ঢাকা, শুক্রবার 24 March 2017, ১০ চৈত্র ১৪২৩, ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

রামপুরায় পুলিশ-পোশাক শ্রমিক সংঘর্ষে আহত ২০ 

 

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর রামপুরায় সড়ক অবরোধ করে পোশাক শ্রমিকরা অবস্থান কর্মসূচি পালন করতে গেলে পুলিশের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন। পুলিশ ওই শ্রমিকদের সরিয়ে দিতে টিয়ার গ্যাস শেল নিক্ষেপ করে। এর প্রতিবাদে  শ্রমিকরাও পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। এ সময় শ্রমিক, রামপুরার থানার ওসিসহ ২০ জন আহত হলে তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। এ সময় ওই সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে । তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয় । দুপুরের পর থেকে ওই এলাকায় যান চলাচল স্বাভাবিক হতে থাকে।

জানা গেছে , গতকাল বৃহস্পতিবার সকালের দিকে ‘লিরিক গার্মেন্ট ইন্ডাস্ট্রিজ’ নামের  তৈরি পোশাক কারখানা বন্ধের প্রতিবাদে ও বকেয়া বেতনের দাবিতে  ৪/৫ শ’ শ্রমিক রামপুরা সড়ক অবরোধ করে অবস্থান কর্মসূচি পালন করতে থাকে। এতে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ এসে শ্রমিকদের সরে যেতে অনুরোধ করে। কিন্তু তারা রাস্তা অবরোধ করে এবং পুলিশের সঙ্গে বাকবিত-ায় লিপ্ত হয়। এক পর্যায়ে পুলিশ শ্রমিকদের সরিয়ে দিতে লাঠিচার্জ শুরু করে। শ্রমিকরা ছত্রভঙ্গ হয়ে বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে পড়ে এবং ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকে। প্রায় ২ ঘণ্টা এ অবস্থা চলে। পরে শ্রমিকরা সরে যায়।

বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা দাবি করেন, তারা শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি পালন করছিলেন। কিন্তু পুলিশ তাদের মারধর করেছে। এতে তাদের অনেক সহকর্মী আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে  শ্রমিক রহিমা, শিউলি, নার্গিস, ঝর্ণা, রাসেল, শাহিদা এবং রামপুরা থানার ওসি প্রলয় কুমার বিশ্বাস, কনস্টেবল সাথি, রেজাউলসহ আরো কয়েকজন রয়েছেন ।

এর আগে ওসি প্রলয় কুমার সাহা সাংবাদিকদের বলেন, ‘মানুষের ভোগান্তি দূর করতে সড়কটি ছেড়ে দিতে অনুরোধ করি। এ কথা শুনে লাঠিসোঁটা নিয়ে শ্রমিকরা হামলা ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকে। তাদের ছত্রভঙ্গ করতে আমরা লাঠিচার্জ করি। এ সময় শ্রমিকদের হামলায় চার পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে।’

এদিকে দুপুরের পর রামপুরায় বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি) ভবনের সামনে অবরোধকারী শ্রমিকদের রাস্তা থেকে সরিয়ে দেয়ায় বাড্ডা-রামপুরা-মালিবাগ সড়কে পুনরায় যান চলাচল স্বাভাবিক হতে শুরু করে।

এর আগে বিনা নোটিশে কারখানা বন্ধ ও নোটিশ দিয়ে চাকরিচ্যুতির প্রতিবাদে সকাল ৮টার দিকে রামপুরা টিভি সেন্টারের বিপরীত দিকে অবস্থিত মোল্লা টাওয়ারের সামনে ওই পোশাক কারখানার কর্মীরা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন। এ ঘটনায় রামপুরার প্রধান সড়কে তীব্র যানজট দেখা দেয়। রামপুরা হয়ে ডিআইটি রোড ও প্রগতি সরণিতেও যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ভোগান্তিতে পড়েন অফিসগামী হাজার হাজার মানুষ। দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করে অনেকেই হেঁটে গন্তব্যের উদ্দেশে রওয়ানা দেন।

মজিবুর রহমান নামে ওই কারখানার এক কর্মী জানান, তিন মাস ধরে মালিক বেতন দিচ্ছেন না। উল্টো চাকরিচ্যুতির নোটিশ ও হঠাৎ করে সোমবার রাতে কারখানায় তালা ঝুলিয়ে পালিয়েছে মালিকপক্ষ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ