ঢাকা, বৃহস্পতিবার 30 March 2017, ১৬ চৈত্র ১৪২৩, ০১ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে জাতীয় ঐক্যের বিকল্প নেই -শিবির সভাপতি

 

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত বলেছেন, স্বাধীনতার পর জাতি তার অস্তিত্বের প্রশ্নে কঠিন সময় পার করছে। একের পর এক এমন সব জাতীয় সমস্যার মুখোমুখি হতে হচ্ছে যা ছিল অপ্রত্যাশিত। কিন্তু এ সমস্যার মোকাবেলা করতে হবে সবাই মিলে। দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে জাতীয় ঐক্যর বিকল্প নেই। 

গতকাল বুধবার রাজধানীর এক মিলনায়তনে ছাত্রশিবিরের সদস্য প্রার্থী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। অফিস সম্পাদক সিরাজুল ইসলামের পরিচালনায় সমাবেশে আরো উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় অর্থ সম্পাদক হাসানুল বান্না, প্রচার সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক সালাউদ্দিন আয়্যুবীসহ বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মী।

শিবির সভাপতি বলেন, দেশে একের পর এক অনাকাক্সিক্ষত ও রহস্যময় ঘটনার কারণে জনগণ গভীর অনিশ্চয়তায় এবং বিভ্রান্তিতে পড়ে আছে। চলমান জঙ্গি সমস্যা জাতিকে নতুনভাবে শঙ্কায় ফেলে দিয়েছে। একই সাথে এই জাতীয় সমস্যাকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের অপচেষ্টা ও জঙ্গি দমন নিয়ে নানা রহস্যময় প্রশ্নবোধক ঘটনা জাতিকে হতাশ করে দিচ্ছে। এ নিয়ে জাতির মধ্যে ধোয়াসা ও বিভক্তি দেখা দিয়েছে। এ ইস্যু নিয়ে রাজনীতি করা হীনম্মন্যতার বহিঃপ্রকাশ ছাড়া কিছু নয়। অন্যদিকে পার্শবর্তী দেশের সাথে স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব বিরোধী সামরিক চুক্তি নিয়েও দেশপ্রেমিক জনগণ চিন্তিত ও শঙ্কিত। ন্যায্য পাওনা তিস্তা চুক্তিতে নমনীয়তা ও দেশ বিরোধী সামরিক চুক্তিতে সরকারের রহস্যময় নীরবতা জনমনে নানা প্রশ্নের সৃষ্টি করেছে। বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও ব্যক্তি এ চুক্তির বিরোধিতা করেছে। কিন্তু সরকার কারো কথা মূল্যায়ন না করে একগুয়েমির পথে হাঁটছে। এগুলো জাতীয় বিষয় হলেও সরকার এসব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে দলীয় সিদ্ধান্তের উপর অটল থাকছে। 

তিনি বলেন, বাংলাদেশ অত্যন্ত কঠিন সময় পার করছে। কিন্তু ক্ষমতাসীনরা গণতন্ত্রের লেবাসে একনায়কতান্ত্রিকভাবে দেশ চালাচ্ছে। ফলে সমস্য সমাধান না হয়ে আরও সমস্যার জন্ম দিচ্ছে। জনগণের মতামতকে অবমূল্যায়ন করে জাতীয় সমস্যা সমাধান সম্ভব নয়। যা ইতিমধ্যে প্রমাণ হয়েছে। জাতীয় ঐক্যের বিপরীত চিন্তা দেশের জন্য খুবই মারাত্মক ফল বয়ে আনতে পারে। আমরা অবিলম্বে সবাইকে সাথে নিয়ে জাতীয় সমস্যা মোকাবেলা করার আহ্বান জানাচ্ছি। জনগণের মতামতকে উপেক্ষা করে কোন চুক্তি বা সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হলে তার পরিণতি শুভ হবেনা। জাতি আর কোন বিপর্যয় দেখতে আগ্রহী নয়। প্রেসবিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ