ঢাকা, বুধবার 22 February 2017, ১০ ফাল্গুন ১৪২৩, ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মেয়েকে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় মায়ের মাথার চুল তুলে নিলো বখাটে

সোনাগাজী সংবাদদাতা: সোনাগাজী উপজেলার মতিগঞ্জ ইউনিয়নের সাতবাড়িয়া গ্রামে সোমবার দুপুরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক মহিলার মাথার চুল তুলে নিয়েছে জুয়েল নামের এক বখাটে।
এলাকাবাসী সূত্র জানায়, সাতবাড়িয়া গ্রামের রসকর আলী সর্দার বাড়ির মাবুল হকের ভাগ্নি তার বাড়িতে থেকে লেখাপড়া করে আসছিল। স্কুলে যাওয়া-আসার পথে পার্শ্ববর্তী জুয়েল তাকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে প্রতিদিনই উত্ত্যক্ত করত। বিষয়টি স্কুল ছাত্রী, তার মামা ও খালাকে জানালে তারা জুয়েলের পরিবারের কাছে নালিশ দেয়। এতে সে ক্ষিপ্ত হয়ে উল্টো মাবুল হকের স্কুল পড়–য়া মেয়ে আরএমহাটকে উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণি ছাত্রীকে স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে বিরক্ত ও উত্ত্যক্ত করতে থাকে। একপর্যায়ে মেয়েটি স্কুলে যাওয়া অনেকটা বন্ধ করে দেয়। বিষয়টি পুনরায় জুয়েলের পিতা-মাতাকে জানালে সবাই মিলে ক্ষিপ্ত হয়ে গতকাল দুপুরে মাবুল হকের ঘরের সামনে এসে পরপর দু’টি বিষয়ে নালিশ করায় ঝগড়া বেধে যায়। এ সময় জুয়েল মাবুল হকের মেয়েকে জোরপূর্বক তুলে নেয়ার হুমকি দেয়। মাবুল হকের স্ত্রী আনোয়ারা বেগম পুলিশে খবর দেয়ার হুমকি দিলে জুয়েল তাকে লাঠিসোঁটা দিয়ে পিটিয়ে চুলে মুঠি ধরে চুল তুলে নেয়। তার আত্মচিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে জুয়েল ও তার পরিবারের সদস্যরা ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। পরে আহত আনোয়ারা বেগম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়। এ ঘটনায় জুয়েল সহ ৫জনকে আসামী করে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ