ঢাকা, রোববার 26 February 2017, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৩, ২৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

রাজধানীর ইসলামবাগে প্লাস্টিক কারখানায় আগুনে নিহত ৩ 

 

স্টাফ রিপোর্টার: রাজধানীর ইসলামবাগের একটি প্লাস্টিক কারখানায় অগ্নিককা-ে অন্তত তিনজন নিহত হয়েছে। গতকাল শনিবার বিকেলে বেড়িবাঁধের এই কারখানায় অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটে।  নিহতরা হলেন শামীম, সীমা ও সালেহা। ফায়ার সার্ভিস কট্রোল রুমের ডিউটি অফিসার মো. বেলাল হসোনে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, আগুনে পুড়ে যাওয়া বাসায় উদ্ধার কাজে গিয়ে এ তিনজনকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। তাদের শরীরের পুরো অংশ পুড়ে গেছে।

ফায়ার সার্ভিস জানিয়েছে, এটি একটি বসতবাড়ি হলেও সেখানে প্লাস্টিকের একটি কারখানা ও গুদাম রয়েছে । আগুন লাগার পর দেড় ঘণ্টা চেষ্টার পর ফায়ার সার্ভিস সন্ধ্যায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।  

ফায়ার সার্ভিস সদর দফতরের কন্ট্রোল রুমের ডিউটি অফিসার মিজানুর রহমান জানান, ফায়ার সার্ভিসের ১২টি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। বর্তমানে ডাম্পিংয়ের কাজ চলছে। এরপর ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণের কাজ করা হবে। তিনি আরো জানান, আগুনের প্রাথমিক কারণ জানতে ফায়ার সার্ভিস কাজ করছে। 

এদিকে রাজধানীর লালবাগ থানার চার রাস্তার মোড়ে পাহিম নামের একটি রেস্টুরেন্টে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে আগুন লেগে এক নারীসহ ১০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের সবাইকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে সাত জনের শ্বাসনালী পুড়ে গেছে। তাদের সবার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

ঢামেক হাসপাতালের আবাসিক সার্জন পার্থ শঙ্কর পাল জানান, শরীরের অনেকাংশ পুড়ে যাওয়া চারজনের অবস্থা গুরুতর। তারা হলেন- সুনাম উদ্দিন (৫০), হযরত আলী (৪০), পান্না আক্তার (২৬) ও অজ্ঞাত এক রিকশাচালক (৩২)। এদের মধ্যে পান্না আক্তার মিষ্টির দোকানের বিপরীত দিকে ডাচ বাংলা ব্যাংকের বুথে ছিলেন বলে এলাকাবাসী জানায়। দগ্ধ বাকি চার জন মারুফ হোসেন (২০), সবুজ (২০), মকবুল হোসেন (৩৫) ও সাব্বিরের (২০) অবস্থাও আশঙ্কামুক্ত নয় বলে ঢামেক বার্ন ইউনিট সূত্রে জানা গেছে। পুলিশের লালবাগ বিভাগের উপ-কমিশনার মো. ইব্রাহিম খান জানান, বিস্ফোরণে খাবারের দোকানটির দেয়াল, দরজা, জানালা, আসবাব ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।  

প্রত্যক্ষদর্শী অভি জানান, মকবুল নামে তার এক স্বজন ফুটপাত দিয়ে হাঁটছিল। হঠাৎ পাপিন রেস্টুরেন্টের ভেতরে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ হয়। তখন রেস্টুরেন্টের কাচ ভেঙে বাইরে চলে আসে। এ সময় রাস্তায় বিদ্যুতের ট্রান্সফরমার বিস্ফোরণের কারণে আটজন দগ্ধ হয়।  এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ঢামেক পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) বাচ্চু মিয়া জানান, ‘লালবাগে আগুনে দগ্ধ হয়ে আটজন ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন বলে আমরা জেনেছি।

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ