ঢাকা, বুধবার 29 March 2017, ১৫ চৈত্র ১৪২৩, ২৯ জমাদিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

যুবলীগ নেতার ছুরিকাঘাতে আওয়ামী লীগ কর্মী খুন

সংগ্রাম ডেস্ক : রংপুরের কাউনিয়ায় যুবলীগ নেতার ছুরিকাঘাতে হেমন্ত কুমার বর্মণ (৩৫) নামে এক আওয়ামী লীগ কর্মী খুন হয়েছেন বলে অভিযোগ মিলেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত যুবলীগ নেতা শাহ আলমকে আটক করেছে পুলিশ।
গতকাল মঙ্গলবার সকালে উপজেলার পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের সামনে এই ঘটনা হয়। নতুন বার্তা।
নিহত হেমন্ত কাউনিয়ার বালাপাড়া ইউনিয়নের নিজপাড়া এলাকার প্রীতিরাম বর্মণের ছেলে।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, কাউনিয়ার পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের সামনে গ্যারেজে মোটরসাইকেল মেরামত করাকে কেন্দ্র করে এই হত্যাকা- ঘটে। ওই গ্যারেজটি নিহত হেমন্তের ভাতিজা বিপ্লবের।
বিভিন্ন সময় শাহ আলম তার মোটরসাইকেল ওই গ্যারেজে মেরামত করলেও তিনি পারিশ্রমিকের টাকা পরিশোধ করতেন না বলে অভিযোগ রয়েছে।
ঘটনার সময় শাহ আলম তার মোটরসাইকেল মেরামত করতে গ্যারেজে আসেন। এ সময় সেখানে হেমন্ত উপস্থিত ছিলেন। তার সামনে বিপ্লবকে উদ্দেশ করে শাহ আলম গালিগালাজ করলে এনিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া বাঁধে।
এতে ক্ষিপ্ত হয়ে শাহ আলম পাশের দোকান থেকে ছুরি নিয়ে এসে হেমন্তের পেটে ঢুকিয়ে দেয়। আশংকাজনক অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে হেমন্ত মারা যান।
এদিকে, ঘাতক শাহ আলম পালিয়ে যাওয়ার সময় বিক্ষুব্ধ লোকজন স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে থেকে আটক করেন। পরে সেখানে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে সেখানে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টার চালায়।
খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দিপঙ্কর রায় ঘটনাস্থলে এসে ঘাতকের উপযুক্ত শাস্তির আশ্বাস দিলে সেখানকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।
বালাপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বালাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনছার আলী জানান, হেমন্ত আওয়ামী লীগের কর্মী ও শাহ আলম উপজেলা যুবলীগের সদস্য। তারা দুজনই প্রতিবেশী। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।
কাউনিয়া থানার ওসি মামুনুর রশিদ জানান, ময়নাতদন্ত শেষে লাশ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে এখনো কোনো মামলা হয়নি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ