ঢাকা, শনিবার 25 March 2017, ১১ চৈত্র ১৪২৩, ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

ভালুকায় সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের পাঁচজনসহ নিহত ১০

 

সংগ্রাম ডেস্ক : সড়ক-মহাসড়কে মৃত্যুর মিছিল কমছে না, দিন দিন বাড়ছেই। একটু সতর্ক ও সচেতন হলেই এই মৃত্যুর মিছিল থামানো বা কমানো যায়। গতকালও এই মৃত্যুর মিছিলে যোগ হয়েছে একই পরিবারের ৫জনসহ ১২ জন এবং আহত হয়েছেন ১৪ জন। আমাদের ময়মনসিংহ সংবাদদাতা ইমরান কবীর জানান, ময়মনসিংহ ভালুকার মেহেরাবাড়ীতে সিমেন্ট বোঝাই ট্রাক উল্টে একই পরিবারের পাঁচজনসহ শিশু-নারী-পুরুষসহ ১০ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ১০ জন। গতকাল শুক্রবার ভোররাতে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে ভালুকা উপজেলার মেহেরাবাড়ী নামকস্থানে ঘটনাটি ঘটে। স্থানীয় ও পুলিশ সূত্র থেকে জানা যায়, ঢাকা থেকে শেরপুরগামী স্ক্যান সিমেন্ট বোঝাই একটি ট্রাক (ঢাকা মেট্রো-ট-১১০৩২৯) মেহেরাবাড়ী নামক স্থানে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ফোর লেনের কাজের কারণে রাস্তার মাঝে গর্ত থাকায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে উল্টে যায়। সিমেন্ট বোঝাই ট্রাকটির উপড়ে থাকা যাত্রীরা সিমেন্টের নিচে চাপাপড়ে মারা যায়। পরে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা স্থানীয়দের সহায়তায় নিহতদের ৯টি লাশ ও আহতের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠালে আরো একজন মারা যায়।

নিহতরা হলেন, জেলার তারাকান্দা উপজেলার যাত্রাবাজার গ্রামের মোঃ আজিজুল হক (৪৫), তার স্ত্রী রাবেয়া খাতুন (৪২), তাদের তিন সন্তান মেহেদী হাসান (১১), নয়ন/মিজান (৯) ও মিজান (৩)। অপর নিহত পাঁচজন হলেন জেলার কোতোয়ালি থানার চরশিক্ষা গ্রামের জ্যোৎ¯œা বেগম (৬০), তার ছেলে সিরাজুল ইসলাম (১৮), শেরপুরের নালিতাবাড়ি উপজেলার ভাটারিয়া গ্রামের শুক্কুর আলী (৪৮) ও শাহজাহান (৪০) এবং সদর উপজেলার জওহরদী গ্রামের খোরশেদ আলম (৩৫)। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন দু’জনের অবস্থা আশংকাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

আহতদের উদ্ধার করে ভালুকা উপজেলা সাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা হলেন শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার ছলিম উদ্দিন, কুদ্দুস আলী, জহিরউদ্দিন ও এমাজউদ্দিন।

ভালুকার ভরাডোবা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ জহিরুল ইসলাম উজ্জ¦ল জানান, টানা তিন দিনের ছুটি পেয়ে ঢাকা থেকে ময়মনসিংহগামী পণ্য বোঝাই ওই ট্রাকে করে স্বল্প আয়ের মানুষগুলো বাড়ি ফিরছিলেন। কিন্তু অতিরিক্ত বোঝাই ওই ট্রাকটি ভোরে ভালুকার মেহেরাবাড়ি এলাকায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে উল্টে যায়। এতে সিমেন্টের বস্তার নিচে চাপা পড়ে ঘটনাস্থলেই ৯ জনের মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে দমকল বাহিনীর কর্মীরা ৩ জনকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শাহজাহান নামে একজন মারা যান।

সংস্কার কাজের জন্য মহাসড়কটির চার লেনের মধ্যে দুই লেন বন্ধ। এ কারণে প্রায়ই এখানে দুর্ঘনায় প্রাণহানির ঘটনা ঘটছে বলেন জহিরুল ইসলাম।

খবর পেয়ে ময়মনসিংহের জেলা প্রশাসক খলিলুর রহমান ও পুলিশ সুপার  সৈয়দ নূরুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন এবং হাসপাতালে গিয়ে আহতদের চিকিৎসার খোঁজখবর নিয়েছেন।

নিহতের স্বজনেরা লাশ নেয়ার জন্য ভালুকা থানায় ভিড় করছেন। জেলা প্রশাসক সরকারি খরচে বাড়িতে লাশ পৌঁছে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। একই সঙ্গে তিনি সংশ্লিষ্ট থানার ইউএনও এবং ওসিকে লাশ দাফনে আর্থিক সহায়তা প্রদানেরও নির্দেশ দিয়েছেন। এছাড়া ঘটনা তদন্তে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। ময়মনসিংহের এডিএম আরিফুল ইসলাম এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নূরে আলম ছাড়াও সড়ক ও জনপথের একজন প্রতিনিধি এ কমিটিতে রয়েছেন।

খাগড়াছড়িতে নিহত ২॥ আহত ৪

খাগড়াছড়ি সংবাদদাতা : খাগড়াছড়ির মানিকছড়ি উপজেলার বড়ডলু এলাকায় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় আমিনুল ইসলাম(১৯) নামে এক কিশোর নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। স্থানীয় সূত্র জানায়, রাত সাড়ে ৮টার সময় আমিনুল মাগরিবের নামায পড়ে বাড়িতে যাওয়ার সময় পিছন থেকে আসা দ্রুতগামী মোটরসাইকেল তাকে ধাক্কায় দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই আমিনুলের মৃত্যু হয়। মানিকছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুর রকিব ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় টমটম থেকে পরে রিতা রানী ত্রিপুরা (২৬) নামে এক নারী নিহত ও শিশুসহ চারজন আহত হয়েছে। নিহত রিতা রানী ত্রিপুরা কুলপাড়ার পিতুকা ত্রিপুরার স্ত্রী। আহতরা হলেন রমনা দেবী ত্রিপুরা, জীবন শান্তি ত্রিপুরার স্ত্রী নৃত্যবালা ত্রিপুরা, ননাই ত্রিপুরার স্ত্রী মনোরানী ত্রিপুরা এবং জীবন শান্তি ত্রিপুরার মেয়ে দিনা ত্রিপুরা। আহতদের সকলেই মাটিরাঙ্গা সদর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে মাটিরাঙ্গা বাজার থেকে ভিজিডির চাল উত্তোলন শেষে টমটম যোগে বাড়িতে ফেরার পথে মাটিরাঙ্গার ১০নং এলাকায় তারা টমটম থেকে পড়ে গিয়ে মারাত্মকভাবে আহত হয়। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে মাটিরাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করার পর আশঙ্কাজনক অবস্থায় শিশু দিনা ত্রিপুরাসহ চার জনকে খাগড়াছড়ি জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রিতা রানী ত্রিপুরা মারা যায়। মাটিরাঙ্গা সদর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের মেম্বার অমৃত কুমার ত্রিপুরা রিতা রানী ত্রিপুরার মৃত্যু বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ সাহাদাত হোসেন টিটো ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, টমটমের চালক পলাতক রয়েছে, দুর্ঘটনা কবলিত টমটমটি আটক করা হয়েছে । এবিষয়ে এখনো কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

চ-১ (ই) ২৪-৩-১৭              ঐফ-৪ 

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ