ঢাকা, রোববার 26 February 2017, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৩, ২৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে পাল্টা ব্যবস্থা নেবে মেক্সিকো

২৫ ফেব্রুয়ারি, রয়টার্স : মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের লক্ষ্যে দেশটির আমদানির ওপর এক তরফা শুল্ক আরোপের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রকে সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, এটি করা হলে এর পাল্টা জবাব দেয়া হতে পারে।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী লুইস ভিদাগারাভ জানান, এক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্র থেকে মেক্সিকোতে রফতানি করা সুনির্দিষ্ট কিছু পণ্যের ওপরও মেক্সিকান সরকার শুল্ক আরোপ করতে পারে।
এর আগে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প কর্মসূচি অনুযায়ী খুব শিগগিরই দেয়াল নির্মাণের কাজ শুরুর অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।
যুক্তরাষ্ট্র সরকার জানায়, আগামী মাস থেকেই তারা প্রস্তাবিত নকশা গ্রহণের কাজ শুরু করবে।
যুক্তরাষ্ট্রের শুল্ক বিভাগ ও সীমান্ত রক্ষা সংস্থা জানায়, তারা আগামী ৬ মার্চের মধ্যে দেয়াল নির্মাণের নকশা জমা দেয়ার আহবান জানাবে।
প্রস্তাব জমা দেয়া কোম্পানিগুলোর মধ্য থেকে ভালো কোম্পানি বাছাই করে ২০ তারিখের মধ্যে একটি শর্টলিস্ট করে তাদের ডাকা হবে।
শুক্রবার মেরিল্যান্ডে কনজারভেটিভ পলিটিক্যাল অ্যাকশন কংগ্রেসে (সিপিএসি) ভাষণ দেয়ার সময় প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেছেন, আমেরিকান নাগরিকের স্বার্থই আগে। তিনি সীমান্তে বিশাল দেয়াল নির্মাণের অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।
তিনি বলেন, ‘আমরা মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণ করতে যাচ্ছি। নির্ধারিত কর্মসূচি অনুযায়ী এটি খুব শিগগিরই শুরু হতে যাচ্ছে।’
ট্রাম্প আরো বলেন, এ দেয়াল নির্মাণের ব্যয় মেক্সিকো দেবে। ডিপার্টমেন্ট অব হোমল্যান্ড সিকিউরিটির প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে রয়টার্সের খবরে বলা হয়, এটি নির্মাণে প্রায় ২১.৫ বিলিয়ন ডলার ব্যয় হবে।
তবে এ ব্যয় ডোনাল্ড ট্রাম্পের ব্যয়ের ধারণার চেয়ে অনেক বেশি। ট্রাম্প এটি নির্মাণে ১২ বিলিয়ন ডলার ব্যয়ের ধারণা দেন।
 প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের প্রস্তাব অনুাযায়ী এ সীমান্ত দেয়াল নির্মাণে মেক্সিকোকে আমদানি পণ্যের ওপর ২০ শতাংশ শুল্ক দিতে হবে।
এক্ষেত্রে শুক্রবার একটি রেডিওকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ভিদাগারাভ বলেন, মেক্সিকো অবাধ বাণিজ্যে বিশ্বাস করে। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র দেয়াল নির্মাণের ব্যয় তুলে নিতে এক তরফাভাবে শুল্ক আরোপ করলে এর পাল্টা পদক্ষেপ হিসেবে মেক্সিকোও যুক্তরাষ্ট্রের কিছু পণ্যের শুল্ক আরোপ করবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ