ঢাকা, শনিবার 08 March 2017, ২৫ চৈত্র ১৪২৩, ১০ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

নবীগঞ্জে ভিক্ষুকের সংখ্যা বাড়ছে

নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) সংবাদদাদাতা: বর্তমান সরকার দুর্ভিক্ষ কমাতে বিভিন্ন সাহায্য সহযোগিতা দিয়ে  আসছে। এবং ইতিমধ্যেই  দেশের বিভিন্ন জেলায় নিরীহ অসহায় ও ভিক্ষুকদের  শূন্যের কোঠায়  আনা হয়েছে । কিন্তু দেশ এগিয়ে যাচ্ছে সমাজ এগিয়ে যাচ্ছে, হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার  অনেক দিন আগের ভিক্ষুকদের এ পেশার কোন পরিবর্তন আসেনি বলে সচেতন মহল মনে করেন । দিন দিন ভিক্ষুকদের আনা গোনা বেড়ে যাচ্ছে। এদের মধ্যে বিভিন্ন বয়সের পুরুষ ও মহিলাদের লোকদের দেখা গেছে । বিশেষ করে মহিলা ভিক্ষুকদের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি।  আবারো আরো দেখা গেছে কয়েক যুগ পুর্ব থেকে যারা ভিক্ষা ভিত্তি করে তাদের সংসার চালাতো তারাই এখনো ঐ  পেশায় নিয়োজিত রয়েছেন। এখন  প্রশ্ন হচ্ছে - দেশের সরকার স্থানীয় সরকারদের অধীনে থাকা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান. ইউপি সদস্য, সদস্যাদের বিভিন্ন সেবার জন্য বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা, প্রতিবন্ধি ভাতা, অন্যান্য  ভাতা ও সহযোগিতার সুযোগ করে দেয়া হলে ও সমাজের খুবই অবহেলিত যারা ভিক্ষা ভিত্তি  করে তাদের সংসার চালাচ্ছে তাদের দিকে জনপ্রতিনিধিদের কোন সুদৃষ্টি নেই  বললেই চলে । নবীগঞ্জ উপজেলায় ১৩ টি ইউনিয়ন ও পৌরসভা  মিলে রয়েছে  প্রায় ৭/৮ লাখ লোকের বসবাস। দেখা গেছে বিভিন্ন দাতা সংস্থা, সেবামুলক সংস্থা, বিভিন্ন ট্রাস্ট যেমন- ইউকে ট্রাস্ট, বাংলা ট্রাস্ট, কুয়েত ট্রাস্ট, আমেরিকা কল্যাণ ট্রাস্ট এবং স্থানীয়ভাবেও বিভিন্ন সমাজসেবামূলক সংস্থা জনগণের উন্নয়নে দেশ উন্নয়নে প্রতিশ্রতি  দিয়ে  কাজ করে যাচ্ছেন। পরিতাপের বিষয় হচ্ছে ,  দীর্ঘ দিন  যাবত যারা বিভিন্ন সমাজ উন্নয়নমূলক কাজের এবং সমাজকে পরিবর্তন  করার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে,  আসলে তারা কি সত্যিই অবহেলিত ও বঞ্চিতদের উন্নয়নের জন্য কাজ করছে তা নিয়ে এখন সুশীল সমাজে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। হিসেব করে দেখা গেছেÑ বিভিন্ন কল্যান ট্রাস্ট মিলে প্রায় ৫০ /৬০ সেবামূলক সংগঠনের লোক কাজ করছেন ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ