ঢাকা, শুক্রবার 24 March 2017, ১০ চৈত্র ১৪২৩, ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

নোয়াখালীতে ভারি শিলাবৃষ্টি ॥ তরমুজ চাষিরা মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত

 

বোরহান উদ্দিন, নোয়াখালী থেকে : নোয়াখালীতে পরপর তিন ধাপে বৃষ্টি ও শিলা-বৃষ্টিতে তরমুজ চাষিরা মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। জেলার উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া এ শিলা-বৃষ্টিতে সুবর্ণচর উপজেলার চরওয়াপদা, চরজব্বর, চরবাটা, চরক্লার্ক, চরজুবলী, পূর্ব চরবাটা ও সদর উপজেলার সাড়ে তিন হাজার হেক্টর তরমুজ ফসল সমূলে নষ্ট হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত চাষিদের প্রণোদনা দিয়ে কিভাবে ক্ষতি কাটিয়ে ওঠা যায় সে চিন্তা ভাবনা করছে কৃষি বিভাগ।

কৃষি অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী নোয়াখালীতে আবাদকৃত ৪০ শতাংশ তরমুজ সম্পূর্ণ নষ্ট হয়েছে। ফলে এ বছর জেলার তরমুজের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন ব্যাহত হবে। তরমুজের পাশাপাশি মরিচ, সয়াবিন, বাদাম, ক্ষিরা, ঢেড়সসহ বিভিন্ন ফসলেরও ক্ষতি হয়। সুবর্ণচরের কৃষক নিজাম উদ্দিন জানান, সাড়ে চার একর বর্গা জমি তরমুজ চাষ করেন। ব্যাংক থেকে ঋণ ও মানুষ থেকে দুই লক্ষ টাকা ঋণ নিয়ে তরমুজ চাষ করি। এবছর ফসলও হয়েছিল ভালো। বুকে আশা বেধে ছিল ভালোই লাভ হবে। কিন্তু গত (শনিবারের) দুপুরের শিলা-বৃষ্টিতে সব নষ্ট হয়ে গেছে।

একই অবস্থা কৃষক আলাউদ্দিনের। পাঁচ একর জমির তরমুজ পানিতে ভাসছে। এনিয়ে কৃষকদের হতাশা লক্ষ্য করা গেছে। কিভাবে মহাজনের দাদন, ব্যাংক ও জমির মালিকের ঋণ পরিশোধ করবো। সরকার সহযোগিতা করলে হয়তো বাঁচতে পারবো। আবার অনেক কৃষক গতকালের শিলা-বৃষ্টির পর ক্ষেতেই আসেননি। অনেকে পানি নিষ্কাশনের মাধ্যমে তরমুজ ফসলকে বাঁচানোর জন্যে শেষ চেষ্টা করছেন।

অপরদিকে চরবাটা ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের কৃষক বেলাল হোসেনও ৬ একর জমির তরমুজ ফসলে বিনিয়োগ করেছেন প্রায় ২ লাখ ৮০ হাজার টাকা। গত ২ দিনের আকস্মীক ভারী বর্ষণ ও শনিবাবের শিলাবৃষ্টিতে সবই শেষ হয়েছে।

সুবর্ণচর উপজেলার কৃষক তরমুজ চাষি সামছুল হক জানান, শিলা বৃষ্টির ফলে ৯ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে।

নোয়াখালীর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ প্রণব ভট্টাচার্য্য জানান, এবছর নোয়াখালী জেলায় সাড়ে তিন হাজার হেক্টর তরমুজ ফসল হয়েছে। তারমধ্যে গতকালের শিলাবৃষ্টিতে সুবর্ণচর ও সদর উপজেলায় সবচেয়ে বেশি তরমুজ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে ৪০ শতাংশ ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে আগামী দুইতিন দিনপর এর পরিমাণ আরও বাড়তে পারে। এছাড়াও কিছু কিছু খিরা, ফ্রুটি ও রবিশস্য ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত চাষিদের প্রণোদনা দিয়ে কিভাবে ক্ষতি কাটিয়ে ওঠা যায় সে চিন্তা ভাবনা করছে কৃষি বিভাগ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ