ঢাকা, শুক্রবার 17 March 2017, ০৩ চৈত্র ১৪২৩, ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

গোদাগাড়ীতে ১০ দিনেও উদ্ধার হয়নি অপহৃত আদিবাসী নারী বাসন্তী

গোদাগাড়ী (রাজশাহী) সংবাদদাতা : রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার রিশিকুল ইউনিয়নের পাইতাপুকুর গ্রামের নরেশ টুডুর স্ত্রী বাসন্তী সরেনের অপহরণের ১০ দিন পার হয়ে গেলেও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। নরেশ মন্ডল বলেন চব্বিশনগরের ইয়ারু মন্ডলের ছেলে আফাজ উদ্দিন চলতি মাসে রাতের অন্ধকারে তার স্ত্রীকে অপরণ করে নিয়ে যায়। এই নিয়ে কাঁকনহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে একটি সাধারণ ডায়েরী করেছেন বলে তিনি জানান। তিনি বলেন আফাজের পূর্বে দুই স্ত্রী থাকা সত্ত্বেও তার স্ত্রীকে নিয়ে চলে গেছেন। আফাজ এর পূর্বে একই এলাকার ছয়ঘাটি গ্রামের এক আদিবাসী বধূকে অপহরণ করে নিয়ে গিয়েছিল বলে নরেশ জানান। তিনি বলেন আফাজ প্রতিদিন তাদের পাড়াতে এসে নেশা করতেন এবং তাদের বাড়িতে আসতেন। নিষেধ করলেও তিনি শুনতেন না বলে তিনি জানান। নরেশের মেয়ে সুর্তিনা টুডু বলেন আফাজকে বাড়িতে আসতে নিষেধ করলে তার স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দেবে বলে হুমকি দিত বলে অভিযোগ করেন। আফাজের দ্বিতীয় স্ত্রী ফেরদোসী এর সাথে জড়িত বলে সুর্তিনা জানান। নয়েশ বলেন ঘটনার দিন থেকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজ করা হলেও তার কোন প্রকার হদিস পাওয়া যাচ্ছেনা। কাঁকনহাট পুলিশ দায়িত্ব নিলেও তারাও বর্তমানে ব্যর্থ হয়েছেন বলে তিনি জানান। মেয়ে সুর্তিনা ও ছেলে সিনাশিষ মায়ের জন্য সর্বদা কান্নাকাটি করছে এবং মায়ের ফিরে আসার প্রহর গুনছে। নয়েশ তার স্ত্রীকে ফিরিয়ে আনার জন্য পুলিশ বিভাগের কর্মকর্তাদের অনুরোধ করেন। সেইসাথে তারা আফাজের শাস্তি দাবী করেন। ঘটনার অগ্রগতি সমন্ধে কাঁকনহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ বেলাল হোসেনের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন বাসন্তীকে উদ্ধার ও আফাজকে গ্রেফতার করার জন্য সাঁড়াশী অভিযান অব্যহত রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ