ঢাকা, বৃহস্পতিবার 23 March 2017, ০৯ চৈত্র ১৪২৩, ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

বিশ্বের বৃহত্তম উট উৎসব ২০ লাখ দর্শনার্থীকে আকর্ষণ করবে

২২ মার্চ, আরব নিউজ : রিয়াদের আকাশে ঝলমলে রোদ। গতকাল বুধবার তাই রামাহ’য় দর্শনার্থীদের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। বাদশাহ আব্দুল আজিজ উট উৎসবের কথা। বাহারি রংয়ের উট আকর্ষণ করছে হাজার হাজার দর্শননার্থীদের। রিয়াদ থেকে ১২০ কিলোমিটার উত্তরে রামাহ’য় ২৮ দিনব্যাপী এই উট উৎসব চলছে। ২০ লাখ দর্শনার্থী উট উৎসব উপভোগক করবে বলে উৎসব আয়োজকরা জানিয়েছেন।
উৎসব আয়োজনের মুখাপাত্র তালাল বিন খালিদ বলেন, উপসাগরীয় দেশের ১৩৯০ জন উট মালিক এ উৎসবে অংশগ্রহণ করবেন। ‘সৌদি ভিশন-২০৩০’ এর অংশ হিসেবে নতুন প্রজন্মকে ঐতিহ্যের সঙ্গে যুক্ত করতেই এই আয়োজন করা হয়েছে। এই আয়োজনের স্লোগান হচ্ছে ‘ক্যামেলস আর সিভিলাইজেশন’।
খালিদ আরো জানান, উৎসবের অংশ হিসেবে উটের প্রদর্শনী চলবে। প্রতিযোগিদের উৎসাহিত করতেই আছে বিরাট অঙ্কের পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে। উট হচ্ছে মরুভূমির জাহাজ। এই উটকে ঘিরেই আরবীয় জীবনের ঐতিহ্য প্রবাহিত।
উট শুধু আমাদের অর্থনীতি, রাজনীতি, সামাজিক জীবনকে প্রভাবিত করেনি, বরং আমাদের খাদ্য, বাসস্থান, যাতায়ত ব্যবস্থা এমন কি আমাদের কাব্য সাহিত্যেও উট উপস্থিত হয়েছে তার সহমহিমায়। সুতরাং এ শুধু উট-উৎসব নয়, আমাদের ঐতিহ্যেরই উৎসব বলেও জানান খালিদ। উটের জাত ও গায়ের রংসহ মোট ৫টি ক্যাটাগরিতে ২৭০টি পুরস্কার দেয়া হবে। আগামী ১৫ এপ্রিল এই উৎসবটির চূড়ান্ত পর্ব। রোববার থেকে শুরু হওয়া  পৃথিবীর সর্ববৃহৎ উট উৎসব এটি। আর এ উৎসব উপলক্ষ্যে সেখানে উপস্থিত করা হয়েছে প্রায় ৩ লাখ উট। সুন্দরী প্রতিযোগিতার মতো সাজিয়ে উট হাঁটানোর হবে দর্শকের সামনে। প্রতিযোগিতায় যার উট জয়ী হবে সে পাবে ৩০ মিলিয়ন ডলার পুরস্কার।
বিশাল এ আয়োজন করা হ”েছ সৌদি বাদশাহ সালমানের সহযোগিতায়। প্রথমে ১৯৯৯ সালে এ উৎসব শুরু করে কিছু আরবীয় বেদুইন। সৌদির ঐতিহ্য ও ইতিহাস স্মরণে পরে এটা সৌদি বদশাহর পরিবার নিজের তত্ত্বাবধায়নে নিয়ে নেয়। এখন এই উৎসবের নাম বাদশাহ আবদুল আজিজ উট উৎসব।
উৎসবটি এখন একটি ঐতিহ্যবাহী উৎসবে পরিণত হয়েছে। আরবীয় ও উপ-সাগরীয় দেশের অসংখ্য মানুষকে এক করছে এখন এই উৎসব। নিজেদের ঐতিহ্য জানতে ও জানাতে এই উৎসবে ছুঁটে আসছে ইরান, ইরাক, বাহরাইন, কুয়েত, ওমান, কাতার ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের লোকজনও।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ