ঢাকা, মঙ্গলবার 24 September 2019, ৯ আশ্বিন ১৪২৬, ২৪ মহররম ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

ভোট গ্রহণ চলছে ১৪টি উপজেলা পরিষদে 

অনলাইন ডেস্ক: আজ সোমবার সকাল ৮টায় সারা দেশে একযোগে ১৪টি উপজেলা পরিষদে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত।

১৪ উপজেলার মধ্যে তিন উপজেলায় সাধারণ এবং বাকিগুলোয় উপনির্বাচন চলেছে। দুই ধরনের নির্বাচনই হচ্ছে দলীয় প্রতীকে। এতে আওয়ামী লীগের পাশাপাশি বিএনপির প্রার্থীরাও অংশ নিচ্ছেন।

খান মো. নূরল হুদার নেতৃত্বে নতুন কমিশনের অধীনে এটিই একদিনে বেশিসংখ্যক এলাকায় নির্বাচন হচ্ছে।

এদিকে যে কোনো মূল্যে এ নির্বাচন সুষ্ঠু হবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব মোহাম্মদ আবদুল্লাহ্। তিনি বলেছেন, এ নির্বাচনে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ ভোট গ্রহণের জন্য বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করা হয়েছে।

কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন নিয়ে ৯ মার্চ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তাদের নিয়ে ইসি বৈঠক করবে বলেও জানান তিনি।

ইসির তথ্য অনুযায়ী, সিলেটের ওসমানীনগর, খাগড়াছড়ির গুইমারা ও সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদে সাধারণ নির্বাচন হচ্ছে। এ তিন উপজেলায় চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ভোট চলছে।

এছাড়া বরিশালের বানারীপাড়া ও গৌরনদী, পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালি, কুমিল্লা আদর্শ সদর, পাবনার সুজানগর, নাটোরের বড়াইগ্রাম এবং কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলা পরিষদে শুধু চেয়ারম্যান পদে ভোট চলছে। ভাইস চেয়ারম্যান পদে নীলফামারীর জলঢাকা, সাতক্ষীরার কলারোয়া ও বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জ উপজেলায়। পাবনার ঈশ্বরদীতে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ভোট গ্রহণ চলছে।

এসব নির্বাচনে সর্বোচ্চ ১১ জন প্রার্থী রয়েছেন সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে। গুইমারায় ৯ জন ও ওসামানীনগরে ৮ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। বাকি উপজেলায় ২-৩ জন প্রার্থী রয়েছেন।

এছাড়া যে চারটি পৌরসভায় উপনির্বাচন হচ্ছে সেগুলো হচ্ছে- টাঙ্গাইলের সখীপুর পৌরসভার ২ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদ, পটুয়াখালীর গলাচিপা পৌরসভায় মেয়র পদ, রাজশাহীর আড়ানী পৌরসভার ১ নম্বর সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদ ও বগুড়ার শেরপুর পৌরসভায় ৭ নম্বর সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদ।

নির্বাচনের প্রস্তুতির নিয়ে রোববার নির্বাচন ভবনে ইসি সচিব বলেন, নির্বাচন নিয়ে কাজী রকিবউদ্দীন আহমদের নেতৃত্বাধীন বিগত কমিশনকে অনেক অভিযুক্ত করেছে মিডয়া।

তাই কেএম নুরুল হুদা নেতৃত্বাধীন কমিশন বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করছে। এজন্য পাঁচ নির্বাচন কমিশনার নির্বাচনী এলাকায় গিয়ে আইনশৃংখলা সংক্রান্ত বৈঠক করেছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ