ঢাকা, মঙ্গলবার 07 March 2017, ২৩ ফাল্গুন ১৪২৩, ০৭ জমাদিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজটি কঠিন হবে : হেরাথ

স্পোর্টস রিপোর্টার : বাংলাদেশের বিপক্ষে এবার ভালো করা কঠিন হবে স্বাগতিক শ্রীলংকার জন্য। এমনটাই মনে করেন লংকান অধিনায়ক রঙ্গনা হেরাথ। প্রস্ততি ম্যাচের এ ফলাফল ছাড়াও সাম্প্রতিক সময়ে দারুণ পারফরম্যান্স করছে বাংলাদেশ। তাই এবার বাংলাদেশকে সমীহ করছে স্বাগতিক শ্রীলংকা। অবশ্য এবার শ্রীলংকান দলটিও নতুন একটি দল। তাই বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজটা কঠিন হবে এটা ধরেই নিয়েছে স্বাগতিকরা। প্রথম টেস্টে মাঠে নামার আগে গতকাল সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজটি কঠিন হবে বলে জানান শ্রীলংকা দলের অধিনায়ক রঙ্গনা  হেরাথ। প্রথম টেস্ট নিয়ে অধিনায়ক হেরাথ বলেন, ‘জিম্বাবুয়ের উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়ার আগে আমি চ্যালেঞ্জিং সিরিজের কথা বলেছিলাম। এবার বাংলাদেশের বিপক্ষেও চ্যালেঞ্জ থাকছে। এটি কঠিন একটি সিরিজ হতে পারে। তবে আমি আশা করি দলের খেলোয়াড়রা তাদের সেরাটা দিবে। দল নিয়ে আমি বেশি আত্মবিশাসী।’ বাংলাদেশের বিপক্ষে ভালো করার ব্যাপারে লংকান অধিনায়ক বলেন, ‘গলে শেষবারের মুখোমুখিতে বাংলাদেশের মতো আমরাও রান পেয়েছিলাম। ওই ম্যাচে মুশফিক ২০০ এবং আশরাফুল ১৯০ করেছিল। নাসির পরে শতক করেছিল।
আমরা ৫৭০ রান করার পর ওরা ৬৩৮ রানের বড় সংগ্রহ গড়েছিল। পরে আমরা কলম্বোয় ওদের হারিয়ে সিরিজ জিতেছিলাম। এই মূহুর্তে আমার দলেরও তেমন আত্মবিশ্বাস রয়েছে।’ উইকেট থেকে সহায়তা পেলে গল টেস্টে শ্রীলংকার জন্য সবচেয়ে বড় বিপদ হতে পারেন সাকিব আল হাসান ও তাইজুল ইসলাম। স্বাগতিক দলের অধিনায়ক রঙ্গনা হেরাথের কাছে সবচেয়ে বড় হুমকি বাংলাদেশের এই দুই স্পিনার। দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচে খুব একটা ভালো করেননি তাইজুল ও অফ স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ। চমৎকার বোলিং করা সাকিব কোনো উইকেট পাননি। দিনেশ চান্দিমাল চড়াও হওয়ার পর এই তরুণকে থামাতে পারেননি তিনিও। তবে সই সব পারফরম্যান্সকে খুব একটা হিসাবে আনছেন না হেরাথ। অভিজ্ঞ এই বাঁহাতি স্পিনার চ্যালেঞ্জ দেখছেন টাইগার বাঁহাতি স্পিনে।  তিনি বলেন,‘আমি নিশ্চিত, বাংলাদেশের স্পিনাররা ভালো পরিকল্পনা নিয়েই মাঠে নামবে। ওরা ভালো করবে। ওদের সাকিব, তাইজুলের মতো ভালো স্পিনার রয়েছে।’ শ্রীলংকায় এবারই প্রথম টেস্ট খেলবেন তাইজুল। সাকিব  আগে এখানে খেলেছেন মাত্র একটি টেস্ট। ২০০৭ সালের সেই সফরে এক ইনিংসে ১৬ ওভার বল করে ৫৭ রান দিয়ে উইকেটশূন্য থাকেন তিনি। সব মিলিয়ে লঙ্কানদের বিপক্ষে ৫ ম্যাচে তিনি নিয়েছেন ২০ উইকেট। সর্বশেষ ২০১৩ সালে শ্রীলঙ্কায় টেস্ট খেলেছে বাংলাদেশ। সেবার দ্বিতীয় টেস্টে ব্যবধান গড়ে দিয়েছিলেন হেরাথ। স্বাগতিকদের অধিনায়ক সেই দলের চেয়ে এগিয়ে রাখছেন মুশফিকুর রহিমদের বর্তমান দলটিকে।
তিনি বলেন, ‘২০১৩ সালের দলটির চেয়ে বাংলাদেশের এই দল অনেকটাই ভিন্ন। এই সময়ে ওরা অনেক উন্নতি করেছে।’ বাংলাদেশের কোচিং স্টাফে আছেন চন্দিকা হাথুরুসিংহে, থিলান সামারাবিরা ও মারিও ভিল্লাভারায়ন। হেরাথের বিশ্বাস, তাদের উপস্থিতিতে বাংলাদেশ বাড়তি সুবিধা পাবে। এ নিয়ে হেরাথ বলেন,‘ওরা এই কন্ডিশন খুব ভালো করে জানে। আমাদের খেলোয়াড়দের শক্তি-দুর্বলতা সম্পর্কে জানে। যে দল ভালো খেলবে ওই দলই জিতবে।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ