ঢাকা, রোববার 26 February 2017, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৩, ২৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

তিন ফরমেটেই আমি আত্মবিশ্বাসী -মুস্তাফিজ

স্পোর্টস রিপোর্টার : শ্রীলংকা সফরে তিন ফরম্যাটেই ভালো করার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান। গতকাল এমনটাই জানান তিনি। শ্রীলংকা সফরকে সামনে রেখে গতকাল দ্বিতীয় দিনের মতো অনুশীলন করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। অনুশীলন শেষে সাংবাদিকদের সাথে কথা কলেন মুস্তাফিজুর রহমান। মুস্তাফিজ বলেন, ‘অনেকদিন মাঠের বাইরে ছিলাম, ইনজুরির পর নিউজিল্যান্ড সফরে ছিলাম, টেস্ট ম্যাচের সময়ও দলের সঙ্গে ছিলাম, কিন্তু খেলতে পারিনি। ইনজুরির পরে অনেকদিন  খেলার অভ্যাস ছিলো না। এ জন্যে ভারতে আমি যেতে পারিনি। তবে দুটি বিসিএলের ম্যাচ খেলেছি সেখানে আমার প্রস্তুতিটা ভালো হয়েছে।’এ কারণে আত্মবিশ্বাসও  ফিরে পেয়েছেন বলে জানান মুস্তাফিজ। মুস্তাফিজ বলেন, ‘আত্মবিশ্বাসটা এখন অনেক ভালো পর্যায়েই রয়েছে আমার। কোন অস্বস্তি নাই। সব কিছু ভালো যাচ্ছে। কোন সমস্যা  নাই। ফলে আমি তিন ফরম্যাটেই ভালো করার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী।’ দীঘদিন ইনজুরির ধকল সামলে নিউজিল্যান্ড সফরের বাংলাদেশ দলে অন্তর্ভুক্ত করা  হয়েছিল পেসার মুস্তাফিজুর রহমানকে। কিন্তু সেখানে সিমিত ওভারের ম্যাচগুলোতে  খেলার সুযোগ পেলেও আবারও ব্যাথা অনুভব করায় টেস্টে আর খেলা হয়নি তার। এবার অবশ্য আসন্ন শ্রীলংকা সফরের টেস্ট স্কোয়াডে রাখা হয়েছে কাটারা মাস্টার খ্যাত এই বাঁহাতি পেসারকে। সফরকে সামনে রেখে সম্প্রতি ঘরের মাঠে বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগে (বিসিএল) অনুশীলনমূলক দুটি চারদিনের ম্যাচও খেলেছেন তিনি। এই সুবাদে আগের মতোই বল করতে পারছেন বলে সাংবাদিকদের জানান মুস্তাফিজ। মুস্তাফিজ বলেন,‘বিসিএল খেললাম দুইটা, ওইখানে তো বল জোরে করার চেষ্টা করেছি। পাশাপাশি সুইং করানো আর আমার কাটার কিংবা ্েস্লায়ার যেটাই আছে, যদিও ওটা চারদিনের ম্যাচে ততটা কার্যকরী হয়না। তারপরও, ভালো জায়গায় ধারাবাহিক ছন্দে বল করার চেষ্টা করেছি।’ শ্রীলংকা সিরিজ নিয়ে জানতে চাইলে মুস্তাফিজ বলেন, টেস্ট দলে (আমাকে) নিয়েছে। আমি জানি না, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলে থাকবো কিনা! যদি তিন সংস্করণে থাকতে পারি, চেষ্টা করবো আমার সেরাটা দেয়ার।’ অস্ত্রোপচারের পর ভিন্ন কিছু করতে হয় কিনা? জানতে চাইলে মুস্তাফিজ বলেন, ‘প্রথমে কাজ ছিল, এখন নেই। তবে, ওয়ার্মআপের কিছু ভিন্নতা থাকে। আর থ্রো-তে (সমস্যা) থাকে, বেশি দূরেরটাতে। তবে এখন ওটা করা যাচ্ছে, প্রথমে যেতনা।’ উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে হালকা ইনজুরি নিয়ে আইপিএলে খেলতে গিয়েছিলেন মুস্তাফিজ। এরপর সফলভাবে আইপিএল শেষে সে বছরের আগস্টে সাসেক্সের হয়ে কাউন্টি ক্রিকেট  খেলতে ইংল্যান্ড গিয়ে ইনজুরিতে পড়েন তিনি। সেখানে কাঁধে অস্ত্রোপচার শেষে প্রায় পাঁচ মাস পুনর্বাসনের পর নিউজিল্যান্ড সিরিজে ফিরে সীমিত ওভারের ম্যাচ খেলেন মুস্তাফিজ। কিন্তু হঠাৎ আবারও কোমরে ব্যথা অনুভব করায় আর টেস্ট খেলা হয়নি তার। এমনকি ভারতের বিপক্ষে হায়দরাবাদে ঐতিহাসিক টেস্টেও ছিলেন না আইপএলের উদীয়মান এই সেরা ক্রিকেটার।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ