ঢাকা,বৃহস্পতিবার 15 November 2018, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

অবরোধ চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা গার্হস্থ্য অর্থনীতির ছাত্রীদের

অনলাইন ডেস্ক: গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ইনস্টিটিউট করার দাবিতে টানা দ্বিতীয় দিনের মত রাজধানীর নিউ মার্কেট মোড় সাড়ে তিন ঘণ্টা অবরুদ্ধ করে বিক্ষোভ দেখিয়েছে শিক্ষার্থীরা। 

বুধবার আবারও একই কর্মসূচির ঘোষণা দিয়ে আন্দোলনকারীরা বলেছেন, দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত তারা রাজপথে থাকবেন।   

মঙ্গলবার বেলা পৌনে এগারটা থেকে বেলা সোয়া ২টা পর্যন্ত নিউ মার্কেট মোড় দখল করে রাখেন আজিমপুরের এ কলেজের ছাত্রীরা।

তাদের অবরোধের কারণে নিউ মার্কেটের ১ নম্বর গেইট, আজিমপুর, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও মিরপুর রোডের দিকে চারটি গুরুত্বপূর্ণ রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ফলে আশপাশের বিভিন্ন সড়কে সৃষ্টি হয় তীব্র যানজট।

দিনের অবস্থান কর্মূসূচি শেষ করার আগে আন্দোলনকারীদের অন্যতম মুখপাত্র ক্লদিং অ্যান্ড টেক্সটাইল বিভাগের স্নাতকোত্তর পর্যায়ের শিক্ষার্থী সাব্রিন সুলতানা সুমীনুর বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ১১ মার্চ থেকে শুরু হওয়া তাদের ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জনের কর্মসূচি বহাল থাকবে।

“মন্ত্রণালয় থেকে ইন্সটিটিউটের ঘোষণা না পাওয়া পর্যন্ত আমরা রাজপথ ছাড়ব না; আন্দোলন চলতে থাকবে।”

বুধবার সকাল ১০টায় আবারও নিউ মার্কেট মোড়ে অবস্থান কর্মসূচি শুরু হবে বলে জানান সুমীনুর।

কলেজের শিশু বিকাশ ও সামাজিক সম্পর্ক বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ইশরাত জাহান বলেন, “আমরা আগামীকাল আমাদের দাবির যৌক্তিকতাগুলো আরও স্পষ্ট ও জোরালোভাবে তুলে ধরব, যাতে সরকার তা মেনে নিতে বাধ্য হয়। আমাদের ঠুনকো ভাবার কোনো সুযোগ নেই।”

গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে একটি পূর্ণাঙ্গ ইন্সটিটিউট ঘোষণার দাবিতে গতবছর সেপ্টেম্বরে আন্দোলন শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। এর ধারাবাহিকতায় সোমবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর পৌনে ২টা পর্যন্ত তারা নিউ মার্কেট মোড় অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান।

সোমবারের কর্মসূচি শেষে আন্দোলনকারীরা আবারও অবরোধের ঘোষণা দেওয়ায় মঙ্গলবার সকাল থেকেই নিউ মার্কেট ও নীলক্ষেত এলাকায় বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন থাকতে দেখা যায়। কলেজের আশপাশে দেখা যায় অন্তত ছয়টি পুলিশ ভ্যান।

এর মধ্যেই সকাল ১০টার দিকে কলেজের ভেতরে বিক্ষোভ শুরু করেন আন্দোলনকারীরা। পরে তারা মিছিল নিয়ে এসে নিউ মার্কেট মোড়ের চৌরাস্তায় বসে পড়েন।

নিউ মার্কেট মোড়ের কাছেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ বেশ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অবস্থান। এ পথ দিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেও যাওয়া যায়। যান চলাচল বন্ধ থাকায় ভোগান্তিতে পড়েন গুরুত্বপূর্ণ এই সড়কের যাত্রীরা।

আন্দোলন চলাকালে শিক্ষার্থীদের মুখপাত্র ক্লদিং অ্যান্ড টেক্সটাইল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী শাম্মী সোমা বলেন, “রাজপথ ছাড়া কোনো আন্দোলন হয় না, তাই এখানে এসেছি। যতদিন পর্যন্ত মন্ত্রণালয় থেকে আশ্বাস না পাচ্ছি, রাজপথ ছাড়ছি না।”

সোমা জানান, অবরোধ চললেও শিক্ষার্থী এবং ঢাকা মেডিকেলগামীদের তারা ছেড়ে দিচ্ছেন।

আন্দোলন শুরুর পর থেকে কলেজের শিক্ষকরা তাদের বাসায় ফোন করে হুমকি দিচ্ছেন অভিযোগ করে সোমা বলেন, “কলেজে অভিজ্ঞ শিক্ষক নেই। দুই বছর হয়ে গেল, এখনও প্রথম বর্ষের রেজাল্টই পাইনি, প্রশাসনিক, অ্যাকাডেমিক অনেক ধরনের সমস্যা হচ্ছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে গেলে এসব সমস্যা কমবে বলেই আমরা আন্দোলন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।”

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ