ঢাকা, রোববার 19 March 2017, ০৫ চৈত্র ১৪২৩, ১৯ জমাদিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

শততম টেস্টে জয়ের সুবাতাস পাচ্ছে বাংলাদেশ

রফিকুল ইসলাম মিঞা: শ্রীলংকার বিপক্ষে শততম টেস্টে জয়ের সুবাতাস পাচ্ছে বাংলাদেশ। বড় কোনো অঘটন না ঘটলে শততম টেস্টে জয়ের ইতিহাস গড়তে যাচ্ছে টাইগাররা। প্রথম টেস্টে শ্রীলংকার কাছে বড় ব্যবধানে হারলেও এই টেস্টে জয়ের দ্বারপ্রান্তেই আছে বাংলাদেশ। অবশ্য জয়ের এই কাজটা গতকাল চতুর্থ দিনেই করতে পারতো বাংলাদেশ। যদি না করুনারতেœ শ্রীলংকার পক্ষে সেঞ্চুরিসহ ১২৬ রানের ইনিংস খেলে দলকে টেনে তুলতেন। তারপরও আজ শেষ দিনটি বাংলাদেশেরই হবে এটা বুঝতে কারো অসুবিধা হওয়ার কথা নয়। কলম্বো টেস্টে টস জিতে আগে ব্যাট করে শ্রীলংকা প্রথম ইনিংসে করেছিল ৩৩৮ রান। জবাবে সাকিবের সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশ প্রথম ইনিংসে ৪৬৭ রান করে বিদেশের মাটিতে সর্বোচ্চ ১২৯ রানের লিড নিয়েই শততম টেস্টে চালকের আসনে বসে টাইগাররা। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করে শ্রীলংকা বড় স্কোর  গড়ে বাংলাদেশকে চাপে ফেলতে চেয়েছিল। কিন্তু উল্টো দলটিই এখন চাপের মুখে। আগের দিনের করা ৫৪ রান নিয়ে গতকাল ব্যাট করতে নেমে টাইগারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিং আক্রমণে চতুর্থ দিনেই দিশেহারা হয় দলটি। শেষ পর্যন্ত ওপেনার করুনারতেœর সেঞ্চুরির ওপর ভর করে চতুর্থ দিন শেষে ৮ উইকেটে ২৬৮ রান করে ১৩৯ রানের লিড নিয়েছে। আজ বাকি দুই উইকেটে দলটি আর কত রান যোগ করতে পারবে? ফলে শেষ দিনে জয়ের জন্য আজ বাংলাদেশ যে ছোট টার্গেট পাচ্ছে তা বলাই যায়। তাই বড় কোনো বিপর্যয় না হলে শততম টেস্টে জয়ের প্রায় শতভাগ নিশ্চয়তা নিয়েই মাঠে নামবে মুশফিক বাহিনী।

গতকাল ৫৪ রানে ব্যাট করতে নেমে ভালো কিছু করার জন্য দিন শুরু করে শ্রীলংকা। কিন্তু দিনের দ্বিতীয় ওভারে উইকেট পায় বাংলাদেশ। প্রথম সেশনে ওই একটি উইকেট পায় টাইগাররা। তবে দ্বিতীয় সেশনে মোস্তাাফিজুর রহমান ও সাকিব আল হাসানের দুর্দান্ত বোলিং নৈপুণ্যে বিপদে পড়ে স্বাগতিকরা। ১ উইকেটে ১৩৭ রানে প্রথম সেশন পার করা দলটি চা বিরতির আগে ৬ উইকেট হারিয়ে করে ১৯৯। আর দিনের শেষ সেশনে স্বাগতিকরা দু’টি উইকেট হারালেও নবম উইকেট জুটির প্রতিরোধে পঞ্চম দিনে নিয়ে যায় তাদের ইনিংস। দলটি ১০০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৬৮ রানে চতুর্থ দিনের খেলা শেষ করেছে। তাদের লিড এখন ১৩৯ রানের। দিলরুয়ান পেরেরা ১২৬ বলে ২৬ রানে অপরাজিত থেকে শক্ত প্রতিরোধ গড়েছেন। অপর প্রান্তে ১৬ রানে টিকে আছেন সুরাঙ্গা লাকমল। চতুর্থ দিনে ৫৪ রান নিয়ে ব্যাট করতে নামে স্বাগতিক শ্রীলংকা। দলের পক্ষে দুই ওপেনার উপল থারাঙ্গা আর করুনারতেœ উভয়েই ২৫ রান নিয়ে ব্যাট করতে নেমেছিলেন। তবে থারাঙ্গার বিদায়ে দলটির দিনের শুরুটা ভালো হয়নি। কারণ শুরুতেই মেহেদী হাসান মিরাজ ওপেনার উপল থারাঙ্গাকে সরাসরি বোল্ড করে সাজঘরে পাঠিয়ে দিনটা নিজেদের করে নেয়ার আভাস দেন। মাঠ ছাড়ার আগে মাত্র ১ রান যোগ করে ব্যক্তিগত ২৬ রানে আউট হন তিনি। ওপেনার থারাঙ্গা দ্রুত ফিরে গেলেও আরেক ওপেনার দিমুথ করুনারতেœই দলকে এগিয়ে নিয়েছেন। না হলে হয়তো চতুর্থ দিনেই ভালো কিছু করে দেখাতে পারতো বাংলাদেশ। করুণারতেœ সেঞ্চুরিসহ ১২৬ রান করেই শ্রীলংকাকে এগিয়ে নেয়। ২৪৪ বলে ১২৬ রান করার পর সাকিবের বলেই মাঠ ছেড়েছেন তিনি। সাকিবের বলে ফার্স্ট স্লিপে করুণারতেœ সৌম্যের হাতে ক্যাচ তুলে দিলেই বাংলাদেশের স্বস্তি ফিরে আসে। করুনারতেœ আউট হলে অবশ্য আর কোনো ব্যাটসম্যান বড় স্কোর গড়তে পারেনি। অবশ্য ব্যাট করতে নেমে মাত্র তিনটি রান যোগ করতে পারে ওপেনার উপুল থারাঙ্গা ও করুনারতেœর জুটি। ওপেনিং জুটিতে ব্যর্থ হলেও করুনারতেœ শক্ত হাতে প্রতিরোধ গড়েন কুশল মেন্ডিসকে নিয়েই। ওই জুটিতে ভর করে প্রথম সেশনে লিড নেয় শ্রীলংকা। ৯২ বলে ক্যারিয়ারের ১২তম হাফসেঞ্চুরি করে বাংলাদেশকে পেছনে ফেলেন করুনারতেœ। অবশ্য হাফসেঞ্চুরিতে সীমাবদ্ধ থাকেননি এ ওপেনার, সেটাকে পঞ্চম সেঞ্চুরিতে রূপ দিয়েছেন। এর আগে দ্বিতীয় উইকেটে মেন্ডিসের সঙ্গে গড়েন ৮৬ রানের জুটি। সকাল থেকে বাংলাদেশের জন্য দেওয়াল গড়ে তুলেছিলেন ওপেনার করুনারতেœ। ২৪৪ বলে সাজানো তার ১০ চার ও এক ছয়ের ১২৬ রানে ইনিংসটি। এ ওপেনার সাজঘরে ফেরার মধ্য দিয়ে সপ্তম উইকেটের পতন হয় শ্রীলঙ্কার। এরপর ৯ রান করা অধিনায়ক রঙ্গানা হেরাথকে আউট করে দ্বিতীয় ইনিংসে নিজের প্রথম উইকেট তুলে নেন তাইজুল ইসলাম। ফলে ৮ রানে এগিয়ে থেকে মধ্যাহ্ন বিরতিতে যায় স্বাগতিকরা। বিরতি থেকে ফিরে তৃতীয় ওভারে মোস্তাফিজুর তুলে নিয়েছেন কুশাল মেন্ডিজের উইকেটটি। মেন্ডিজ আউট হওয়ার আগে করেন ৩৬ রান। এর আগে মোস্তাফিজের শিকার হয়েছেন প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান দিনেশ চান্দিমাল। তিনি করেছেন মাত্র ৫ রান। মোস্তাফিজের পর বোলিংয়ে আঘাত হানেন সাকিব। ৭ রান করা অসিলা গুনারতেœকে তিনি ফিরান এলবি আউট করে। ব্যাট করতে নেমে টাইগারদের বোলিং আক্রমণে টিকতে পারেননি ধনঞ্জয়া ডি সিলভা ও নিরোশান দিকবালাক। মাত্র ১ রান যোগ করে ধনঞ্জয়া ডি সিলভা সাজঘরের পথ ধরেন মোস্তাফিজের বলে। আর ৫ রান করা নিরোশান দিকবালাকের উইকেটি তুলে নেন সাকিব। ফলে ১৯০ রানে ৬ উইকেট হারায় দলটি। দলীয় ২১৭ রানে দলটি সেঞ্চুরিয়ান করুনারতœকে আর দলীয় ২১৮ রানে হেরাথের উইকেট হারালেও ৮ উইকেটে ২৬৮ রান করে দিন পার করেছে দলটি। ফলে চতুর্থ দিন শেষে শ্রীলংকা এগিয়ে আছে ১৩৯ রানে। দলের পক্ষে পেরেরা ২৬ আর লাকমাল ১৬ রানে ব্যাটিংয়ে আছেন। বাংলাদেশের পক্ষে মোস্তাফিজুর রহমান আর সাকিব আল হাসান নেন তিনটি করে উইকেট। মিরাজ ও তাইজুল নেন একটি করে উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

শ্রীলংকা ১ম ইনিংস: ৩৩৮

বাংলাদেশ: ১ম ইনিংস: ৪৬৭

শ্রীলংকা ২য় ইনিংস: ১০০ ওভারে ২৬৮/৮ (করুনারতেœ ১২৬, থারাঙ্গা ২৬, মেন্ডিস ৩৬, চান্দিমাল ৫, গুনারতেœ ৭, ডি সিলভা ০, ডিকভেলা ৫, পেরেরা ২৬*, হেরাথ ৯, লাকমল ১৬*; শুভাশীষ ০/৩৬, মিরাজ ১/৬৭, মোস্তাফিজ ৩/৫২, সাকিব ৩/৬১, মোসাদ্দেক ০/১০, তাইজুল ১/৩১)। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ