ঢাকা, বুধবার 22 March 2017, ০৮ চৈত্র ১৪২৩, ২২ জমাদিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

খতিয়ান কথনের মোড়ক উন্মোচন

গলুই প্রকাশন চট্টগ্রাম আয়োজিত জীবনমুখী কথাকার নুরুল মুহাম্মদ কাদেরের দ্বিতীয় গ্রন্থ খতিয়ান কথন- এর মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান গত শনিবার সকাল সাড়ে দশটায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের ইঞ্জিনিয়ার আবদুল খালেক মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. আবু ইউসুফ চৌধুরীর উদ্বোধন ঘোষণার মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। বাঁশখালী ফাউন্ডেশন চট্টগ্রামের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সচিব জামাল মোস্তফা চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মাননীয় সংসদ সদস্য (বাঁশখালী-১৬) আলহাজ মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন স্থানীয় সরকার চট্টগ্রাম বিভাগের পরিচালক দীপক চক্রবর্তী (অতিরিক্ত সচিব), পার্বত্য চট্টগ্রাম ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তি কমিশনের রেজিস্ট্রার সোয়েব উদ্দীন খান, কবি ও সাংবাদিক নাজিমুদ্দীন শ্যামল, চট্টগ্রাম কর অঞ্চল-১ এর সহকারী কর কমিশনার একেএম শামসুল আলম, বাঁশখালী ফাউন্ডেশন চট্টগ্রামের সভাপতি অধ্যাপক শেখ এমবি রেজা আলী চৌধুরী, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের প্রশাসনিক কর্মকর্তা প্রদীপ কান্তি সেন।
অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কালেক্টরেক্ট সহকারী সমিতি চট্টগ্রাম জেলার সহ-সভাপতি স্বদেশ শর্মা, গণ্ডামারা বড়ঘোনা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অভিনাশ কান্তি দেব, পশ্চিম বড়ঘোনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক আলহাজ মোহাম্মদ মোসাদ্দেক প্রমুখ।
প্রধান অতিথি বলেন, এদেশের প্রত্যেক মানুষের জমি না থাকলেও একখানা ভিটেবাড়ি অবশ্যই আছে। যাদের জায়গাজমি বা ভিটেবাড়ি আছে তাদের তো অবশ্যই; যাদের নেই তাদের জন্যও নুরুল মুহাম্মদ কাদেরের খতিয়ান কথন বইটি অনেক কিছুর সমাধান হিসেবে কাজ করবে।
বিশেষ অতিথি দীপক চক্রবর্তী তার বক্তব্যে বলেন, স্রষ্টার ইবাদতের সাথে সাথে মানুষকে মানুষের অধিকারের ব্যাপারে অনেক বেশি যতœশীল হতে হবে। যারা সততার সাথে কাজ করেন তারা কর্মের ভেতর দিয়ে বেঁচে থাকেন অনন্তকাল। খতিয়ান কথন গ্রন্থের প্রসঙ্গ টেনে বিশেষ অতিথি বলেন, বইটি আমার পড়ার সুযোগ হয়েছে। জমিজমার শব্দবিচারে লেখক পরিশ্রমের স্বাক্ষর রেখেছেন বলেই মনে হয়েছে। বইটির পাঠকপ্রিয়তাও কামনা করেন তিনি। মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে লেখককে স্মারক সম্মাননা প্রদান করেন গলুই প্রকাশনের স্বত্বাধিকারী কাজী সাইফুল হক ও জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের রেকর্ডরুম শাখার সহকর্মীবৃন্দ। ফুলেল শুভেচ্ছা জানান চর্চা সংস্কৃতি নিকেতন, প্রিয় বাঁশখালী, গণ্ডামারা ইউনিয়ন উন্নয়ন পরিষদ, বাংলাদেশ কালেক্টেরেট সহকারী সমিতি (চট্টগ্রাম জেলা), গণ্ডামারা বড়ঘোনা উচ্চ বিদ্যালয়, পশ্চিম বড়ঘোনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দি চিটাগাং কো-অপারেটিভ অফিসার্স সোসাইটি লি., কেসি দে ইনস্টিটিউট (অফিসার্স ক্লাব), জাম্বুরিমাঠ সরকারি কলোনি অ্যাসোসিয়েশন, বাঁশখালী ফাউন্ডেশন চট্টগ্রাম।
অনুষ্ঠানে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের দুই বিঘা জমি কবিতাটি আবৃত্তি করেন চর্চা সংস্কৃতি নিকেতনের সহকারী পরিচালক আবৃত্তিশিল্পী ফুরকান মাহমুদ। আবদুল আলীম ও সামিনা চৌধুরীর দুটো গান পরিবেশন করেন কণ্ঠশিল্পী নীল আবরার ও তারেকুল ইসলাম।
অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন বাঁশখালী ফাউন্ডেশনের সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ আতিকুর রহমান ও তাহমিনা খানম।
-মুহাম্মদ আতিকুর রহমান

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ