ঢাকা, শুক্রবার 24 February 2017, ১২ ফাল্গুন ১৪২৩, ২৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

আদালতে ইংরেজি-এর পরিবর্তে বাংলাভাষায় কার্যক্রম পরিচালনা করা দরকার ---কবি হাসান আলীম

১. কখন প্রথম বইমেলায় গিয়েছিলাম?
উ: ১৯৮৩ সালের দিকে বইমেলায় গিয়েছিলাম। তখন আমার প্রথম বই বের হয়েছিলো।
২. ২০১৭ সালের বইমেলায় কয়টি বই বের হয়েছে?
উ: একটি ছন্দ বিষয়ক বই “ছন্দ বিজ্ঞান ও অলংকার” এর দ্বিতীয় সংস্করণ বের হয়েছে।
৩. বইয়ের বিষয়বস্তু কি?
উ: বইয়ের বিষয়বস্তু হচ্ছে কবিতার প্রকারভেদ, ছন্দ, অলংকার, রস ও চিত্রকল্প প্রসঙ্গ। উল্লেখ্য- বাংলা ছন্দের গাণিতিক বিশ্লেষণ এবং ছন্দের ফর্মুলাসহ নানা বিষয়ে আলোচনা রয়েছে।  ২৫৬টি ছন্দের ফর্মুলাসহ নানা বিশ্লেষণ এতে রয়েছে। ইংরেজি, আরবি ও সংস্কৃত ছন্দের তুলনামূলক আলোচনা রয়েছে এতে। অলংকার বিষয়ক আলোচনায় নতুন কিছু অলংকার সম্পর্কে প্রস্তাবনা রয়েছে। রস বিষয়ক আলোচনায় ও একটি নতুন রসের ব্যাখ্যা রয়েছে। বইটির ব্যাপক চাহিদা থাকায় দ্বিতীয় সংস্করণ বের হচ্ছে।
৪. বর্তমান মেলার সঙ্গতি-অসঙ্গতি কি?
উ: মেলায় বেশ কিছু স্টল রয়েছে।
মেলা প্রাঙ্গণের স্থান কম থাকায় একাডেমীর মেলা প্রাঙ্গণের ওপারে সরওয়ারদি উদ্যানের কিছু অংশে মেলার স্টল রয়েছে। মেলায় একটি একক প্রাঙ্গণ হলে ভালো হতো। মেলা প্রবেশ মুখে স্টল সমূহের নম্বর সহ নির্দেশনা  বোর্ড টাঙানো থাকলে ভালো হতো।
৫. বাংলা ভাষার ক্রমবিকাশে আর কি পদক্ষেপ জরুরী?
উঃ ক. আমাদের জাতীয় কবি কাজি নজরুল ইসলাম সম্পর্কে বাংলা সাহিত্যে বিশেষ করে বিশ্ব বিদ্যালয় সমূহে বাধ্যতামূলক ভাবে ১০০ মার্কের সিলেবাস থাকা উচিত।
খ. বাংলা ভাষার শ্রেষ্ঠ সাহিত্যসমূহ ইংরেজি ও আরবি সহ বিভিন্ন ভাষায় অনুবাদ হওয়া উচিত। অনুরূপভাবে বিদেশী ভাষার শ্রেষ্ঠ সাহিত্য বাংলায় অনুবাদ হওয়া উচিত।
গ. বাংলা ভাষার শুদ্ধ উচ্চারণ ও শুদ্ধ বানান পদ্ধতি সম্পর্কে সকলের জ্ঞান থাকা দরকার। বিশেষ করে বিদ্যালয় সমূহে এ বিষয়ে পাঠ প্রদান করা উচিত।
ঘ. আদালত সমূহে ইংরেজি এর পরিবর্তে বাংলা ভাষায় কার্যক্রম পরিচালনা করা দরকার।
সাক্ষাৎকার গ্রহণ : রেদওয়ানুল হক

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ