ঢাকা, শনিবার 25 March 2017, ১১ চৈত্র ১৪২৩, ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

জাতীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধান

জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ-২০১৭ উদযাপন উপলক্ষে সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক জাতীয় পর্যায়ে ‘শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান’ হিসেবে বায়তুল শরফ আদর্শ কামিল (এমএ) মাদরাসার সুযোগ্য অধ্যক্ষ ড. মাওলানা সাইয়েদ মুহাম্মদ আবু নোমান নির্বাচিত হন।  উল্লেখ্য, তিনি ধারাবাহিকভাবে জেলা এবং বিভাগীয় পযয়ায়ে ‘শ্রেষ্ঠ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধান’  হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার কৃতী সন্তান। শিক্ষা জীবনে তিনি বিপুল মেধার স্বাক্ষর রাখেন। তিনি কামিল (হাদীস) ১ম শ্রেণি, কামিল ফিকহ (২য় শ্রেণি),  বিএ (অনার্স) ১ম শ্রেণি (৪র্থ স্থান) এবং এমএ (আরবিতে) ১ম শ্রেণি অর্জন করেন। তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন।

তিনি চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী প্রাচীন দ্বীনী প্রতিষ্ঠান দারুল উলুম কামিল (এম.এ) মাদরাসার প্রধান মুহাদ্দিস হিসেবে ১-৯-১৯৮৮ হতে ২২-৭-১৯৯৫ সাল পর্যন্ত এবং একই মাদরাসার অধ্যক্ষ হিসেবে ২৩/৭/১৯৯৬ হতে ৩১/৩/২০০৪ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন।

ড. মাওলানা সাইয়েদ মুহাম্মদ আবু নোমান এর জীবন শুধুমাত্র অধ্যাপনা ও প্রশাসনিক কর্মকা-ে সীমাবদ্ধ নয় বরং সকল ক্ষেত্রে তার সফল বিচরণ রয়েছে। শিক্ষকতার মহান পেশার পাশাপাশি বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও সামাজিক কর্মকা-ের সাথে তিনি সম্পৃক্ত রয়েছেন। ১২০১৬ সালে ‘বায়তুশ শরফ আঞ্জুমানে ইত্তেহাদ বাংলাদেশ” কর্তৃক দ্বীনী শিক্ষা প্রচার প্রসার, ইলমে হাদীস চর্চা ও শিক্ষা প্রদান এবং গবেষণার মাধ্যমে স্বীয় ধর্মের সৌন্দর্য প্রস্ফূটিত করার ক্ষেত্রে অনন্য অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ তাকে গুণীজন সংবর্ধনা ও স্বর্ণপদক প্রদান করা হয়। বর্তমানে তিনি বায়তুশ শরফ আদর্শ কামিল (এমএ) মাদরাসা, চট্টগ্রামে ০১/৪/২০০৪ সাল হতে অদ্যাবধি নিষ্ঠা দক্ষতার সাথে অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।

শত ব্যস্ততার মাঝেও তিনি অধ্যাপনার পাশাপাশি লেখালেখিতে সম্পৃক্ত রয়েছেন। জাতীয় ও স্থানীয় পত্র-পত্রিকা, মাসিক ও বার্ষিক ম্যাগাজিনে এ যাবত প্রায় পঞ্চাশটি গবেষণামূলক ও শিক্ষামূলক প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে। তার রচিত ও প্রকাশিত গ্রন্থাবলীর মধ্যে ১. নিসফু শা’বান এর অস্তিত্ব ও মর্যাদা এবং একটি তাত্ত্বিক পর্যালোচনা, ২. ইসরা ও মিরাতুন্নবী (সা.) এবং আদর্শ সমাজ ব্যবস্থার মূলনীতি, ৩. তারিখু জাময়িল কুরআন ওয়া তাদবিনুহ (আরবী), ৪. ইসলামী জ্ঞান-বিজ্ঞান প্রচার ও প্রসার চট্টগ্রাস দারুল উলুম আলিয়া মাদরাসার অবদান” প্রভৃতি। এছাড়া প্রকাশিত গ্রন্থের মধ্যে তাফসীরে আনোয়ারুল বায়ান ১ম, ২য় খ-, সিহাহ সিত্তাহ ও একটি তাত্ত্বিক পর্যালোচনা হাদীস রাসূল (সা.) জিহাদ অধ্যায়, ব্যবসা, বাণিজ্য পরিচালনায় রাসূল (সা.) এর নীতি ও আদর্শ, অল সাহিফাতুল সাদিকা (হাদীস গ্রন্থ, আরবী) কুরআন ও হাদীসের আলোকে ইছালে সওয়াব ও মুসলিম উম্মাহর প্রতি আল কুরআন দাবি ইত্যাদি। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ