ঢাকা, রোববার 26 February 2017, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৩, ২৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

আ’লীগ দেশে দুর্নীতি দুঃশাসনের কলঙ্কময় ইতিহাস রচনা করেছে  - মির্জা ফখরুল

 

স্টাফ রিপোর্টার: বর্তমান সরকার দেশে দুর্নীতি-দুঃশাসনের এক কলঙ্কময় ইতিহাস রচনা করেছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ দেশটাকে পৈতৃক সম্পত্তি ভেবে মানুষের বাক-ব্যক্তি স্বাধীনতা ও গণতান্ত্রিক সকল অধিকার কেড়ে নিয়েছে। গতকাল শনিবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেন। 

বিবৃতিতে মির্জা ফখরুল গত শুক্রবার রাতে নেত্রকোনা জেলাধীন কেন্দুয়া উপজেলা বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল আউয়াল খান, নেত্রকোনা জেলা ছাত্রদল সাংগঠনিক সম্পাদক ফরিদ আহমেদ, নেত্রকোনা জেলাধীন কলমাকান্দা উপজেলা যুবদল নেতা দিদারুল ইসলাম দিদার, নজরুল ইসলাম, কাউছার আহমেদ, বাবুল আহমেদ, কেন্দুয়া থানা যুবদল যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাসির খন্দকার, যুবদল নেতা মাহবুব হোসেন, ছাত্রদল নেতা মো. ইউসুফ, মো. হীরা, কাঞ্চন, নীরব, সৌরভ, ইলিয়াস, নেত্রকোনা জেলা স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা সবুজ, বাহারউদ্দিন, শ্রমিক দল কেন্দুয়া উপজেলা নেতা শামিম হোসেনকে গ্রেফতারের নিন্দা জানান। এছাড়া পুলিশের সহায়তায় যুবলীগ-ছাত্রলীগের সশস্ত্র সন্ত্রাসী কর্তৃক কলমাকান্দা ও কেন্দুয়া উপজেলা বিএনপি কার্যালয়ে ব্যাপক ভাংচুর, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ফরিদ হোসেন বাবু, সাধারণ সম্পাদক অনীক মাহবুব চৌধুরী ও কেন্দুয়া উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি শফিকুল ইসলামের বাসভবনে পুলিশ তল্লাশির নামে ভাঙচুর এবং পরিবারের সদস্যদের সাথে অশালীন আচরণেরও প্রতিবাদ জানান। তিনি বলেন, পুলিশের হামলায় কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শরিফুল হাসান আরিফ, জেলা ছাত্রদল সভাপতি ফরিদ হোসেন বাবু, সাধারণ সম্পাদক অনীক মাহবুব চৌধুরীসহ আহত হয়েছে ২৭ জন নেতাকর্মী। 

বিবৃতিতে বিএনপি মহাসচিব বলেন, গায়ের জোরে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসীন হওয়ার পর থেকেই বর্তমান শাসকগোষ্ঠী বিএনপিসহ দেশের সকল বিরোধী দল ও দলীয় নেতাকর্মীদের নিশ্চিহ্ন করতে ধারাবাহিকভাবে হামলা, মামলা, অপহরণ, হত্যা, গুম, খুন এবং নির্যাতন নিপীড়নের মহোৎসব চালিয়ে যাচ্ছে। দুর্নীতি দুঃশাসনের এক কলঙ্কময় ইতিহাস রচনা করেছে বর্তমান সরকার। দেশটাকে পৈতৃক সম্পত্তি ভেবে মানুষের বাক-ব্যক্তি স্বাধীনতা ও গণতান্ত্রিক সকল অধিকার কেড়ে নেয়া হয়েছে। 

মির্জা ফখরুল বলেন, প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতে বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলা দায়ের করে গ্রেফতারের মাধ্যমে কারান্তরীণ করার নিরন্তর কর্মসূচি বাস্তবায়নই হচ্ছে এখন আওয়ামী সরকারের মূল লক্ষ্য। পাশাপাশি রিমান্ডে নিয়ে অবর্ণনীয় পুলিশী নির্যাতন তো এখন নিত্যনৈমিত্তিক ঘটনা। নেত্রকোনা জেলাধীন কলমাকান্দা ও কেন্দুয়া উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের গ্রেফতার এবং স্থানীয় বিএনপি কার্যালয়সহ তিনজন ছাত্রদল নেতার বাসভবন ভাঙচুরের ঘটনায় নিন্দা জানানোর ভাষা আমার জানা নেই। বিএনপি মহাসচিব অবিলম্বে নেত্রকোনা জেলাধীন কলমাকান্দা ও কেন্দুয়া উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও প্রতিহিংসা চরিতার্থের মামলা প্রত্যাহার এবং গ্রেফতারকৃত নেতাকর্মীদের শর্তহীন মুক্তির জোর দাবি জানান। বিএনপি মহাসচিব আহত নেতাকর্মীদের আশু সুস্থতা কামনা করেন। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ