ঢাকা, রোববার 26 February 2017, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৩, ২৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

ভারতকে লজ্জায় ডুবিয়ে অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট জয়

স্পোর্টস ডেস্ক : টেস্ট ক্যারিয়ারের পঞ্চম ম্যাচে দুই ইনিংসে ১২ উইকেট নিয়ে ভারতকে অসহায় বানিয়ে ছেড়েছেন স্টিভ ও’কিফ । একই সঙ্গে এক যুগ পর ভারতের মাটিতে অস্ট্রেলিয়াকে এনে দিয়েছেন বহু আকাক্সিক্ষত জয়। দেশের মাটিতে অপ্রতিরোধ্য বিরাট কোহলির দলকে ৩৩৩ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়াকে মাত্র তিনদিনে। এ জয়ে চার ম্যাচে বোর্ডার-গাভাস্কার ট্রফি সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে থাকল সফরকারীরা। জিততে হলে রেকর্ড ভাঙতে হতো ভারতকে। স্টিভেন স্মিথের সেঞ্চুরিতে তাদের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ৪৪১ রানের। তৃতীয় দিন দ্বিতীয় সেশনে খেলতে নামে স্বাগতিকরা। হাতে প্রায় তিনদিন। কিন্তু প্রথম ইনিংসের ‘ভয়ঙ্কর’ ও’কিফকে এবারও সামলাতে পারেনি ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। এক সেশনের একটু বেশি সময় খেলেই গুটিয়ে যায়।  অস্ট্রেলিয়া প্রথম ইনিংসে ২৬০ রান করে, আর ভারতের দুই ইনিংস মাত্র ১০৫ ও ১০৭ রানের। লক্ষ্যে নেমে ১০ রানে প্রথম উইকেট হারায় তারা। মুরালি বিজয়কে এলবিডব্লিউ করেন ও’কিফ। পরের ওভারেই নাথান লিয়নের কাছে একইভাবে উইকেট হারান লোকেশ রাহুল। দুই ওপেনার সাজঘরে ফেরার পর বিরাট কোহলিকে নিয়ে ৩১ ও আজিঙ্কা রাহানের সঙ্গে ৩০ রানের জুটি গড়েন চেতেশ্বর পূজারা। ওই দুটি জুটি একটু প্রতিরোধ করে স্বাগতিকরা। আর অন্য প্রান্তে উৎসব করতে থাকেন ও’কিফ। বাঁহাতি এ স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে ফিরিয়ে এক টেস্টে ১০ উইকেট নেওয়ার কীর্তি গড়েন । ও’কিফ ঋদ্ধিমান সাহাকে আউট করে দুই ইনিংসেই ৫ উইকেট দখল করেন। চা বিরতি থেকে ফিরে ওই ওভারেই পূজারাকে (৩১) আউট করেন তিনি। টানা দুই ওভারে শেষ তিন উইকেট তুলে নেন  স্পিনার লিয়ন । প্রথম ইনিংসে ১১ রানে ৭ উইকেট হারানো ভারত দ্বিতীয় ইনিংসে সমান উইকেট হারাল ৪০ রানের ব্যবধানে।ও’কিফ দ্বিতীয় ইনিংসে ১৫ ওভারে ৪ মেডেনসহ ৩৫ রান দিয়ে নিয়েছেন ৬ উইকেট। দুই ইনিংসে ২৮.১ ওভারে ৭০ রান দিয়ে এ স্পিনার পেয়েছেন ১২ উইকেট। দ্বিতীয় ইনিংসের বাকি চার উইকেট পান লিয়ন। এর আাগে ভারতের বিপক্ষে দ্বিতীয় ইনিংসে ২৯৮ রানের লিড নিয়ে শনিবারের খেলা শুরু করেছিল অস্ট্রেলিয়া। তিনশ ছুঁই ছুঁই লিডকে শেষ পর্যন্ত চারশ’র উপর নিয়ে যায় অজিরা। যেখানে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন সফরকারী অধিনায়ক স্মিথ। প্রথম ইনিংসে ২৬০ রান করার পর অস্ট্রেলিয়া ভারতকে ১০৫ রানে বেধে দেয়। অজিরা এর পর দ্বিতীয় ইনিংসে স্মিথের সেঞ্চুরিতে ৮৭ ওভার খেলে ২৮৫ রান করে সব উইকেট হারিয়ে। স্বাগতিকদের জয়ের লক্ষ্য ৪৪১ রান। অস্ট্রেলিয়া তৃতীয় দিন খেলতে নামে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৪৩ রানে। ৫৯ রানে অপরাজিত স্মিথের সঙ্গে ২১ রানে খেলতে নেমেছিলেন মিচেল মার্শ। খুব বেশিক্ষণ টিকতে পারেনি এ জুটি। ২৬ রান যোগ হতেই দিনের প্রথম উইকেট হারায় অজিরা। রবিন্দ্র জাদেজার বলে মার্শ (৩১) ঋদ্ধিমান সাহার গ্লাভসে বল তুলে দিলে বিচ্ছিন্ন হয় ৫৬ রানের জুটিটি। উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান ম্যাথু ওয়েড ২২ গজে নেমে স্মিথকে সঙ্গ দিতে ব্যর্থ হন। মাত্র ৩৫ রান আসে ওই জুটিতে। ওয়েড ২০ রানে বিদায় নিলে প্রথম ইনিংসের মারকুটে ব্যাটসম্যান মিচেল স্টার্ক নামেন স্মিথের অপরপ্রান্তে। ৮.৫ ওভারের এ জুটি ছিল ৪২ রানের, যেখানে ক্যারিয়ারের ১৮তম সেঞ্চুরি পান অজি অধিনায়ক। জাদেজাকে ডিপ কভারে মেরে দৌড়ে দুটি রান নিয়ে ভারতের মাটিতে প্রথমবার তিন অঙ্কের ঘরে পৌঁছান স্মিথ। ১৮৭ বলে ১১টি চারে শতকের ঘরে যান তিনি। দলকে ৪০০ রানের লিড এনে দেওয়ার পর আর টিকতে পারেননি স্মিথ। ডানহাতি এ ব্যাটসম্যান ২০২ বল খেলে ১০৯ রানে জাদেজার এলবিডব্লিউর শিকার হন। পরে আর কোনও ব্যাটসম্যান জ্বলে উঠতে পারেননি। স্টার্ক ৩১ বলে ২ চার ও ৩ ছয়ে ৩০ রানের আরেকটি ঝোড়ো ইনিংস খেলে আউট হন। স্টিভ ও’কিফ ৪২ বলে মাত্র ৬ রান করে সময় ব্যয়ে সফল হয়েছেন। শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে তিনি আউট হন জাদেজার তৃতীয় শিকার হয়ে। ভারতের রবিচন্দ্রন অশ্বিন ৪ উইকেট নিয়ে ইনিংসের সবচেয়ে সফল বোলার। দুইটি পান্ উমেশ যাদব।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ