ঢাকা, বৃহস্পতিবার 30 March 2017, ১৬ চৈত্র ১৪২৩, ০১ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

বেসিক ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারিতে বাচ্চুর সম্পৃক্ততা পাওয়া গেছে -অর্থমন্ত্রী

 

 

স্টাফ রিপোর্টার : রাষ্ট্র মালিকানাধীন বেসিক ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারিতে অর্থমন্ত্রণালয় গঠিত তদন্ত কমিটি প্রতিষ্ঠানটির সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হাই বাচ্চুর সম্পৃক্ততা পেয়েছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

গতকাল বুধবার বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা অডিটোরিয়ামে আয়োজিত এক অনুষ্ঠান শেষে অর্থমন্ত্রী এ কথা জানান।

শ্রেষ্ঠ দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সদস্যদের মাঝে পুরস্কার বিতরণী উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে দুদক।

প্রসঙ্গত, ঋণ কেলেঙ্কারি নিয়ে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) বাচ্চুর বিরুদ্ধে কয়েকবার অনুসন্ধান করলেও তার সম্পৃক্ততা খুঁজে পায়নি। পরে অর্থমন্ত্রণালয় তদন্ত কমিটি গঠন করে। কমিটি তার সম্পৃক্ততা খুঁজে পায়।

বাচ্চুর বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, বাচ্চুর সম্পৃক্ততার একটি রিপোর্ট দুদকের কাছে দেয়া হয়েছে। দেখা যাক কি হয়, পরে কি পদক্ষেপ নেয়া যায়। ইনভেস্টিগেশনে- হি হ্যাজ বিন ব্লেমড ইন ঋণ কেলেঙ্কারি।

ইনভেস্টিগেশন রিপোর্ট প্রকাশ করা হবে কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ইনভেস্টিগেশন রিপোর্ট আপাতত প্রকাশ করা হবে না। রিপোর্ট সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো পাবে। পরবর্তীতে দুদক মেইক এ ডিসিশন।’

২০০৯ সাল থেকে ২০১২ সালের মধ্যে বেসিক ব্যাংকের তিনটি শাখা থেকে সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা ঋণ অনিয়মের অভিযোগ উঠে বাচ্চুর বিরুদ্ধে। পরে অনুসন্ধানে নামে দুদক।

চার বছর তদন্তের পর দুদক ১৮টি মামলা করলেও বাচ্চুকে আসামী করা হয়নি। যদিও ব্যাংকটির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অভিযোগের আঙুল ছিল বাচ্চুর বিরুদ্ধে।

জাতীয় পার্টির সাবেক সংসদ সদস্য বাচ্চুকে ২০০৯ সালে বেসিক ব্যাংকের চেয়ারম্যান পদে নিয়োগ দেয় সরকার। ২০১২ সালে তার নিয়োগ নবায়নও হয়েছিল।

কিন্তু ঋণ কেলেঙ্কারির অভিযোগ উঠলে ২০১৪ সালে ব্যাংকটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী ফখরুল ইসলামকে অপসারণ করার পর চাপের মুখে থাকা বাচ্চু পদত্যাগ করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ