন ১৪২৩, ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

নেত্রকোনায় নির্মিত হতে যাচ্ছে আইটি পার্ক

নেত্রকোনা সংবাদদাতা: নেত্রকোনায় অচিরেই নির্মিত হতে যাচ্ছে আইটি র্পাক।
এতে করে উন্মোচিত হবে বেকার যুবক-যুবতীদের জন্য কর্মসংস্থানের এক নতুন দিগন্ত।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, গত ৭ ফেব্রুয়ারী জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ-এর নির্বাহী কমিটির (একনেক) বৈঠকে দেশের ৭টি জেলায় আইটি র্পাক নির্মাণ প্রকল্পের অনুমোদন দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
প্রকল্পের নাম নির্ধারণ করা হয়েছে ‘শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং অ্যান্ড ইনকিবেশন সেন্টার’। প্রাথমিকভাবে দেশের ৭টি জেলায় প্রায় ২ শত ৬৬ কোটি টাকা ব্যয়ে এ প্রকল্প নির্মাণ করা হবে।
টেলিযোগাযোগ ও তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করবেন। প্রকল্পের আওতাভূক্ত জেলাগুলো হচ্ছে, নেত্রকোনা, কুমিল্লা, বরিশাল, সিলেট, চট্টগ্রাম, মাগুরা ও নাটোর। কর্তৃপক্ষ আশা করছেন, এই প্রকল্পটি চালু হলে একদিকে ছেলে-মেয়েরা যেমন আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি সম্পর্কে ব্যাপক জ্ঞান অর্জন করতে পারবে অপরদিকে নতুন নতুন কর্ম-সংস্থানের মাধ্যমে শিক্ষিত বেকার যুবক যুবতীরা বেকারত্বের অভিশাপ থেকে মুক্ত হবে।
নেত্রকোনা জেলা প্রশাসনের আইটি শাখা সূত্রে জানা যায়, চলতি বছরেই নেত্রকোনায় শুরু হচ্ছে আইটি পার্কের নির্মাণ কাজ। এ প্রকল্পের আওতায় প্রতিটি জেলায় ৬তলা বিশিষ্ট মাল্টিপারপাস ভবন নির্মাণ করা হবে। এতে কর্ম-সংস্থান ভিত্তিক আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিবেশন সেন্টার থাকবে। এ প্রকল্পে আওতায় প্রতিটি জেলায় প্রতি বছর প্রায় ১৬ থেকে ১৭ শত বেকার ছেলে মেয়ে বিনামূল্যে আইটি পার্কে প্রশিক্ষণের সুযোগ পাবে।
এ প্রকল্পের বিশেষত্ব হলো আইটি গ্র্যাজুয়েটদের পাশাপাশি এসএসসি পাস ও এইচএসসি পাস ছেলে-মেয়েদেরকে সরকারী  ভোকেশনাল ট্রেনিং সেন্টারের ন্যায় বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ মানব সম্পদ হিসেবে গড়ে তোলা।
প্রশিক্ষণ শেষে তাদেরকে সনদপত্র প্রদান করা হবে। প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণের পর আত্ম-কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টির জন্য তাদেরকে বিনা মূল্যে দেয়া হবে ল্যাপটবসহ সকল আইটি বিষয়ক সরঞ্জামাদি ও আউট সোসিং এর সুবিধা।
নেত্রকোনা জেলা প্রশাসক ড. মোঃ মুশফিকুর রহমান জানান, আইটি পার্ক নির্মাণের জন্য জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেত্রকোনার পরিত্যক্ত পুরাতন জেলখানার প্রায় পৌনে দুই একর জায়গায় বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।
প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব-১ (অতিরিক্ত সচিব) মোঃ সাজ্জাদুল হাসান তাঁর নিজ জেলায়  প্রকল্পটি চালু করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর নিকট বিশেষ ভাবে অনুরোধ জানানোর পর প্রধানমন্ত্রী নেত্রকোনায় আইটি পার্ক নির্মাণের অনুমোদন দেন।
এর ফলে নেত্রকোনার ছেলে মেয়েরা প্রশিক্ষণ গ্রহণের মাধ্যমে একদিকে যেমন নিজেদেরকে  আইটি বিষয়ে দক্ষ হিসেবে গড়ে তুলতে পারেবে অপর দিকে প্রশিক্ষণ লব্ধ জ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে আউট সোর্সিংয়ের মাধ্যমে কর্ম-সংস্থানের সুযোগ পাবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ