ঢাকা, মঙ্গলবার 28 February 2017, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৩, ৩০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে আজ রাজধানীতে হরতাল

 

স্টাফ রিপোর্টার : আজ মঙ্গলবার রাজধানীতে হরতাল। গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে রাজধানীতে সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত হরতাল। সাতটি বাম রাজনৈতিক দল নিয়ে গঠিত গণতান্ত্রিক বাম মোর্চা ও সিপিবি-বাসদ যুগপৎভাবে এ কর্মসূচি দিয়েছে। এর পাশাপাশি তারা সারা দেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি করবে। বাম দলগুলোর ডাকা এই হরতালে সমর্থন দিয়েছে দেশের প্রধান বিরোধী দল বিএনপি। দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সম্প্রতি ঠাকুরগাঁওয়ের একটি অনুষ্ঠানে হরতালের পক্ষে তাদের সমর্থনের কথা জানান। এছাড়া গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে বিএনপির পক্ষ থেকে খুব শীঘ্রই কর্মসূচি দেয়া হবে বলেও তিনি জানান। এছাড়া সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ফেডারেশনের নেতৃবৃন্দ সিপিবি-বাসদ আহূত হরতালের প্রতি নৈতিক সমর্থন দিয়েছে।

সিপিবি’র সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবু জাফর আহমেদ এবং বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদের সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান এক বিবৃতিতে ঢাকা মহানগরীতে হরতাল এবং সারা দেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি সফল করার জন্য ঢাকাবাসীসহ দেশবাসীর প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানিয়েছেন। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ অফিস-আদালত, দোকানপাট, ব্যবসা-বাণিজ্যের কাজকর্ম বেলা ১২টার পর শুরু করার মাধ্যমে অযৌক্তিকভাবে গ্যাসের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদ ও এই গণবিরোধী সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবিতে হরতাল পালনের আহ্বান জানিয়েছেন। 

বিবৃতিতে বলা হয় আজ ২৮ ফেব্রুয়ারি হরতালের সমর্থনে সকাল ৬টা থেকেই পল্টন, প্রেস ক্লাব, গুলিস্তান, মতিঝিল এলাকায় রাজপথে থাকবেন সিপিবি’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। এছাড়া শাহবাগ, আজিমপুর, সাইন্সল্যাব, মোহাম্মদপুর, মিরপুর ১০ নম্বর গোল চত্বর, বাহাদুর শাহ পার্ক, খিলগাঁও, তেজগাঁও, শান্তিনগর মোড়সহ ঢাকার বিভিন্ন স্থানে সিপিবি-বাসদ-এর নেতা-কর্মীরা হরতালের সমর্থনে মিছিল করবেন।

এদিকে সোমবার তোপখানা রোডস্থ নির্মল সেন মিলনায়তনে হরতাল প্রসঙ্গে গণতান্ত্রিক বাম মোর্চা সংবাদ সম্মেলনে নেতৃবৃন্দ বলেন, সবগুলো গ্যাস সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান লাভজনক অবস্থায় আছে এমন একটা পরিস্থিতিতে গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির এই ঘোষণা কোনোভাবেই আসতে পারে না। এই মূল্যবৃদ্ধির ফলে সাধারণ মানুষের জীবনে সঙ্কট বৃদ্ধি পাবে। পরিবহন, কৃষি উৎপাদন ও শিল্প উৎপাদন চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে। তারা বলেন, আওয়ামী লীগ দেশে যে লুণ্ঠনের রাজত্ব কায়েম করেছে, তার তহবিল জোগাতেই এই মূল্যবৃদ্ধি। গণতান্ত্রিক বাম মোর্চার আহ্বানে হরতালে গণসংহতি আন্দোলনের সর্বাত্মক সমর্থন দিয়ে গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে জোনায়েদ সাকি বলেন, সরকার পকেট মারের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে। তিনি বলেন, হরতাল দেশের শিল্প-কৃষি বাঁচানোর হরতাল, উৎপাদন ব্যবস্থা রক্ষার হরতাল। এ হরতাল শান্তিপূর্ণভাবে জনস্বার্থে নিবেদিত হরতাল।

হরতাল আহ্বানকারী দলগুলোর পক্ষ থেকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে যে, এসএসসি পরীক্ষার্থী এবং এই পরীক্ষার কাজে সংশ্লিষ্টদের হরতালের আওতামুক্ত রাখা এবং এই পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার ক্ষেত্রে সকলকে সহযোগিতা করা হবে। এছাড়াও ফায়ার সার্ভিস, এম্বুলেন্স, সংবাদপত্র ও প্রচারমাধ্যম, জরুরি বিদ্যুৎ-গ্যাস সংযোগের কাজ, হাসপাতাল ইত্যাদি হরতালের আওতামুক্ত থাকবে বলে বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়।

এদিকে হরতালের সমর্থনে গতকাল পল্টন, প্রেস ক্লাব এলাকায় কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের অংশগ্রহণে সোমবার সিপিবি-বাসদের পদযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া মিরপুর, ধানমণ্ডি, লালবাগ, খিলগাঁও, তেজগাঁও, সূত্রাপুর, শাহবাগ এলাকায় হরতালের সমর্থনে প্রচার মিছিল বের হয়। সেগুনবাগিচা, শিল্পকলা একাডেমি, দুদক অফিস, এজিবি অফিস, রাজস্ব ভবন, মতিঝিল এলাকায় কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ গণসংযোগ ও লিফলেট বিতরণ করেন।

এদিকে সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ফেডারেশনের নেতৃবৃন্দ সিপিবি-বাসদ আহূত হরতালের প্রতি নৈতিক সমর্থন জানিয়েছেন। গতকাল ফেডারেশনের অফিসে ফেডারেশনের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে সিপিবি-বাসদ-এর নেতৃবৃন্দ মতবিনিময় করেন। মতবিনিময়কালে পরিবহণ শ্রমিক নেতৃবৃন্দ সিপিবি-বাসদ-এর দাবির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেন এবং হরতালের প্রতি নৈতিক সমর্থন জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ