ঢাকা, শনিবার 25 March 2017, ১১ চৈত্র ১৪২৩, ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

স্বাধীনতা যুদ্ধের বীর শহীদদের আত্মত্যাগ ও মুক্তিযোদ্ধাদের অবদান স্মরণের মধ্য দিয়ে  খুলনার দারুল কুরআন সিদ্দিকীয়া মাদরাসায় দুইদিনব্যাপী বার্ষিক ওয়াজ মাহফিল সম্পন্ন

 

খুলনা অফিস : মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের বীর শহীদদের আত্মত্যাগ ও মুক্তিযোদ্ধাদের অবদান গভীরভাবে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণের মধ্য দিয়ে দারুল কুরআন সিদ্দিকীয়া কামিল মাদরাসা খুলনার দুইদিনব্যাপী বার্ষিক ওয়াজ মাহফিল সম্পন্ন হয়েছে। 

গতকাল শুক্রবার ৩৮ তম বার্ষিক ওয়াজ মাহফিলের সমাপনী দিনে সভাপতিত্ব করেন সিদ্দিকীয়া জামেয়া-ই মাদানীয়া ট্রাস্টের সহ-সভাপতি আব্দুর রহমান তালুকদার। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান, প্রধান বক্তা ছিলেন আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন মুফাসসিরে কুরআন হযরত মাওলানা আব্দুল্লাহ আল আমীন, বিশেষ অতিথি ছিলেন কেসিসি’র ১৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. হাফিজুর রহমান মনি, মুফাসসিরে কুরআন হযরত মাওলানা আব্দুল গফ্ফার যশোরী, ১৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আশফাকুর রহমান কাকন, হাফেজ মাওলানা ক্বারী মোস্তাকিম বিল্লাহ প্রমুখ। 

এর আগে বৃহস্পতিবার প্রথমদিন প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা-আসনের সংসদ সদস্য মুহাম্মদ মিজানুর রহমান মিজান, প্রধান বক্তা ছিলেন পীরে কামেল হযরত মাওলানা আব্দুল মোমেন নাছেরী, বিশেষ অতিথি ছিলেন ২৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আলী আকবার টিপু, জাতীয় মুফাসসির পরিষদ পাবনার সহ-সভাপতি অন্ধ হাফেজ মাওলানা আলতাফ হোসাইন, শেখ ফজলুল হক, ক্বারী মো. সোলায়মান প্রমুখ।

ওয়াজ মাহফিলে বক্তারা বলেন, বিশ্বব্যাপী আজ স্বীকৃত মানবতার মুক্তির একমাত্র পথই হলো ইসলাম। সকল ধর্ম ও বর্ণের মানুষ আজ স্বীকার করেন সর্বকালের সর্ব যুগের সেরা আদর্শ মানব হযরত মুহাম্মদ (সা.)। তাঁর জীবন আদর্শের মধ্যেই রয়েছে সমাজ ব্যবস্থা, রাষ্ট্র ব্যবস্থা থেকে শুরু করে মানুষের পারিবারিক জীবনের খুটিনাটি বিষয়। ইসলামই দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভোমত্ত্ব রক্ষার জন্য মানুষকে নিবেদিত থাকার কথা বলেছেন। আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) অত্যাচার-নির্যাতন, জুলুম ও শোষণের বিরুদ্ধে কথা বলেছেন। আমাদে নবী জীবনের চেয়েও মাতৃভূমিকে বেশি ভালবাসতেন। আমরা তাঁর উম্মত হিসেবে আমাদেরও কর্তব্য দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ত্বকে টিকিয়ে রাখার জন্য ঐক্যবদ্ধ থাকা। এ দেশ স্বাধীন না হলে আমাদের কথা বলার অধিকারও থাকতো না। তাই স্বাধীনতার এই মাসে ইসলাম প্রিয় জনতাকে ঐক্যবদ্ধ হতে হয়ে লক্ষ প্রাণের বিনিময়ে অর্জিত এই স্বাধীনতাকে অর্থবহ করতে হবে। বক্তারা বলেন, ইসলামের অপব্যাখ্যা দিয়ে বিচ্ছিন্ন কিছু লোক সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে লিপ্ত হচ্ছে। যা সম্পূর্ণ হাদিস এবং কুরআন বিরোধী। এদের সাথে ধর্ম প্রাণ মুসলমানদের সম্পর্ক নেই।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ