ঢাকা, শুক্রবার 24 February 2017, ১২ ফাল্গুন ১৪২৩, ২৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

একটি পিলারে হাজার হাজার মানুষের দুর্ভোগ

সিংড়া (নাটোর) সংবাদদাতা: পথচারী চলাচলের রাস্তায় একটি পিলারে নির্মাণে দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে হাজার হাজার মানুষ। খানকাহ শরিফের ভবন বর্ধিত করার অজুহাতে এবং পীরের দোহাই দিয়ে শত বছরের চলাচলের রাস্তায় ভবন নির্মাণের একটি মাত্র পিলার বসানোর কারণে দুর্ভোগে পড়েছে ওই এলাকার কয়েক হাজার মানুষ ও ব্যবসায়ী। ঘটনাটি ঘটেছে নাটোরের সিংড়া উপজেলার শেরকোল ইউনিয়নের পুঠিমারী বাজারে।

 স্থানীয় লোকজনরা প্রতিবাদ করলেও তা মানা হয়নি। এনিয়ে এলাকায় উত্তেজনা চলছে। রাস্তাটি দিয়ে যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। ছেলে-মেয়েরা ভ্যানে করে স্কুলে কিংবা জরুরী অসুস্থ রোগীকে হাসপাতালে নেয়ার জন্য কোনো রাস্তা নেই।

সরেজমিন এলাকায় গিয়ে জানা যায়, যাতায়াতের প্রতিদিন প্রায় ২০ গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ রাস্তাটি ব্যবহার করে। খানকাহ ভক্ত আঃ মতিন জানান, খানকাহ প্রসস্ত করার জন্য নিজস্ব জায়গায় পিলার বসানো হয়েছে। তাছাড়া ঘর সোজা রাখার জন্য পীর সাহেবের নির্দেশনা আছে। মাদরাসা কমিটির সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম বলেন, রাস্তা সকল জনগণের জন্য,এ বিষয়ে বিশেষ নজর দেয়া উচিত। এখানে বিভেদ থাকা ঠিক নয়। পিলার দেয়ার পর থেকে সব ধরনের যান চলাচল সীমিত হয়ে পড়েছে। 

বাজারের অধিকাংশ ব্যবসায়ীরা জানান, রাস্তা বন্ধ করে দেয়ার কোন যুক্তি নেই। খানকাহ দোতালা করা যেতে পারে। তাই বলে রাস্তা বন্ধ করে দেয়া ঠিক নয়। এ নিয়ে সবার মাঝে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে।  বাজার কমিটির সভাপতি আশকান আলী মোল্লা বলেন, ২০ গ্রামের চলাচলের একমাত্র রাস্তা এটি। পিলারটি নির্মাণে জনদুর্ভোগের শিকার হচ্ছে সাধারণ মানুষ। তারা দুর্ভোগ থেকে বাঁচতে প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেছেন। 

স্থানীয় বাসিন্দা ও দোকান মালিক শিপলু বলেন, এলাকাবাসী একটি কুচক্রীর মধ্যে বন্দী হয়ে আছে। এ থেকে পরিত্রাণের জন্য প্রশাসনের সহযোগিতার বিপরীত কোনো পথ নেই। গত মঙ্গলবার রাতে ৮নং ও ৯নং ওয়ার্ড সদস্যদের নেতৃত্বে স্থানীয় ৪টি কমিটির সদস্যদের নিয়ে একটি বৈঠক হয়েছে তাতেও কোনো সমাধান আসেনি। ব্যবসায়ী, ছাত্র-ছাত্রী, কৃষক, শিক্ষক, সকলের দাবি পথ যেন কোনো কুচক্রীর কুনজরের মধ্যে বন্দী না হয়। 

সিংড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাদেকুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, বিষয়টি জানার সাথে সাথে তাৎক্ষণিকভাবে ইউনিয়ন ভূমি অফিসের কর্মকর্তাকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

রোগীদের সেবা প্রদান : চলনবিল এগ্রিকালচার কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিঃ এর আয়োজনে গতকাল বৃহস্পতিবার দিনব্যাপী নাটোরের সিংড়ায় ২ শতাধিক মাথাব্যথা ও চক্ষু রোগীদের বিনামূল্যে সেবা প্রদান করা হয়েছে। সকাল ৯টায় পৌর শহরের বালুয়া বাসুয়া পলিপস্ ও পাইলস্ সেন্টারে এ সেবা প্রদান করা হয়। চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন, চক্ষু বিশেষজ্ঞ ও সার্জন ডা. জাহিদুল ইসলাম।

চিকিৎসা সেবা প্রদানের সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা সমাজসেবা অফিসার আব্দুল মোমিন, উপজেলা সমবায় অফিসার আব্দুর রাজ্জাক,চলনবিল এগ্রিকালচার কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিঃ সভাপতি মোল্লা মো. এমরান আলী রানা, সাধারণ সম্পাদক ডা. এম এ সালাম সরকার, সিংড়া প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রাজু আহমেদ, সাংবাদিক সৌরভ সোহরাব, রাকিবুল ইসলাম,এনামুল হক বাদশা, আবু জাফর, সেলিম হোসেন, মানবাধিকার কর্মী খায়রুজ্জামান ছিটু প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ